শাটলে আঙুল হারালেন বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী

চবি প্রতিনিধি

সোমবার , ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ at ৫:২৫ পূর্বাহ্ণ
439

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শহরগামী শাটল ট্রেনে এক ছাত্রীর পায়ের আঙুল কাটা পড়ার ঘটনা ঘটেছে। গতকাল রোববার দুপুর আড়াইটার ট্রেনের দরজায় বসে শহরে ফেরার পথে ষোলশহর স্টেশনে এমন দুর্ঘটনার কবলে পড়েন ঐ শিক্ষার্থী। তার নাম শারমিন আক্তার। তিনি সমাজতত্ত্ব বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, প্রায় সোয়া তিনটার দিকে ট্রেনটি স্টেশনে পৌঁছালে লাইনের পাশে প্লাটফর্মের নিচে রাখা ভারী সরঞ্জামের সঙ্গে আঘাত লেগে পায়ের আঙুল হারান ঐ ছাত্রী। পরে সহপাঠীদের সহযোগিতায় তাকে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে তিনি হাসপাতালের ২৪ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তার অবস্থা আশঙ্কামুক্ত বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।
জানা যায়, গতকাল রোববার দুপুর ১২টার দিকে বটতলী থেকে নাজিরহাট (২ নম্বর রুট) রুটে একটি তেলবাহী ট্রেন ষোলশহর স্টেশনের কাছাকাছি রেললাইন থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। ফলে ঐ রুটে ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। এতে বিকল্প হিসেবে ৩ নম্বর রুটে বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেন চলাচল করে।
এদিকে ৩ নম্বর রুটের পাশেই ষোলশহর স্টেশনের নতুন প্লাটফর্মের কাজ চলায় বেশকিছু ভারী সরঞ্জাম প্লাটফর্মের নিচে রাখা ছিলো। যার ফলে ট্রেনের দরজায় বসা একাধিক শিক্ষার্থীর পায়ে আঘাত লাগে। আঘাতে শারমিন আক্তারের পায়ের একাধিক আঙুল বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।
ষোলশহর স্টেশন মাস্টার তন্ময় চৌধুরী বলেন, ২ নম্বর রুট ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় ৩ নম্বর রুটে চলাচলের বিকল্প ছিলো না। ট্রেনের দরজায় বসার কারণে দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। ২ নম্বর রুটের যে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা রাতের মধ্যে সমাধান করার চেষ্টা করছি আমরা। আশাকরি আগামীকাল (আজ) থেকে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়ে যাবে।
জানতে চাইলে প্রক্টর (ভারপ্রাপ্ত) প্রণব মিত্র চৌধুরী বলেন, আমরা বিষয়টি জেনেছি। ডাক্তারের সঙ্গে কথা হয়েছে। তাকে দেখার জন্য আমরা হাসপাতালেও যাচ্ছি। বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আহত শিক্ষার্থীকে সর্বাত্মক সহযোগিতা দেয়া হবে।

x