সিমাস হিনি : আইরিশ কবিতার কিংবদন্তি

বৃহস্পতিবার , ৩০ আগস্ট, ২০১৮ at ৫:৪৭ পূর্বাহ্ণ
80

সিমাস হিনি আইরিশ কবি, নাট্যকার, অনুবাদক ও শিক্ষক। বিশেষ করে কবিতার জগতে তিনি ছিলেন অদ্বিতীয়। সিমাস হিনিকে তাই আইরিশ কবিতার অন্যতম প্রধান পুরুষ বলা হয়ে থাকে। ‘উদার বৈশ্বিকতার আলোকপ্রাপ্ত কবি’ হিসেবে তিনি অনেকের কাছে আদৃত। আইরিশ জনজীবনকে তিনি তুলে ধরেছেন বিশ্বের কাছে। আজ হিনির পঞ্চম মৃত্যুবার্ষিকী।

সিমাস হিনির জন্ম ১৯৩৯ সালের ১৩ এপ্রিল উত্তর আয়ারল্যান্ডের লন্ডনডেরি কাউন্টিতে। কর্মজীবনে শিক্ষকতা করেছেন ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়া, বেলফাস্ট বিশ্ববিদ্যালয় ও অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে। কবিতার প্রতি তাঁর অনুরাগ কবি টেড হিউজের কবিতা পড়ে। হিনির কবিতায় বিশেষভাবে প্রতিফলিত হয়েছে মাতৃভূমির প্রতি গভীর মমতা। সমকালীন সমাজ বাস্তবতা, সমাজ সংলগ্ন মানুষ, নিজস্ব সংস্কৃতি, রাজনীতি, জাতিবিদ্বেষের প্রতি তীব্র ঘৃণা, উপনিবেশ বিরোধিতা এইসব প্রসঙ্গও এসেছে মানবিক মূল্যবোধে এবং সমাজ ও রাজনীতি সচেতনতায়। তাই স্থানিক হলেও তিনি সর্বজনীন কবি হিসেবে পরিচিতি পেয়েছেন। সিমাস হিনির উল্লেখযোগ্য গ্রন্থ: ‘ডেথ অফ এ ন্যাচারালিস্ট’, ‘ডোর ইন টু দ্য ডার্ক’, ‘উইন্টারিং আউট’, ‘স্টেশন আইল্যান্ড’; ট্রয় যুদ্ধ অবলম্বনে নাটক ‘দ্য কিউর অ্যাট ট্রয়’, সফোক্লিসের আন্তিগোনে অবলম্বনে ‘বেরিআল অ্যাট থিবস’, অভিদএর মেটামরফোসিস অনুবাদ করেছেন ‘দ্য মিডনাইট ভারডিক্ট’ নামে। গদ্য রচনায়ও তিনি ছিলেন অনবদ্য। ‘প্রিঅকুপেশন’, ‘দ্য গভর্নমেন্ট অব দ্য টাং’, ‘ফাইন্ডার্স কিপার্স’ ইত্যাদি হিনির উল্লেখযোগ্য গদ্য।

ডাবলিনের ট্রিনিটি কলেজের অনারারি ফেলো ছিলেন সিমাস হিনি। ২০১২ সালে এই বিশ্ববিদ্যালয়ে আইরিশ লেখকদের জন্য সিমাস হিনি প্রফেসরশিপ প্রবর্তন করা হয়। হিনির মতে, এটি তাঁর জীবনের অন্যতম সম্মান। ২০১৩ সালের ৩০ আগস্ট প্রয়াত হন সিমাস হিনি।

x