হাঁটলেন, কথা বললেন দিলেন নির্দেশনাও

আকস্মিক জাম্বুরি পার্কে গণপূর্তমন্ত্রী

শনিবার , ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ at ৪:০২ পূর্বাহ্ণ
124

কাউকে না জানিয়ে সাড়া জাগানো জাম্বুরি পার্কে সারপ্রাইজ ভিজিট করলেন গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন। কথা বললেন শরীরচর্চা করতে আসা নানা বয়সী মানুষের সঙ্গে। জানতে চাইলেন, পার্কে আর কী কী সংযোজন করা যায়। দিকনির্দেশনা দিলেন গণপূর্ত বিভাগের কর্মকর্তাদের। শুধু আকস্মিক পরিদর্শন আর দিকনির্দেশনা নয়, পার্কে এক ঘণ্টা হাঁটলেনও।

গতকাল শুক্রবার সকালে নন্দনকাননের বাসা থেকে চালককে নিয়ে বেরিয়ে পড়েন মন্ত্রী। সোজা আগ্রাবাদের জাম্বুরি পার্কে। খবর পেয়ে ছুটে আসেন গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আহমেদ আবদুল্লাহ নূরও। প্রকৌশলী নূর বলেন, ৮ দশমিক ৫৫ একর জমির ওপর সাড়ে ১৮ কোটি টাকা ব্যয়ে ৮ হাজার রানিং ফুটের পার্ক ও ৫০ হাজার বর্গফুটের জলাধার পরিচ্ছন্ন রাখতে মন্ত্রী গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশনা দিয়েছেন। খবর বাংলানিউজের।

তিনি বলেন, ফোয়ারার পাইপগুলোতে (নজল) যাতে বাদামের খোসা, পলিথিন, প্লাস্টিক ঢুকে নষ্ট না হয় সে জন্য ফোয়ারা বরাবর জাল (নেট) বসাতে বলেছেন। আধ ঘণ্টা পর পর পার্কে আসা লোকজনকে পরিচ্ছন্নতার ব্যাপারে সচেতন করতে মাইকে ঘোষণা দিতে বলেছেন। পার্কে কিছু কবুতর পোষার জন্য পরামর্শ দিয়েছেন। যারা পার্ক অপরিচ্ছন্ন করবে, ময়লা ফেলবে সিসিটিভিতে নজরদারির মাধ্যমে তাৎক্ষণিকভাবে তাদের দিয়ে পরিচ্ছন্ন করানোর জন্য বলেছেন মন্ত্রী।

সন্ধ্যার পর আলো ঝলমলে হয়ে ওঠে জাম্বুরি পার্ক। এক প্রশ্নের উত্তরে প্রকৌশলী নূর বলেন, প্রতিদিন সকাল সাড়ে পাঁচটা থেকে ১০টা পর্যন্ত এবং বিকেল তিনটা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত পার্ক খোলা রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ প্রকল্পের উদ্দেশ্য হচ্ছে শরীর চর্চার জন্য প্রশস্ত ও দীর্ঘ জগিং ট্র্যাক, বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষের মানসিক প্রশান্তির জন্য উন্মুক্ত উদ্যান এবং নির্মল বাতাসের জন্য জলাধার স্থাপন। গত ৮ সেপ্টেম্বর জাম্বুরি পার্ক আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন গণপূর্তমন্ত্রী।

x