সীতাকুণ্ডে একরাতে তিন ঘরে ডাকাতি

রাত জেগে পাহারায়ও করা যাচ্ছে না প্রতিরোধ

সীতাকুণ্ড প্রতিনিধি

সোমবার , ৪ মার্চ, ২০১৯ at ১১:০৭ পূর্বাহ্ণ
51

ডাকাত প্রতিরোধে ডিফেন্স টিম গঠন করেও সীতাকুণ্ড উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ডাকাতির ঘটনা বন্ধ করতে পারছে না পুলিশ। গত শনিবার এক রাতেই সীতাকুণ্ড উপজেলার সৈয়দপুর এবং বারৈয়াঢালা এলাকায় তিনটি বসতঘরে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তবে ডাকাতির সাথে জড়িত কাউকে আটক করতে পারেনি। এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগীরা জানান, গত শনিবার গভীর রাতে ডাকাতদল প্রথমে সৈয়দপুর ইউনিয়নের আবুল কালাম আজাদের বাড়িতে হানা দেয়। সেখানে দরজা ভেঙে পরিবারের সদস্যদের জিন্মি করে স্বর্ণালংকার ও মোবাইল সেট ছিনিয়ে নেয়। এক পর্যায়ে ডাকাতরা পুলিশ আসার খবর পেয়ে সেখান থেকে পালিয়ে এক মাইল দূরে একই ইউনিয়নের তুলাতুলি এলাকায় বশরের ঘরে হানা দেয়। সেখানে ডাকাত আসার খবরে প্রতিবেশী বাসিন্দারা চিৎকার করে ধাওয়া করলে ডাকাতরা পালিয়ে যায়। একইরাতে পার্শ্ববর্তী বারৈয়ারঢালা ইউনিয়নের পূর্ব লালানগর এলাকায় তারা ইসহাক সওদাগরের বাড়িতে দরজা ভেঙ্গে প্রবেশ করে। পরিবারের সদস্যদের জিম্মি করে সেখান থেকে ১৫ ভরি স্বর্ণ ও নগদ টাকা নিয়ে যায় তারা। সৈয়দপুর ইউপি চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম নিজামী জানান, তাঁর এলাকায় একই সময় দুটি বাড়িতে ডাকাতরা হানা দেয়। তবে বেশি কিছু লুট করতে পারেনি তারা। সীতাকুণ্ড থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দেলওয়ার হোসেন বলেন, পুলিশ এখন থেকে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ডাকাত প্রতিরোধে কঠোর ব্যবস্থা নেবে। এদিকে সীতাকুণ্ডে ডাকাতি প্রতিরোধে পৌরসভাসহ তিন ইউনিয়নে গঠন করা করেছে ডিফেন্স (আত্মরক্ষা) টিম। এর সমন্বয়কের ভূমিকা পালন করেছেন সীতাকুণ্ড থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) জাব্বারুল ইসলাম। তিনি বলেন, ডাকাতি প্রতিরোধে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সম্পৃক্ততায় প্রতি ইউনিয়নে ১০০ জনের ডিফেন্স টিম গঠন করা হয়েছে। সীতাকুণ্ড পৌরসভার নয়টি ওয়ার্ড, উপজেলার বাড়বকুণ্ড, মুরাদপুর ও বারৈয়ারঢালা ইউনিয়নের প্রতিটি ওয়ার্ডে এই কমিটি গঠন করা হয়। এই টিম গঠন করার জন্য ইতিমধ্যে চারজন থানার উপ-পরির্দশককে (এসআই) দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তারা ইউনিয়নগুলোতে সমন্বয়কের দায়িত্ব পালন করবে। বারৈয়ারঢালা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রেহান উদ্দিন রেহান বলেন, গত এক মাসে এ ইউনিয়নে ৪ বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ইউনিয়নের প্রতিটি ওয়ার্ডে মিটিং করে রাতে পালাক্রমে ডাকাত প্রতিরোধে পাহারা দেওয়া হচ্ছে। তারপরও ডাকাতি প্রতিরোধ করা যাচ্ছে না।

x