স্বাক্ষর জাল করে অর্থ আত্মসাৎ মামলায় ভাই কারাগারে

আজাদী প্রতিবেদন

বুধবার , ১১ জুলাই, ২০১৮ at ১২:৫২ অপরাহ্ণ
82

প্রতারণা ও জালিয়াতি মাধ্যমে মার্কেন্টাইল ব্যাংক থেকে ভাইয়ের স্বাক্ষর জাল করে ৭০ লাখ টাকা আত্মসাতের মামলায় মোহাম্মদ আবুল আবছার নামে অপর ভাইকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

গতকাল মঙ্গলবার চট্টগ্রাম ভারপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ মুন্সি আবদুল মজিদ এর আদালত শুনানি শেষে এ আদেশ দেন।

এ বিষয়ে দুদক পিপি অ্যাডভোকেট আবদুল হান্নান জানিয়েছেন, পরষ্পর যোগসাজশে জালজালিয়াতি করে ব্যাংক থেকে ৭০ লাখ টাকা আত্মসাতের ঘটনায় আদালতে একটি মামলা হয়। আদালত দুদককে তদন্ত করতে বলেন। দুদক তদন্ত করে জালজালিয়াতির প্রমাণ পেয়ে ব্যাংক ম্যানেজার ও অর্থগ্রহণকারী দুই আসামিকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট দেয়। আদালতে এসব তুলে ধরে দুই আসামির জামিনের বিরোধিতা করেছি। পরে আদালত উভয়পক্ষকে শুনে এক আসামিকে জামিন দেন। অপর আসামিকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

জানা যায়, পটিয়া থানার মির্জাবাড়ি এলাকার জানু মিয়ার ছেলে প্রবাসী মোহাম্মদ আবুল হাসানের স্বাক্ষর জাল ও প্রতারণার মাধ্যমে তার ভাই মোহাম্মদ আবুল আবছার ভুয়া দলিল তৈরি করে তার সম্পত্তি নামজারি দলিল তৈরি করেন। পরে সেই দলিল বন্ধক রেখে মার্কেন্টাইল ব্যাংকের পটিয়া শাখা থেকে ৭০ লাখ টাকা ঋণগ্রহণ করেন।

আদালত থেকে জানা গেছে, ২০১৪ সালের ২৭ নভেম্বর জালজালিয়াতি করে ৭০ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে মার্কেন্টাইল ব্যাংক পটিয়া শাখার ম্যানেজার এএম মনছুরুল হক ও মোহাম্মদ আবুল আবসার নামে এক ব্যক্তিকে আসামি করে আদালতে মামলা দায়ের করেন। শুনানি শেষে আদালত মামলাটি দুদককে তদন্ত করতে নির্দেশ দেন। মামলাটি তদন্ত করে দুদকের সহকারী পরিচালক রিয়াজ উদ্দিন এ দুই আসামিকে অভিযুক্ত ২০১৭ সালের ৫ অক্টোবর আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। এরপর চট্টগ্রাম জেলা ও দায়রা জজ আদালত চলতি বছরের ১৭ মে দুই আসামির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা ইস্যু করেছিলেন। এরপরই দুই আসামি গতকাল আদালতে এসে আত্মসমর্পন করলে তাদের পক্ষে নিয়োজিত আাইনজীবীরা বিচারকের কাছে জামিনের আবেদন জানান। এসময় জামিনের বিরোধীতা করে আদালতে বক্তব্য রাখেন দুদকের পিপি মোহাম্মদ আবদুল হান্নান। শেষ পর্যন্ত আদালতের বিচারক আসামি মোহাম্মদ আবুল আবসারকে জামিন না দিয়ে কারাগারে পাঠিয়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত দেন। এরপর পুলিশ তাকে কারাগারে নিয়ে যায় বলে জানিয়েছে আদালত পুলিশের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা।

x