সাকিবকে ফিরিয়ে আনতে চায় বিসিবি

মঙ্গলবার , ১৬ এপ্রিল, ২০১৯ at ১০:২১ পূর্বাহ্ণ
26

বাংলাদেশ দলের বিশ্বকাপ প্রস্তুতি ক্যাম্পে যোগ দিতে সাকিব আল হাসানকে চিঠি দিচ্ছে বিসিবি। তবে আইপিএল থেকে সাকিব ফিরবেন কি-না বা প্রস্তুতি কিভাবে নেবেন, তার সঙ্গে কথা বলার পর ঠিক করবে বোর্ড। সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের হয়ে আইপিএল খেলতে সাকিব এখন ভারতে। তবে চলতি আসরে দলটির প্রথম ম্যাচের পর থেকে দর্শক হয়েই আছেন বাংলাদেশের অলরাউন্ডার। ম্যাচ খেলার সুযোগ পাননি আর। ম্যাচ খেলতে পারছেন না বলেই সাকিবের প্রস্তুতি নিয়ে আছে খানিকটা দুর্ভাবনা। আঙুলের ইনজুরি কাটিয়ে ফেরার পর কেবল হায়দ্রাবাদের হয়ে ম্যাচটিই খেলেছেন বাংলাদেশের ওয়ানডে সহ-অধিনায়ক। বাংলাদেশের বিশ্বকাপ স্কোয়াড ঘোষণা করা হতে পারে দু-একদিনের মধ্যেই। আগামী সোমবার থেকে শুরু হবে প্রস্তুতি ক্যাম্প।
গত সোমবার সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান জানালেন, ক্যাম্পের শুরু থেকেই সাকিবকে চায় বোর্ড। তিনি বলেন আমাদের ক্যাম্প শুরু হচ্ছে। আমি বলেছি সাকিবকে চিঠি পাঠাতে। এখনই চিঠিটা দিয়ে দিতে। তার পর দেখা যাক সে কী সাড়া দেয়। আমাদের যেহেতু ক্যাম্প শুরু হচ্ছে, সে আমাদের ক্যাম্পে আসবে কী আসবে না, এটা নিয়ে কথা হয়নি। আমার মনে হয়েছে, ক্যাম্প শুরু হচ্ছে, ওকে চিঠি দেওয়া দরকার যেন সে যোগ দিতে পারে।
এরই মধ্যে বিশ্বকাপ সামনে রেখে ইতোমধ্যেই ১৫ সদস্যের চূড়ান্ত দল ঘোষণা করেছে নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া ও ভারত। আজ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডও লাল সবুজের ১৫ সদস্যের চূড়ান্ত দল ঘোষণা করবে। আর ২২ মে থেকে শুরু হবে মাশরাফিদের অনুশীলন ক্যাম্প। কিন্তু সেখানে প্রাণভোমরা সাকিব আল হাসানের উপস্থিতি নিয়ে শঙ্কা থাকছে। কেননা আইপিএলে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের হয়ে মাত্র ১ ম্যাচ খেলে সাইডবেঞ্চে বসে যাওয়া সাকিব সেই সময়ের মধ্যে দেশে ফিরবেন কী না এই মর্মে বিসিবির কাছে কোনো তথ্যই নেই। শোনা যাচ্ছে বিশ্বকাপের প্রস্তুতি তিনি ভারতে বসেই নেবেন। সেজন্য কোচ মোহাম্মদ সালাহউদ্দিনকে ভারতে ডেকে পাঠিয়েছেন। তার অধীনে অনুশীলন সেরে নাকি ত্রিদেশীয় সিরিজে অংশ নিতে ভারত থেকেই আয়ারল্যান্ডের বিমান ধরবেন। ঠিক এমতাবস্থায় সাকিব ইস্যুতে মুখ খুললেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।
পাপন বলেন সন্দেহ নেই বিশ্বকাপের মতো আসরে অভিজ্ঞরা সবসময়ই দলে বড় ভূমিকা রাখেন। সামনে থেকে দলের হাল ধরেন। কিন্তু শঙ্কার ব্যাপার হলো, বাংলাদেশ দলের কোনো সিনিয়র প্লেয়ারেরই সামপ্রতিক ফর্ম ভালো যাচ্ছে না। যার প্রমাণ ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের চলতি আসর। পাশাপাশি ইনজুরির মিছিল তো আছেই। বিসিবিকে ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে মুশফিক, তামিম প্রিমিয়ার লিগ খেলছেন না। অভিজ্ঞদের মধ্যে মাশরাফি ১১ ম্যাচে পেয়েছেন ১০ উইকেট। কাঁধের ইনজুরিতে মাঠে নামা হয়নি মাহমুদউল্লাহ রিয়াদেরও। ফর্মহীনতায় সাকিব আল হাসান আছেন হায়দ্রাবাদের সাইডবেঞ্চে। লিগে ইমরুল কায়েসের ব্যাটে ধার নেই।
বোলারদের মধ্যে রুবেল হোসেন, মেহেদি হাসান মিরাজ ও মোস্তাফিজুর রহমানের ইনজুরি আছে। তাসকিন ও সাইফউদ্দিন মাত্রই ইনজুরি থেকে উঠলেন। কাজেই অভিজ্ঞ কাউকে নিয়েই স্বস্তিতে নেই বিসিবি। তাই মে মাসের প্রথম সপ্তাহে আয়ারল্যান্ডে হতে যাওয়া ত্রিদেশীয় সিরিজ দেখে তবেই বিশ্বকাপের চূড়ান্ত ১৫ সদস্যের স্কোয়াডের কথা জানালেন পাপন। তিনি বলেন অভিজ্ঞতা একটা বড় ভূমিকা রাখেই। কিন্তু ফর্মও বড় বিষয়। পজিশনও খুব গুরুত্বপূর্ণ। দেখা যায় এক পজিশনে অনেক অপশন আছে। আবার আরেক জায়গায় অনেক অপশন নেই। পেস বোলিংয়ে খুব আহামরি বক্তব্য নেই। আমরা অপেক্ষা করছি ত্রিদেশীয় সিরিজের। ওখান থেকেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেব।

x