সুখেন্দু চক্রবর্তী : সনিষ্ঠ শিল্পীসত্তা

রবিবার , ৭ জুলাই, ২০১৯ at ১০:২৮ পূর্বাহ্ণ
21

বিশ শতকের মধ্যভাগে বাংলা সংগীত জগতের একজন খ্যাতিমান শিল্পী ছিলেন সুখেন্দু চক্রবর্তী। সংগীত রচনা, সুর যোজনা, পরিচালনা ও কণ্ঠশিল্পী হিসেবে দীর্ঘ চল্লিশ দশক তিনি সংগীতের সাথে যুক্ত ছিলেন। আজ তাঁর ৩৯তম মৃত্যুবার্ষিকী।
সুখেন্দু চক্রবর্তীর জন্ম ১৯২৮ সালে কুমিল্লার ঠাকুরপাড়ায়। সংগীতে হাতেখড়ি কুমিল্লার খ্যাতিমান সংগীতজ্ঞ সমরেন্দ্র পালের কাছে। পরবর্তী সময়ে ‘রাম বাবু’ নামে খ্যাতিমান অগ্রজ ভাই সত্য চক্রবর্তীর কাছে তালিম নেন। ওস্তাদ মোহাম্মদ হোসেন খসরুর কাছেও তিনি সংগীত শিক্ষা নিয়েছেন। রচনা করেছেন প্রচুর গণ সংগীত ও আধুনিক গান। সব ধরনের গান গাইলেও মুখ্যত তিনি ছিলেন গণ সংগীত ও আধুনিক গানের শিল্পী। স্বকণ্ঠে গাওয়া অধিকাংশ গানের সুরারোপ তিনি নিজেই করতেন। দীর্ঘদিন কাজ করেছেন রেডিও বাংলাদেশের বাণিজ্যিক কার্যক্রমের সংগীত প্রযোজক হিসেবে। বেশ কিছু ছায়াছবিতে তিনি সংগীত পরিচালনা করেছেন।
তবলা, এসরাজ ও সেতার বাজাতেন চমৎকার। তাঁর কণ্ঠ ছিল যেমন দৃপ্ত, তেমনি মাধুর্যময়। সামাজিক দায়বদ্ধ এই শিল্পী ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলন সহ বিভিন্ন গণ আন্দোলন, বায়ান্নর ভাষা আন্দোলন এবং একাত্তরের মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে প্রত্যক্ষ অংশ নিয়েছিলেন। ‘খোকা চক্রবর্তী’ নামে সুপরিচিত ছিলেন তিনি। ১৯৮০ সালের ৭ জুলাই সুখেন্দু চক্রবর্তী প্রয়াত হন।

x