সব কেন্দ্রেই ইভিএমে ভোট, প্রস্তুতি সম্পন্ন

সাতকানিয়া উপজেলা নির্বাচন কাল

শুকলাল দাশ

রবিবার , ১৩ অক্টোবর, ২০১৯ at ৩:১৬ পূর্বাহ্ণ
147

চট্টগ্রামে প্রথমবারের মতো সাতকানিয়া উপজেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে পুরোটাই ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম)। আগামীকালের নির্বাচনে উপজেলার ১৭টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভায় মোট ১২৫টি কেন্দ্রে ৭০১টি বুথে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এদিকে গতকাল রাত ১২টায় শেষ হয়েছে প্রার্থীদের সকল ধরনের প্রচার-প্রচারণা। নির্বাচনকে অবাধ-শান্তিপূর্ণ ও গ্রহণযোগ্য করার জন্য নির্বাচনী মাঠে র‌্যাব, বিজিবি, পুলিশ, আনসারসহ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের ভ্রাম্যমাণ আদালত থাকবে বলে রিটার্নিং কর্মকর্তার অফিস থেকে জানা গেছে।
চট্টগ্রাম জেলা নির্বাচন অফিস থেকে জানা গেছে, সাতকানিয়া উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৩ জন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২ জন ও ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী এমএ মোতালেব সিআইপি ( নৌকা), বিএনপির প্রার্থী আবদুল গফফার চৌধুরী (ধানের শীষ) ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুল মোনায়েম মুন্না চৌধুরী (মোটরসাইকেল)।
ভাইস চেয়ারম্যান পদের প্রার্থীরা হলেন- সালাহ উদ্দিন হাসান চৌধুরী (বই), মোহাম্মদ জসীম উদ্দিন (চশমা), মোহাম্মদ শাহজাহান (তালা), বশির উদ্দিন আহমদ (ধানের শীষ), আছিফুর রহমান সিকদার (মাইক) ও ওমর ফারুক লিটন (নলকূপ)। মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন-আনজুমান আরা বেগম (কলসি), ও তারান্নুম আয়েশা (প্রজাপতি)। আগামীকালের নির্বাচনের প্রস্তুতি সম্পর্কে চট্টগ্রাম জেলার সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার মো. মুনীর হোসাইন খান আজাদীকে জানান, সাতকানিয়া উপজেলা জুড়ে মোট ১২৫টি ভোট কেন্দ্রের জন্য ১৪০২টি ইভিএমসহ নির্বাচনী সামগ্রী পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে। ভোট গ্রহণের জন্য ১২৫জন প্রিসাইডিং অফিসার, ৭০১জন সহকারী প্রিসাইডিং ও ১৪০২জন পোলিং অফিসারকে প্রশিক্ষণ দিয়ে প্রস্তুুত রাখা হয়েছে। রোববার কেন্দ্রে কেন্দ্রে ভোটার সামগ্রী নিয়ে যাবেন তারা।
জেলা নির্বাচন অফিস থেকে জানা গেছে, সাতকানিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মোট ভোটার সংখ্যা ২ লাখ ৮৩ হাজার ৩৮০ জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৫০ হাজার ২৮৬ জন ও মহিলা ভোটার ১ লাখ ৩৩ হাজার ৯৪ জন। স্থানীয় ভোটারদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, চেয়ারম্যান পদে ৩ জন প্রার্থী থাকলেও মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে নৌকা ও ধানের শীষের প্রার্থীর মধ্যে। আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী এম এ মোতালেব ও বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী আবদুল গফ্‌ফার চৌধুরী। শুরু থেকেই আওয়ামীলীগের প্রার্থী এম.এ মোতালেব জমজমাট প্রচারণা চালিয়েছেন। এম এ মোতলেবের নির্বাচন পরিচালনা কমিটি চেয়ারম্যান দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মফিজুর রহমান জানান, উপজেলা জুড়ে আওয়ামীলীগের প্রার্থীর পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। সুতরাং আমাদের বিজয় কেউ ঠেকিয়ে রাখতে পারবে না। এদিকে শুরু থেকেই শেষ পর্যন্ত জমজমাট প্রচারণা চালিয়েছেন বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী আবদুল গফ্‌ফার চৌধুরীও। নির্বাচনী মাঠে থেমে নেই তার কর্মী সমর্থকরাও। উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে ধানের শীষে হাওয়া লেগেছে বলে জানান তার কর্মী সমর্থকরা।

x