(সন্দেহ থেকে আস্থাহীনতা)

কানিজ ফাতেমা

রবিবার , ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ at ৫:১২ পূর্বাহ্ণ
126

: ‘বন্ধুত্ব দাম্পত্য ভালবাসা সম্পর্ক যাই হোক পাসওয়ার্ড কিন্তু একটাই বিশ্বাস।’ আমাদের এই বিশ্বাসের ঘরে সন্দেহের ঘুন পোকা যখন বাসা বাঁধে তখন নীরবে সাজানো স্বপ্নের বিশ্বাসের ঘরটিকে তাসের ঘরের মত ধূলিস্যাৎ করে দেয় তার জন্য একসময় ধূসর মরুভূমিতে দাঁড়িয়ে হাহাকার করে আত্মচিৎকার করা ছাড়া কিছুই করার থাকে না। আবেগের বশবর্তী হয়ে বিবেককে পাশ কাটিয়ে সন্দেহকে প্রাধান্য দিয়ে যখন অন্যকে ছোট করতে যাই মনের অজান্তে নিজেই ছোট হয়ে যাই। আমরা মানুষ সামাজিক জীব চলার পথে প্রয়োজনে অপ্রয়োজনে কতজনের সাথেই সম্পর্ক সৃষ্টি হয় কখনও সময়ের প্রয়োজনে তা আবার বিলীন হয়ে যায় তার অর্থ এই নয় এই সম্পর্কগুলো আমার দীর্ঘদিনের চেনা সম্পর্কে ফাটল ধরাবে। আজ শুধুমাত্র সন্দেহের বশবর্তী চোখের দেখায় আবেগতাড়িত হয়ে আমরা নিজেদের বিশ্বাসে আঘাত করি তবে জীবন হয়ত চলবে তবে তা প্রাণবন্ত হয়ে নয় বড়জোর লাইফসাপোর্টে চলবে। আমরা সন্দেহের ঘুনপোকায় নিজের বিশ্বাসকে নিঃশেষ হতে দিয়ে নিজেদের মাঝে কাদা ছুঁড়লে একে অন্যকে ছোট করলে এতে করে নিজেদের কোন প্রাপ্তিতো হবেই না বরং নিজেরা অন্যদের হাসির খোরাক হব, আমাদের সুসময়ে আড়ালে সমালোচিত হব। আমরা কারও বিনয়কে যদি তার দুর্বলতা ভেবে তাকে ছোট বা অসহায় ভাবি তবে দিনশেষে নিজের অসহায়ত্ব প্রকাশ পাবে। তাই বিশ্বাসের সূক্ষ্মসুতাটিকে না ছিঁড়ে শক্ত হাতে নিজেদের বন্ধনকে আরও মজবুত করি। “যে হারাবার সে হারাবেই তারে রাখিব কোন মায়াডোরে যে রহিবে মোর মায়াজালে শত ব্যথায় রাখিবে মোরে জড়ায়ে”। তাই বলব নিজের স্বপ্ন স্বাদ চাওয়া-পাওয়া,প্রাপ্তি-অপ্রাপ্তির উপর বিশ্বাস রাখুন অহেতুক সন্দেহ নামক কীটের দংশনে নিজে কষ্ট পাবেন না অন্যকে কষ্ট দিবেন না। কারণ আমার আপনার কারণে কেউ কষ্ট পেলে আমি আপনি ভুলে যাব কিন্তু যে কষ্ট পাবে সে হয়ত ভুলবে না। সে যতটা কষ্ট পাবে বিধাতা সেই কষ্টগুলোই হয়ত একদিন আবার আমাদের ফিরিয়ে দিবে তাই আসুন সব কিছুর উপরে উঠে নিজের বিশ্বাসের ভিতকে শক্তিশালী করে নিজের বিশ্বাসের মর্যাদা রাখি অন্যের বিশ্বাসকে অকৃত্রিম শ্রদ্বা জানাই।
বি. দ্র. -আমরা সবাই ভাল থাকি সন্দেহকে দূরে ঠেলে নিজের বিশ্বাসের ওপর আস্থা রাখি।

x