সড়কবাতি নিয়ন্ত্রণ কাজে নিয়োজিতদের সম্মানী ভাতা বিতরণ

শুক্রবার , ২৪ মে, ২০১৯ at ৭:১৯ পূর্বাহ্ণ
49

চট্টগ্রাম মহানগরীর সড়কবাতির সুইচ অন অফ কাজে নিয়োজিত ইমাম, মোয়াজ্জিন ও পুরোহিতদের বাৎসরিক সম্মানী ভাতা বিতরণ করেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে থিয়েটার ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে সিটি মেয়র এ সম্মানীর টাকা তুলে দেন। সম্মানি ভাতা বাবদ গতকাল প্রথম দফায় ৮৪৭ জনকে ২৫০০ টাকা করে সর্বমোট ২১ লাখ ১৭ হাজার ৫০০ টাকা সম্মানীভাতা প্রদান করা হয়। নগরীর ৪১টি ওয়ার্ডে মোট বাতির সংখ্যা ৫১ হাজার ৫৭৩টি। প্রতিদিন এই ১৫৩৪ জন ব্যক্তি ১৫৩৪টি সুইচিং পয়েন্ট থেকে সন্ধ্যায় বাতি সুইচ অন এবং ভোর বেলা ফজরের নামাজের পর বাতির সুইচ অফ করেন। এই সব সুইচিং পয়েন্টের নিকটস্থ মসজিদের ইমাম, মোয়াজ্জিন, মন্দির ও গির্জার পুরোহিতদের মাধ্যমে একটি সুপরিকল্পিত উপায়ে নগরীর সকল সড়ক বাতির সুইচ অন অফ করা হয়। এর ফলে জনবল ও বিদ্যুৎ সাশ্রয় বাবদ চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের বছরে ২ কোটি ২৭ লাখ ৮৪ হাজার ৬৭৫ টাকা সাশ্রয় হচ্ছে। বিগত সময়ে প্রতিজনকে ১২০০ টাকা করে ভাতা দেয়া হত। আ জ ম নাছির উদ্দীন দায়িত্ব গ্রহণের পর জনপ্রতি ৩০০ বৃদ্ধি করে ১৫০০ টাকা সম্মানী ভাতা নির্ধারণ করেন। গতকাল সম্মানী প্রদান উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন চসিক সচিব মোহাম্মদ আবু শাহেদ চৌধুরী। অনুষ্ঠানে চসিক কাউন্সিলর মোহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন, শৈবাল দাশ সুমন এবং চসিক প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্নেল মহিউদ্দিন আহমদ শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন। মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন জহুরুল আলম জসীম, মোহাম্মদ সলিম উল্লাহ, হাসান মুরাদ বিপ্লব, সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবিদা আজাদ, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী ঝুলুন কুমার দাশ প্রমুখ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিটি মেয়র বলেন, ধর্ম পালনের পাশাপাশি আপনারা এই মহৎ কাজ করে নগর সেবা ও জাতীয় দায়িত্ব পালন করছেন। আপনাদের এই দায়িত্ব পালনের ফলে জাতীয় বিদ্যুৎ অপচয় রোধ হচ্ছে এবং করপোরেশনের জনবল ব্যয় সাশ্রয় হচ্ছে। জাতীয় সম্পদ বিদ্যুৎ অপচয় রোধ করা সকলের নৈতিক দায়িত্ব। যথাসময়ে বাতির সুইচ অন অফ করার জন্য সংশ্লিষ্টদের আরো দায়িত্বশীল হবার আহ্বান জানিয়ে মেয়র বলেন, মাঝে মধ্যে দিনের বেলায় দেরিতে সুইচ বন্ধ করার অভিযোগ পাওয়া যায়। এক্ষেত্রে একে অপরকে সহযোগিতা করার জন্য তিনি তাদের প্রতি আহবান জানান। তিনি বলেন, ধর্মীয় নেতাদের নাগরিক দায়িত্ব রয়েছে। তাই জুমায় খোৎবা দেয়ার পূর্বে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদকাসক্তদের বিরুদ্ধে কথা বলতে ইমামদের প্রতি অনুরোধ জানান মেয়র। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

x