সংবাদপত্র কম্পিউটার্স অ্যাসোসিয়েশনের ফ্যামিলি নাইটে সঙ্গীতানুষ্ঠান

এস প্রকাশ পাল

বৃহস্পতিবার , ১৬ মে, ২০১৯ at ৪:১৫ পূর্বাহ্ণ
14

নাচ-গান ও কথায় জমজমাট ফ্যামিলি নাইট পালন করেছে চট্টগ্রাম সংবাদপত্র কম্পিউটার্স অ্যাসোসিয়েশন। গত ১ মে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের বঙ্গবন্ধু হলে সন্ধ্যা ৭টায় শুরু হয় জমকালো এই অনুষ্ঠানের। সংগঠনের সদস্য ইউনুছ মেহেদীর সঞ্চালনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের শুরুতে সঙ্গীত নিয়ে মঞ্চে আসেন কণ্ঠশিল্পী তন্দ্রা সিংহ মৌ। তার সুরেলা কণ্ঠে- রঙ্গিলা বাঁশীতে কে ডাকে…, আমি কি তোমার মতো এত ভালোবাসতে পারি…, মধু মালতি ডাকে আয়…সহ বেশ কিছু জনপ্রিয় আধুনিক গান গেয়ে মঞ্চ মাতিয়ে তোলেন। এরপর মঞ্চে আসেন উদীয়মান শিল্পী অভিজিৎ দাশ। তিনি পরিবেশন করেন- ‘ও যার আপন খবর আপনার হয় না…, তাকধুম তাকধুম বাজে বাজেরে ঢোল-ঢাক…। এছাড়াও চট্টগ্রামের আঞ্চলিক গান ‘বাঁশখালী মইশখালী তোরা কন কন যাবি…সহ আরো বেশ কয়েকটি মনোমুগ্ধকর গান পরিবেশন করে জমিয়ে দেন। এরপরই মঞ্চে গান গেয়ে বাড়তি আনন্দ যোগ করেন সংগঠনের সদস্য কনক বসাক ও উত্তম মহাজন। এছাড়াও সংগঠনের সদস্যদের সন্তানেরা নাচ, গান ও কবিতা আবৃত্তি করে। গানের ফাঁকে নৃত্য পরিবেশন করেন খুদে শিল্পী পায়েল মল্লিক।
সর্বশেষ মঞ্চে আসেন জননন্দিত বাউলশিল্পী অনুপম দেবনাথ পাভেল। তার পরিবেশনায় ছিলো- ‘বিন্দু বালা গো…, নারী হয় লজ্জাতে লাল, ফাল্গুনে হয় শিমুল বন…, বকুল ফুল বকুল ফুল…, মিলন হবে কতো দিনে…, আমার মন নাচায় এ ঘর বান্দিল কিশোরী… ও আমি তো ভালা না ভালা লইয়া থাইকো…সহ আরো বেশ কিছু জনপ্রিয় গান। তাকে ছন্দ নৃত্যে মনোমুগ্ধকর ঢোল বাজিয়ে সহায়তা করেন শিবু দাশ। পাভেলের বাউল গানের সাথে ঢোল বাদনের ছন্দে সংগঠনের সদস্যরা নেচে-গেয়ে আনন্দ-উচ্ছ্বাসে মেতে উঠেন। অনুষ্ঠানে যন্ত্রশিল্পী অঞ্জন বিশ্বাসের পরিচালনায় বাদ্যযন্ত্রে শিল্পীদের সহযোগিতা করেন : কি-বোর্ডে বনন বিশ্বাস, অক্টোপ্যাডে অয়ন বিশ্বাস, তবলায়- প্রদীপ নন্দী, বাঁশিতে- বেলাল, বেজ গিটারে- রাজীব ও সাউন্ডে ছিলেন ইসমাইল।
অনুষ্ঠানের ১ম পর্বের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল এমপি। বক্তব্যে তিনি বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার একটি মিডিয়া বান্ধব সরকার। সংবাদপত্রে যারা কাজ করেন তাঁদের কাজের স্বীকৃতি ও জীবিকার কল্যাণে অত্যন্ত আন্তরিক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
সংবাদপত্রে আইটি বিভাগের কর্মরতদের হাতের ছোঁয়া ব্যতিরেকে আধুনিক সংবাদপত্র কল্পনা করা যায় না। আমি সংবাদপত্র কম্পিউটার্স অ্যাসোসিয়েশন বিষয়ে নতুনভাবে জানার চেষ্টা করছি। সুতরাং এই মুহূর্তে বিশেষ কিছু না বলে তাদের মানোন্নয়নে আমার পক্ষ থেকে সব ধরনের সহযোগিতা থাকবে।
অনুষ্ঠানের উদ্বোধক ছিলেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। তিনি বলেন, সংবাদপত্র সমাজ পরিবর্তনের হাতিয়ার। সংবাদকর্মীরাই পারেন সমাজকে দুর্নীতি, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ মুক্ত করতে। একটি সংবাদপত্র প্রকাশে কম্পিউটার বিভাগে কর্মরতদের অনন্য ভূমিকা রয়েছে। এ শিল্পে আইটি বিভাগের কর্মরতদের অবদান অনস্বীকার্য।
অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি হারুন অর রশিদের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক কায়েস চৌধুরীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিএফইউজে’র সহ-সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের (সিইউজে) সভাপতি নাজিমুদ্দিন শ্যামল, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ, বিএফইউজে’র নির্বাহী সদস্য আজহার মাহমুদ, চসিক ওয়ার্ড কাউন্সিলর শৈবাল দাশ সুমন, কলামিস্ট ও রাজনীতিবিদ অধ্যাপক ড. মাসুম চৌধুরী, ফুলকলি ফুড প্রোডাক্টস লিমিটেডের জিএম এম.এ সবুর, চিকিৎসক এমএ মালেক।
অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সিইউজে’র যুগ্ম সম্পাদক সবুর শুভ, সাংবাদিক নিরুপম দাশগুপ্ত, মোহাম্মদ আলী পাশা, চৌধুরী আহছান খুররম, বিশ্বজিত বণিক, হাটহাজারী উপজেলা সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান সাজেদা বেগম, ব্যবসায়ী নুরুল আবছার, সংগঠনের সাবেক সভাপতি রকিবুল হক, মো. রফিকুল ইসলাম, অ্যাসোসিয়েশন নেতা এস প্রকাশ পাল, সজল হোড়, সাগর বড়ুয়া, রতন বিশ্বাস, সঞ্জয় পাল প্রমুখ। শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন ওবায়েত রশীদ, গীতাপাঠ করেন সজীব হোড় তূর্য, ত্রিপিটক পাঠ করেন অনন্ত বড়ুয়া। শেষে র‌্যাফেল ড্র অনুষ্ঠিত হয়।

x