সারওয়াৎ নাজনীন শিবলী (সুন্দরের মাধুর্যে মঙ্গলের স্পর্শে)

রবিবার , ১৪ এপ্রিল, ২০১৯ at ৬:৫৫ পূর্বাহ্ণ
76

একটা কল্যাণকামী মন মানুষের সবচেয়ে বড় সম্পদ । পরের হিতচিন্তা করতে আত্মীক ঐশ্বর্যের প্রয়োজন হয়। স্বার্থপরতার এ যুগে সুযোগ সন্ধানীদেরই জয়জয়কার। ভালোমানুষী কে দুর্বলতা ভেবে, ভালোবাসা কে অপারগতা ভেবে ফায়দা লোটার মানুষের ভিড়েও কিছু মানুষ নিঃস্বার্থ নিঃশর্ত ভাবে অন্যের কল্যাণ কামনায় কার্পণ্য করে না। তাদের উদ্দেশ্য- পরোপকার, লাভ পরমানন্দ। একটা ছোট বাক্যের একটুখানি প্রশংসা অন্যকে অনুপ্রাণিত করার জন্য যথেষ্ট। সব প্রশংসা বাক্যই কিন্তু তোষামোদ হয় না, কিন্তু আমরা অনেকেই অযোগ্যের তোষামোদ করি আর যোগ্য লোকেদের অনেক সময় এড়িয়ে চলি, অবস্থা এমন হয় যে তার জন্য দুটো বাক্য খরচা করতে মানব দেহের সবচে শক্তিশালী পেশীটিও তখন ভীষণ নাজুক আর লাজুক হয়ে পড়ে ,বড় অসার ঠেকে রসনাটিকে। তারপরও নিঃস্বার্থ নির্লোভ মানুষেরা আছে বলেই পৃথিবীটা আজো এতো সুন্দর। ঠকবাজদের শান্তি দুদিনের, নির্মল চিত্তের পরোপকারী মানুষের স্বস্তি চিরদিনের। সুন্দরের মাধুর্যে মঙ্গলের স্পর্শে সকল কালিমা, অকল্যাণ দূর হয়ে পৃথিবীটা হোক অনুপ্রেরণাদায়ী মঙ্গলাকাঙ্ক্ষী চিত্তবান মানুষের। নতুন বছরে এই প্রত্যাশা। শুভ নববর্ষ ।

x