সাত বছরেও থামেনি স্বজনদের আহাজারি

মীরসরাই ট্রাজেডি

মীরসরাই প্রতিনিধি

বৃহস্পতিবার , ১২ জুলাই, ২০১৮ at ৬:৪১ পূর্বাহ্ণ
99

স্মৃতিচারণ, পুষ্পস্তবক অর্পণসহ নানা আয়োজনে পালিত হলো মীরসরাই ট্রাজেডির সপ্তম বছর। ৭ বছরেও থামেনি স্বজনদের আহাজারি। গতকাল সকাল ১০টায় নিহতদের স্মরণে নির্মিত স্মৃতিস্তম্ভ ‘আবেগ’এ পুস্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানান গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন। এসময় দুর্ঘটনায় নিহত ৪৫ পরিবারের অনেক সদস্য সহ স্থানীয় প্রশাসন, রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। এসময় অনেক আত্মীয় স্বজনকে দেখা যায় চোখ মুছতে। কেউ কেউ কান্নায় ভেঙে পড়েন।

পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে আবুতোবার উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সাবেক চেয়ারম্যান আলাউদ্দিনের সভাপতিত্বে ও গোলাম সরোয়ারের সঞ্চালনায় স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে গণপূর্তমন্ত্রী বলেন, আমাদের দেশে চালকদের অবহেলার এমন দৃষ্টান্ত খুবই উদ্বেগজনক। মন্ত্রিসভার বৈঠকে চালকদের অবহেলায় দুর্ঘটনার শান্তি কঠোর করার প্রস্তাব করেছি। পরবর্তী সভায় এই বিষয়ে আরো কিছু প্রস্তাবনা নিয়ে আলোচনা করবো। তিনি তাঁর পুত্র মাহবুবুর রহমান রুহেলের বক্তব্য ও কিছু প্রস্তাবনার বিষয়ে সমর্থন করে বলেন, আগামী মীরসরাই ট্রাজেডি দিবসে সকল স্কুল কলেজ সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে সড়ক দুর্ঘটনা রোধে সচেতনা বৃদ্ধিমূলকসহ নিরাপদ সড়ক বিষয়ে আলোচনার উদ্যোগ নেয়া হবে। এই দিবসটিকে তিনি সচেতনতা বৃদ্ধিমূলক দিবস হিসেবে পালন করার প্রস্তাব রাখেন।

শোক সভায় আরো বক্তব্য রাখেন, মন্ত্রী পুত্র চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান রুহেল, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক আলহাজ্ব জসিম উদ্দিন, ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কায়সার খসরু, জেলা আওয়ামী লীগ সদস্য নুরুল হুদা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ আতাউর রহমান, উপজেলা প্যানেল চেয়ারম্যান ইয়াসমিন আক্তার কাকলী, সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ফেরদৌস হোসেন আরিফ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী, মায়ানী ইউপি চেয়ারম্যান মাস্টার কবির নিজামী, প্রফেসর কামাল উদ্দিন চৌধুরী কলেজের অধ্যক্ষ নুরুল আবছার, আবুতোরাব মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা শফিকুল ইসলাম নিজামী, আবুতোবার উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক জাফর সাদেক, বর্তমান প্রধান শিক্ষক মর্জিনা আক্তার প্রমুখ। ট্রাজেডি দিবসে কর্মসূচির মধ্যে সকাল ৯টায় শোক র‌্যালি, আলোচনা শেষে জেয়াফত, মসজিদে মিলাদ ও মোনাজাত, মন্দিরে পূজা ও প্রার্থনার আয়োজন করা হয়।

x