শামীমা শারমিন (ধর্ষণ প্রতিরোধে সোচ্চার হতে হবে সবাইকে)

শুক্রবার , ১২ জুলাই, ২০১৯ at ৭:৪৯ পূর্বাহ্ণ
53

: প্রতিবারই ধর্ষণের ঘটনাগুলো সামনে আসে আর তুমুল আলোচনায় গমগমে চারপাশ। শেষে যে যার মতো বিচারের রায় ঘোষণা করে ফেলে, কেউ কেউ অতি উৎসাহী হয়ে রায় কার্যকর করতে ও উদ্যত হয়। ক’দিনের উম্মাদনা তারপর সেই আগের মতো যে যার কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়ি। আবার নতুন কোন ঘটনার জন্য অপেক্ষা করি, আজ অন্য কেউ কাল হয়তো নিজেই ভুক্তভোগী । নির্লিপ্ত থেকে থেকে আমরাও কি একটা মূক বধির জাতিতে পরিণত হচ্ছি না? দিন দিন ঘটনাগুলো রোমহর্ষকতার বিগত দিনের অভিজ্ঞতা কে অতিক্রম করে যাচ্ছে। প্রতিক্ষণে অসভ্যতার দিকে আরো এক ধাপ নিমজ্জিত হচ্ছে যেন।
অথচ আমাদেরকে কিছুতেই ছোঁয় না যেন আর! কারও অবকাশ হয়না ভাবার কেন ঘটনা গুলো ঘটে আর কেনই বা দিন দিন এগুলো মাত্রা ছাড়িয়ে যাচ্ছে? সময় এসেছে গোড়ার দিকটা নিয়ে ভাবার। প্রযুক্তির সহজলভ্যতা আমাদেরকে যতটা আধুনিক করছে,উন্নতি এনে দিচ্ছে , এর অপব্যবহার ঠিক ততটাই ধ্বংস ঢেকে আনছে। সামাজিক অবক্ষয় রোধে এখনই কার্যকরী পদক্ষেপ না নিতে পারলে এই সমস্যা আরও কুৎসিত রূপ ধারণ করবে। নারী পুরুষ নির্বিশেষে সকলকেই সম্মিলিতভাবে প্রতিবাদে অংশ নিতে হবে, গণজোয়ার সৃষ্টি করতে হবে। বিচার ব্যবস্থা ত্বরান্বিত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা এবং দ্রুত শাস্তি কার্যকর এর বিধান চালু করতে হবে। সময় সাপেক্ষ নয় প্রয়োজন তাৎক্ষণিক পদক্ষেপ, আশু প্রয়োজন।

x