শেষ বলের রোমাঞ্চে জিতল বাংলাদেশের মেয়েরা

ক্রীড়া প্রতিবেদক

শুক্রবার , ২৯ জুন, ২০১৮ at ৬:৪৫ পূর্বাহ্ণ
130

ক্ষণে ক্ষণে বদলালো ম্যাচের রঙ, কখনো আয়ারল্যান্ড এগিয়ে তো কখনো সহজ জয় দেখছিল বাংলাদেশ দল। শেষ পর্যন্ত ম্যাচের নিষ্পত্তি হল একদম শেষ বলে গিয়ে। ঠান্ডা মাথার ফিনিশিংয়ে শেষ বলে বাংলাদেশকে জয় এনে দিয়েছেন ফাহিমা খাতুন। ৪ উইকেটের এই জয় তিন ম্যাচ সিরিজে ১০ তে এগিয়ে গেল বাংলাদেশ দল। টসে হেরে বাংলাদেশের আমন্ত্রণে আগে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৩৪ রান করে স্বাগতিক আয়ারল্যান্ড। আইরিশদের ৮ উইকেটের মধ্যে পাঁচটিই নেন দেশসেরা পেসার জাহানারা আলম। এই রান তাড়া করতে একদম শেষ বল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়েছে বাংলাদেশকে। নিগার সুলতানা ও ফাহিমা খাতুনের ব্যাটে ৪ উইকেটের জয়ে সিরিজ শুরু করে বাংলাদেশ। স্বাগতিকদের করা ১৩৪ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো করতে পারেনি বাংলাদেশ। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই সাজঘরে ফিরে যান শামীমা সুলতানা। দ্বিতীয় উইকেটে প্রাথমিক ধাক্কা সামাল দেন আয়েশা রহমান ও ফারজানা হক। দুজনে মিলে গড়েন ৩৪ রানের জুটি। ২৩ বলে ২৪ রান করেন আয়েশা। তৃতীয় উইকেটে দলকে এগিয়ে নিতে থাকেন ফারজানা ও নিগার সুলতানা। তবে ফারজানার ধীরগতির ব্যাটিং চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়ায় বাংলাদেশের জন্য। ইনিংসের ১৩তম ওভারে ২৫ বলে ১৩ রান করে সাজঘরে ফেরেন ফারজানা। বাংলাদেশের সংগ্রহ তখন ৩ উইকেটে ৬৮ রান। শেষের ৭ ওভারে টাইগ্রেসদের জয়ের জন্য দরকার ছিল ৬০ রান। জয়ের আশা বাঁচিয়ে রেখে ব্যাট করছিলেন নিগার সুলতানা। দারুণ শুরু করেও খুব বেশি কিছু করতে পারেননি রোমানা আহমেদ।

৬ বলে ৭ রান করে ফিরে যান তিনি। জয়ের জন্য বাংলাদেশের তখন প্রয়োজন ২৮ বলে ৪৭ রান। তখনই ম্যাচের দখল পুরোপুরি নিয়ে নেন অলরাউন্ডার ফাহিমা খাতুন। নিগার সুলতানাকে সাথে নিয়ে ১৪ বলে ২৭ রান যোগ করেন তিনি। দলের পক্ষে ৪৬ রানের ইনিংস খেলে আউট হন নিগার সুলতানা। তবে অপর প্রান্তে বাংলাদেশের জয়ের আশা বাঁচিয়ে রেখে খেলছিলেন ফাহিমা। শেষের ১২ বলে জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ১৮ রান। ১৯তম ওভারেই ১৪ রান নিয়ে সমীকরণ সহজ করে নেন ফাহিমা ও সানজিদা ইসলাম। শেষ ওভারে জয়ের জন্য বাকি ছিল মাত্র ৪ রান। তখনই দেখা দেয় চরম নাটকীয়তার। শেষ ওভারের প্রথম দুই বলে ২ রান নিয়ে সমীকরণ নিজেদের পক্ষেই রাখেন ফাহিমাসানজিদা। তৃতীয় বলে রান নিতে ব্যর্থ হন ফাহিমা। চতুর্থ বলেই ১ রান নিয়ে স্কোর সমান করেন তিনি। পঞ্চম বলে জয়সূচক রানটি নিতে গিয়ে রানআউট হয়ে সাজঘরে ফিরে যান সানজিদা। অনিশ্চয়তা দেখা দেয় বাংলাদেশের জয়ের ব্যাপারে। তবে পরম দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিয়ে শেষ বল থেকে প্রয়োজনমাফিক ১ রান নিয়ে দলের জয় নিশ্চিত করেন ফাহিমা। শেষ পর্যন্ত ৩ চারের মারে ১৮ বলে ২৬ রান করে অপরাজিত থাকেন তিনি। বাংলাদেশ পায় ৪ উইকেটের অসাধারণ জয়। এর আগে ইসোবেল জয়েসের ব্যাটে ভর করে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৩৪ রান করে স্বাগতিক আয়ারল্যান্ড। ৪১ বল থেকে ৪১ রান করেন তিনি। এছাড়া গ্যাবি লুইস ২৮ ও লরা ডেনালি করেন ২২ রান। বাংলাদেশের ইতিহাসের প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ৫ উইকেট নেয়ার কৃতিত্ব দেখান জাহানারা। ৪ ওভার বল করে ২৮ রান খরচায় ৫ উইকেট নেন তিনি। এছাড়া সালমা খাতুন ও খাদিজা তুল কুবরা নেন ১টি করে উইকেট। শুক্রবার সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ খেলবে দুই দল।

x