সাড়ে তিন মাস পর বিএনপির সমাবেশ

দেখা যায়নি সিনিয়র নেতাদের, উপস্থিতিও কম

আজাদী প্রতিবেদন

রবিবার , ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ at ৫:০৩ পূর্বাহ্ণ
475

দীর্ঘ সাড়ে তিন মাস পর নাসিমন ভবনস্থ দলীয় কার্যালয় চত্বরে সমাবেশ করেছে চট্টগ্রামের বিএনপি নেতা-কর্মীরা। দলটির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে গতকাল বিকেলে মহানগর ও উত্তর জেলা বিএনপি’র উদ্যোগে পৃথক দুটি সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। তবে এসব সমাবেশগুলোতে নগর বিএনপির সিনিয়র নেতাদের দেখা যায় নি। একইসঙ্গে উপস্থিতির হারও ছিল অতীতের সমাবেশগুলোর তুলনায় কম। এর আগে ২০১৮ সালের ২৭ অক্টোবর দলীয় কার্যালয়ের সামনে নূর আহমেদ সড়কে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ব্যানারে বিএনপি’র সমাবেশ হয়েছিল। সমাবেশটিতে ঐক্যফ্রন্ট নেতা
ড. কামাল হোসেন ও বিএনপি’র মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ স্থায়ী কমিটির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। এরপর দীর্ঘ তিন মাস ১৮ দিন দলীয় কার্যালয় চত্বরে কোন সমাবেশ হয় নি। যদিও এরমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন।
এদিকে গতকাল অনুষ্ঠিত নগর বিএনপি’র সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন কেন্দ্রীয় বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক হারুন উর রশিদ। তিনি অভিযোগ করে বলেন, ‘সরকার বেগম জিয়াকে ভয় পায় বলেই জেলে বন্দি করে রেখেছে। দেশের হারানো গণতন্ত্রকে ফিরে পেতে হলে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে। বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য ঐক্যবদ্ধভাবে ঘুরে দাঁড়াতে হবে।’
সভাপতির বক্তব্যে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি আলহাজ্ব এম এ আজিজ বলেন, ‘বিএনপি নেতাকর্মীরা হতাশ নয়। মনক্ষুণ্ন ও বিক্ষুব্ধ। দেশের জনগণ একদিন এই মনক্ষুণ্নের জবাব রাজনৈতিকভাবেই দেবে।’ তিনি বলেন, ‘বিগত নির্বাচনে আওয়ামীলীগ জনগণের কাছে নৈতিকভাবে পরাজিত হয়েছে। তারা বাংলাদেশকে বিরোধীদলবিহীন একটি দেশে পরিণত করেছে। এ কারণে রাজনীতিতে একটা বিরাট শূন্যতার সৃষ্টি হয়েছে। সেজন্য অতিদ্রুত দল পুনর্গঠনের কর্মসূচি সফল করতে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।’
চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক আনোয়ার হোসেন লিপুর পরিচালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিএনপি নেতা শাহেদ বঙ, জি. এম আইয়ুব খান, এড. সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, ডা. এস এম সরওয়ার আলম, হামিদ হোসেন, আবদুল নবী প্রিন্স, মো. হানিফ সওদাগর, আবদুল্লাহ আল হারুন, মো. ইদ্রিস আলী, আবু মুসা, এইচ এম রাশেদ খান, বেলায়েত হোসেন বুলু, জেলী চৌধুরী, আফতাবুর রহমান শাহিন, আবদুল কাদের জসিম, মনজুরুল কাদের মিন্টু, শাহেদা বেগম, এরশাদ হোসেন, সেলিম উদ্দিন রাসেল, শাহনেওয়াজ চৌধুরী মিনু, মো. জাহাঙ্গির আলম, ফয়েজুল ইসলাম, হাজী মো. ইলিয়াছ, ফারুক আহমদ, হুমায়ুন কবীর সোহেল, এস এম আবুল কালাম আবু, মনজুর মিয়া, মো. হাসান, হাজী মো. জাহেদ, মনোয়ার হোসেন মানিক, রাসেল নিজাম, গুলজার হোসেন, নজরুল ইসলাম চৌধুরী মাসুম, মো. রিয়াদ, মো. মিল্টন, সাইফুল আলম, সৌরভ প্রিয় পাল, সৈয়দ সাফওয়ান আলী, কামরুল ইসলাম কুতুবী, এন মোহাম্মদ রিমন, যুব নেতা মাহবুব খালেদ, মো. শফি প্রমুখ।
চট্টগ্রাম উত্তর জেলা :
চট্টগ্রাম উত্তর জেলা বিএনপি’র উদ্যোগে আয়োজিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন উত্তর জেলা বিএনপি’র সিনিয়র সদস্য ও সীতাকুন্ড উপজেলা বিএনপি নেতা তোফাজ্জল হোসেন। সমাবেশ থেকে বক্তারা অবিলম্বে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য উদ্যোগ নেয়ার দাবি জানান।
চট্টগ্রাম উত্তর জেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম সম্পাদক মো: আবু তাহেরের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক জসিম উদ্দিন চৌধুরী, সরোয়ার উদ্দিন সেলিম, ইউসুফ নিজামী, মোবারক হোসেন কাঞ্চন চেয়ারম্যান, জাকির হোসেন, মোসলেম উদ্দিন, ছিদ্দিক আহমেদ, এস এম ফারুক, মোস্তফা আলম মাসুম, গিয়াস উদ্দিন, হারুনুর রশিদ, আনিস আক্তার টিটু, আলী নেওয়াজ মামুন, ইরফানুল হাসান রকি, নাজিম উদ্দিন খান, মনিরুল ইসলাম, মুজাহিদুল ইসলাম রুবেল, নূর উদ্দিন, আরিফুল ইসলাম প্রমুখ।
চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা :
দক্ষিণ জেলা বিএনপি’র সভাপতি আলহাজ্ব জাফরুল ইসলাম চৌধুরী অভিযোগ করে বলেছেন, ‘সরকার বেগম খালেদা জিয়াকে জেলে নিয়ে গণতন্ত্রকে বাঙবন্দী করেছে। বেগম জিয়া সরকারের রোষানলের শিকার। তিনি ৭৪ বছর বয়স্ক অসুস্থ দেশনেত্রী বেগম জিয়াকে নি:শর্ত মুক্তি দেয়ার দাবি জানান। ’
দলীয় চেয়ারপার্সনের মুুক্তির দাবিতে দক্ষিণ জেলা বিএনপি’র উদ্যোগে আয়োজিত সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। গতকাল বিকেলে দক্ষিণ জেলা বিএনপি কার্যালয়ে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশের আগে বেগম জিয়ার সুস্থতা কামনায় খতমে কোরান, মিলাদ মাহফিলেরও আয়োজন করে সংগঠনটি।
সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- বিএনপি নেতা আলহাজ্ব মোহাম্মদ ইদ্রিস মিয়া, আলহাজ্ব মোশারফ হোসেন, চেয়ারম্যান মোহাম্মদ লোকমান, আলহাজ্ব মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী, শওকত ওসমান, মুহাম্মদ শহীদুল আলম শহীদ, নুরুচ্ছফা, সেলিনা হক, জান্নাতুল নাঈম চৌধুরী রিকু, ফাতেমা আক্তার মুন্নি, দক্ষিণ জেলা যুবদলের সহ-সাধারণ সম্পাদক নুরুল করিম চৌধুরী জিতু, যুবদল নেতা মোহাম্মদ ইসমাইল, মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন, মোহাম্মদ ইব্রাহীম, দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক কমিটির সাবেক সদস্য ওবায়দুল হক রিকু, এম হান্নান রহিম, আনোয়ার হোসেন, আবদুস সবুর, এহসানুল হক, এম হাশেম চৌধুরী, তৌহিদুল ইসলাম, মো: লোকমান উদ্দিন, আহমদ নুর প্রমুখ।

- Advertistment -