১০ লাখ মানুষের অতি দারিদ্র্য বিমোচনে পিকেএসএফের নতুন প্রকল্প

বৃহস্পতিবার , ৩ অক্টোবর, ২০১৯ at ১১:৩৪ পূর্বাহ্ণ
61

অতিদরিদ্রদের জন্য পাথওয়েস টু প্রসপারিটি ফর এক্সট্রিমলি পুওর পিপুল (পিপিইপিপি) নামের নতুন এক চ্যালেঞ্জিং প্রকল্প বাস্তবায়নের উদ্যোগ নিয়েছে পল্লী কর্ম সহায়ক ফাইন্ডেশন (পিকেএসএফ)। যুক্তরাজ্যের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সহযোগি সংস্থা ডিএফআইডি এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) আর্থিক সহযোগিতায় প্রকল্পটি প্রাথমিকভাবে ৬ বছর (২০১৯-২০২৫) মেয়াদে বাস্তবায়ন হবে। গত মঙ্গলবার রাজধানীর শেরেবাংলানগর পিকেএসএফ ভবনে প্রকল্পের কার্যক্রম উদ্বোধন করা হয়।
এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. আসাদুল ইসলাম, পিকেএসএফের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ মঈনউদ্দীন আবদুল্লাহ, ডিএফআইডি বাংলাদেশের প্রধান জুডিথ হার্বার্টসন ও বাংলাদেশে নিযুক্ত ইউরোপীয় ইউনিয়নের হেড অব কোঅপারেশন মার্শিও চ্যান বক্তব্য রাখেন। খবর বাসসের।
মো. আসাদুল ইসলাম বলেন, ২০২০ সালের মধ্যে অতিদারিদ্র্য ৮ দশমিক ৯ শতাংশে নামিয়ে আনতে সরকার বদ্ধপরিকর। তিনি বলেন, রোহিঙ্গা সমস্যা ও জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব বাংলাদেশের অর্থনীতির জন্য এক বড় চাপ। পিপিইপিপি প্রকল্প টেকসই উন্নয়ন অভিষ্ট-১ অর্জনের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। ডিএফআইডির প্রধান জুডিথ হার্বার্টসন বলেন, অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি সবসময় উন্নয়নের আসল চিত্র তুলে ধরেনা। বাংলাদেশে এখনও অসমতা, অপুষ্টি, জলবায়ু পরিবর্তনের মত প্রকট সমস্যা বিদ্যমান। যুক্তরাজ্য বাংলাদেশকে এক্ষেত্রে সহায়তা অব্যাহত রাখবে বলে তিনি জানান। পিকেএসএফের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ মঈনউদ্দীন আবদুল্লাহ বলেন, বাংলাদেশ কমপক্ষে ছয় কোটি দরিদ্র মানুষকে পিকেএসএফ সহায়তা করছে। অনুষ্ঠানে পিকেএসএফের উপব্যবস্থাপনা পরিচালক একিউএম গোলাম মাওলা প্রকল্পের বিষয়ে একটি প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। প্রকল্পটি ১০ লাখ মানুষের টেকসই উন্নয়নে ২০টি সহযোগি সংস্থার মাধ্যমে ১৩টি জেলার ১৫০টি ইউনিয়নে বাস্তবায়ন হবে যার বাজেট ৬৭৩ কোটি টাকা।

x