সেন্সরে মৃত ব্যক্তির আঙ্গুল খুলল কি সেই ফোন?

বুধবার , ২৫ এপ্রিল, ২০১৮ at ৫:২৩ পূর্বাহ্ণ
112

মৃত ব্যক্তির আঙ্গুলের ছাপ দিয়ে স্মার্টফোন আনলক করার চেষ্টায় সমালোচনার মুখে পড়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা পুলিশ। চলতি বছরের ২৩ মার্চ লার্গোর এক পেট্রোল স্টেশন থেকে পালানোর সময় পুলিশের গুলিতে নিহত হন ৩০ বছর বয়সী লাইনাস ফিলিপ। তার মৃতদেহ হস্তান্তরের পর সিলভ্যান অ্যাবি ফিউনেরাল হোমএ নেওয়া হয়। মৃত ব্যক্তির পরিবারের পক্ষ থেকে বলা হয়, এসময় দুইজন পুলিশ কর্মকর্তা ফিলিপের আঙ্গুল দিয়ে তার স্মার্টফোন আনলক করার চেষ্টা করেনখবর বিডিনিউজের।

ফিলিপের বান্ধবী বলেন, ‘এটি জঘন্য কাজ।’ তিনি বিস্ময় প্রকাশ করে বলেন ‘তাকে রেফ্রিজারেটর থেকে বের করার এবং একজন মৃত ব্যক্তির আঙ্গুল দিয়ে তার ফোন আনলক করার অনুমতি ছিল তাদের!’ লার্গো পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়, ফিলিপ তার গাড়িকে প্রাণঘাতী অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করেছেন। তিনি যখন পালানোর চেষ্টা করছিলেন একজন পুলিশ কর্মকর্তা তাকে ঠেকানোর জন্য তার গাড়িতে উঠতে যাচ্ছিলেন। ওই পুলিশ কর্মকর্তা গাড়ির দরজায় আটকে গেলে ফিলিপ তাকে ওই অবস্থাতেই টেনেহিঁচড়ে নিয়ে যান।

ফোর্বসএর দেওয়া তথ্যমতে, ওভারডোজের শিকার ব্যক্তিদের আইফোন আনলক করতে পুলিশ প্রায়ই ফোন মালিকদের আঙ্গুলের ছাপ ব্যবহার করে থাকে। এর মাধ্যমে তারা মাদক ব্যবসায়ীর তথ্য বের করার চেষ্টা করে এবং প্রায়ই সফল হয়। পুলিশের এই কৌশল অবশ্য সব সময় কাজ করেও না। ২০১৬ সালের নভেম্বরে ওহাইও স্টেট ইউনিভার্সিটিতে একদল পথচারীর ওপর দিয়ে গাড়ি চালিয়ে দেয় আব্দুল রাজাক আলী আরতান। এরপর মানুষকে ছুরি দিয়ে আঘাত করতে শুরু করেন তিনি। পুলিশ তাকে গুলি করার আগে ১১ জন ব্যক্তিকে আহত করেন তিনি। ওই ব্যক্তির সঙ্গে একটি আনলকড আইফোন পাওয়া যায়। কিন্তু তার মৃত্যর কয়েক ঘন্টা পর আইফোনটি হ্মিপ মোডে গিয়ে লকড হয়ে যায়। পুলিশ যখন এটি পুনরায় খোলার চেষ্টা করে এটি পাসকোড চাচ্ছিল। পুলিশ ওই মৃত ব্যক্তির আঙ্গুল দিয়ে আইফোন আনলকের চেষ্টা করে। কিন্তু তখন তা কাজে দেয়নি।

x