শারুদ নিজাম (হে প্রভু দয়াময়)

শুক্রবার , ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ at ৩:১১ পূর্বাহ্ণ
23

ভূমণ্ডলে যত পুরুষ আছে তাদের সু-পুরুষে পরিণত করুন, তা নাহলে তারা ঘরে বসেই লম্বা হাতের ব্যবহার করে, পুরুষালী কম থাকলে ইয়াবা, বাবা, ভিজা,শুকনা,ভায়াগ্রা সেবনে ব্যস্ত হয়ে পড়ছে। দাওয়াতই দিলনা,আবার বলে তুমি কেন আক্কেল করে যাওনি, তুমি যাওনি তাই কষ্ট পেয়েছি। বাবারে যে হারে এ্যাক্টিং বেড়েছে পথে প্রান্তরে আর সিনেমা দেখার ইচ্ছে জাগে না। রাতের কাম দিনে করে, দিনের কর্ম প্রকাশ্যে করে। সব্বাই কেমন যেন ডন সেজে বসে আছি। হে প্রকৃতিময় দাও ফিরিয়ে সে অরণ্য। যেখানে অন্তত একটা নিরাপদ আশ্রয়ে থাকা যায়।অন্যকে রক্তাক্ত না করে। যত নারী আছে তাদের রমণী ও সুন্দরী করে দিন। না হলে তারা একঘণ্টা অনুষ্ঠানের জন্য তিন ঘণ্টা মেকআপে নস্ট করে। মেকআপ ছাড়া আর তাদের রাস্তা ঘাটে বেরুবার পথ বন্ধ যাচ্ছে ক্রমাগত ভাবে। পথের সময়টুকু নেয়ে ঘষে মালিশে নষ্ট করে বাড়িতে, পরে হুড়াহুড়ি করে গাড়ি চালাতে বাধ্য করে নাহলে নির্ঘাত ট্রেন প্লেন মিস করে, শেষে ড্রাইভার বেচারা চাকরি হারায়। তারচেয়েও কঠিন বিষয় হলো কোনটা মা’ কোন জন খালা’ বোঝা বড় দায়। সব্বাইকে আজকাল একই বয়সী মনে হয়। আসল চেহারাই হাওয়া হয়ে থাকে। বেমালুম বেচারা বনে যায়।
রক্ষে করো হে করুণাময়। নারীতে-নারীতে দজ্জাল যুবতী তূর্ছার পরশ্রীকাতরতা, পুরুষে -পুরুষে আমিত্বের অহংবোধে রচিত হচ্ছে আবারো রক্তাক্ত কারবালা। নারী’ ছলনায় ঠকাচ্ছে পুরুষকে, আর পুরুষ’ বীরদর্পে গড়ছে ভ্রান্ত প্রেমের পৃথিবী। এতো প্রেম, এতো ছলনা রাখি কোথায়? হে রব, আমাদের কথা কি শুনছেন? ভবিষ্যতে যাদের পাঠাবার পরিকল্পনা আছে তাদেরকে আপনি নিজ তত্ত্বাবধানে পরিপূর্ণ করে দুনিয়াতে পাঠানোর আবেদন পেশ করছি। এই অচলাবস্থায় নতুনরা বড্ড বেমানান হয়ে থাকবে। দিশেহারা হয়ে তারা আরো বেশি খারাপ হবে বিশেষ করে ছয় কোণার বিডি’কে টানাটানিতে আরো কোণা বাড়াবে।

x