(সুন্দর)

মণিদীপা দাশ

বুধবার , ৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ at ৬:০৫ পূর্বাহ্ণ
73

আমরা সাধারণত মনে করি, বস্তু বা বিষয় সুন্দর হলেই আমাদের দৃষ্টি তথা মনকে আকৃষ্ট করে, কিন্তু ব্যাপারটা আসলে অন্যরকম। আমাদের সৌন্দর্যবোধ বা চেতনাই কোনো বিষয় বা বস্তুকে আমাদের কাছে সুন্দর করে তোলে – অথবা আমাদের হৃদয় যাতে আকৃষ্ট হয় তাকেই আমরা সুন্দর দেখি। ‘গোলাপের দিকে চেয়ে বললুম – ‘ সুন্দর ‘ সুন্দর হল সে। ‘ (রবি ঠাকুর) এই ‘সুন্দর’ কথাটির অর্থ কী? সুন্দর কথাটিকে আমরা বিভিন্নভাবে ব্যবহার করে থাকি। যখন বলি – মেয়েটি কি সুন্দর! তখন দৃশ্য সৌন্দর্যকেই আমরা বুঝে থাকি। যখন বলি -ওর গানের গলা কি সুন্দর! তখন কণ্ঠস্বরের ধ্বনিমাধুর্যই আমাদের আকৃষ্ট করে। আবার যখন সমুদ্রের উত্তাল তরঙ্গমালা অথবা তুষারবৃত উত্তুঙ্গ পর্বতশ্রেণী কিংবা কালবৈশাখীর ভীষণ ভয়ালরূপ দেখে মুগ্ধ হই তখনও আমাদের মুখ থেকে বেরিয়ে আসে ঐ একি কথা – কী সুন্দর! এই সুন্দরের অনুভূতি কিন্তু আমাদের চেতনায়। তখন পরিপূর্ণ এক অখন্ড রসানুভূতি জাগিয়ে তোলে আমাদের মনে। ‘ সুন্দর’ কথাটি সবক্ষেত্রেই একি অর্থে ব্যবহার হয় না। যেমন – সুন্দর ব্যবহার, এই ব্যবহারের সৌন্দর্য মূলত বুদ্ধিগ্রাহ্য, বিচারের ব্যাপার কখনোই তা দৃশ্য নয়। নিপুণ কঠিন এবং সার্থকভাবে সম্পন্ন করা কাজকেও আমরা সুন্দর বলে থাকি। মানুষের ব্যবহার বা কাজ দিয়ে তার মনের সৌন্দর্য অনুমান করা হয়। ‘ সুন্দর মন ‘ দেখার জিনিস নয়। যে সমস্ত গুণ থাকলে মনকে সুন্দর বলা হয় তার কয়েকটি হলো সৌকুমার্য, পরিচ্ছন্নতা, সুরুচি, সুশৃঙ্খলা, যা সবার মাঝে থাকা খুব প্রয়োজন ‘ ক্ষমা ‘।
এক্ষেত্রে সুন্দর অনেক সময় নান্দনিক না হয়ে নৈতিক হয়। সুন্দর এবং ভালো প্রায় সমার্থক হয়ে যাচ্ছে। আসল কথা এই ঐক্য এই পরিপূর্ণতা অথবা সামাঞ্জস্যকে উপলব্ধি করাই হলো সৌন্দর্যের উপলব্ধি। প্রকৃতির রূপের হাটে সৌন্দর্যের পশরা। মানুষের সাধ্য কি তার থেকে মুখ ফিরিয়ে থাকে! প্রকৃতির সৌন্দর্য আমাদের হৃদয়ে প্রেম জাগিয়ে তোলে, প্রেমে আবার সৌন্দর্য জাগিয়ে তোলে। প্রেম যেখানে ভাব, সৌন্দর্য সেখানে তাহার অক্ষর, প্রেম যেখানে হৃদয়, প্রেম সেখানে গান এবং প্রাণ।

x