স্বামী-শ্বশুরসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

যৌতুক দাবিতে স্কুল শিক্ষিকাকে নির্যাতন

আজাদী প্রতিবেদন

বৃহস্পতিবার , ১৮ জুলাই, ২০১৯ at ৪:২০ পূর্বাহ্ণ
25

যৌতুকের দাবিতে এক সরকারী স্কুল শিক্ষিকাকে নির্যাতনের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় একই পরিবারের ৪ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৩-এর বিচারক জান্নাতুল ফেরদৌস আলেয়ার আদালত নির্যাতিতা স্কুল শিক্ষিকার আবেদন শুনানি শেষে স্বামী, শ্বশুর, শাশুড়ি ও ননদসহ একই পরিবারের ৪ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানার আদেশ জারি করেন।
বাদীর অভিযোগে বলা হয়, অভিযুক্ত আসামি রবিউল হোসেন (৩২) বোয়ালখালী থানাধীন উত্তর গোমদন্তী এলাকার ফুলচান চৌধুরী বাড়ির বাসিন্দা মোহাম্মদ লোকমান চৌধুরীর (৫৫) পুত্র। তিনি পটিয়া উপজেলা শিক্ষা অফিসে কর্মরত থাকাবস্থায় স্থানীয় কেলিশহর এলাকার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জনৈকা শিক্ষিকা অত্র মামলার বাদীর সাথে প্রণয় সূত্রে বৈবাহিক সম্পর্কে আবদ্ধ হন। উক্ত আসামি ইতিপূর্বে এক স্ত্রী ও সন্তান থাকার বিষয় গোপন করে বৈবাহিক প্রতারণার আশ্রয়ে উক্ত স্কুল শিক্ষিকাকে গত বছরের অক্টোবর মাসে বিয়ে করেন। এরপর আসামি ও তার পরিবার বাদীকে ১০ লক্ষ টাকা যৌতুকের দাবিতে নির্যাতন শুরু করে।
সর্বশেষ গত ১২ জুন বিকেল ৩ টায় পটিয়া কলেজের পূর্ব পার্শ্বে হাজী সরু মিয়ার বিল্ডিং এর ৩য় তলায় ঘটনাস্থল ভিকটিমের ভাড়া বাসায় তার স্বামী রবিউল হোসেন, শ্বশুর মো. লোকমান চৌধুরী, শাশুড়ি নূর নাহার বেগম (৫০) এবং ননদ রাজু আক্তার (২৫) প্রমুখ বাদী কর্তৃক যৌতুকের দাবি পূরণে অস্বীকৃতি জ্ঞাপন করায় একযোগে বাদীকে মারধর করে রক্তাক্ত করে। এ ঘটনায় আদালতে মামলা দায়ের করার পর গতকাল আসামিদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।
বাদী পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন মানবাধিকার আইনজীবীবৃন্দ যথাক্রমে এডভোকেট জিয়া হাবীব আহ্‌সান, এডভোকেট এইচ এম জসীম উদ্দিন, এডভোকেট হাসান আলী, এডভোকেট বদরুল হাসান প্রমুখ।

x