শতভাগ প্রস্তুত হয়েও থমকে আছে মীরসরাই বিসিক শিল্প নগরী

আন্তঃমন্ত্রণালয়ের দীর্ঘসূত্রতা

মাহবুব পলাশ, মীরসরাই

শনিবার , ১১ আগস্ট, ২০১৮ at ৪:০০ পূর্বাহ্ণ
247

মীরসরাইয়ে বিসিক শিল্প নগরীর কাজ শেষ হয়েছে। উৎপাদনের জন্য প্রস্তুত দেশের ৭৫তম এই প্রকল্প। কিন্তু শিল্প মন্ত্রণালয় থেকে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে স্থানান্তরের কার্যক্রমে দীর্ঘসূত্রতায় আটকে আছে পুরো প্রকল্প।

ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন এখানে প্রকল্পের কাজ গ্রহণের পর থেকে নানা প্রতিবন্ধকতায় প্রকল্পটির বাস্তবায়ন অনিশ্চয়তায় পড়ে। কৃষিজমিতে শিল্প নগরীর জন্য জমি অধিগ্রহণে শুরুতে ঝামেলা সৃষ্টি হলেও তা কেটে যায়।

পরবর্তীতে মাটি ভরাটে ধীরগতির কারণে নির্দিষ্ট সময়ে শেষ হয়নি প্রকল্পটির কাজ। অবশেষে মাটি ভরাট, প্লট তৈরি, ড্রেনেজ নির্মাণ, সড়ক তৈরি, বিদ্যুৎ লাইনসহ আনুষঙ্গিক সব কাজ সম্পন্ন হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রকল্প কর্মকর্তা কৃষ্ণ আচার্য্য। প্রকল্পটিতে শিল্প কারখানা গড়ে উঠলে উপজেলায় প্রায় ৫ হাজার লোকের কর্মসংস্থান হবে বলে আশা করা হচ্ছে। জানা যায়, ২০০৯ সালের দিকে তৎকালীন সরকারের শিল্পমন্ত্রী দিলীপ বড়ুয়া এলাকায় কর্মসংস্থান ও শিল্প উদ্যোক্তাদের সুবিধার্থে মীরসরাই সদরে বিসিক শিল্প নগরী বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেন। পরে মীরসরাই পৌরসভার পূর্ব মঘাদিয়া মৌজায় তালবাড়িয়া রেলস্টেশন এলাকায় জায়গা নির্ধারণ করে ২০১০২০১১ অর্থবছরে প্রকল্পের জন্য জমি অধিগ্রহণ করা হয়। প্রকল্পের জন্য ১৫.৩২ একর জমির অধিগ্রহণ করে মাটি ভরাট কাজও শুরু হয়। প্রথম অবস্থায় প্রকল্পটি বাস্তবায়নের জন্য ২৪ কোটি ৯৫ লাখ টাকা ব্যয় ধরা হয়। পরে তা বাড়িয়ে ২৯ কোটি ৯৫ লাখ টাকা করা হয়। কিছুদিন থমকে থাকার পর ২০১৬ সালে ৩০ জুনের মধ্যে প্রকল্পের মেয়াদ বাড়ানো হয়। কিন্তু নির্দিষ্ট মেয়াদের মধ্যে অবকাঠামো উন্নয়ন শুরু করলেও প্রকল্পটির বাস্তবায়ন সম্ভব হয়নি। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে ৮৮টি শিল্প প্লট তৈরি করে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প উদ্যোক্তাদের মধ্যে বরাদ্দ দেওয়ার কথা রয়েছে। বিসিক এলাকায় সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, প্রকল্পে প্রবেশের মুখে ঢাকাচট্টগ্রাম মহাসড়কের সম্মুখভাগে একটি ও প্রকল্পের উত্তর পাশে স্টেশন সড়কে একটি গেট করা হয়েছে। প্রকল্পের ভেতরে সড়ক কার্পেটিং ও ড্রেনেজ কাজ শেষ হয়েছে। তৈরি করা হয়েছে প্লটের সীমানা। প্রকল্প এলাকায় তৈরি করা হয়েছে প্রশাসনিক ভবন। শিল্প কারখানায় বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য বিদ্যুতের লাইনও স্থাপন শেষ।

সাবেক শিল্পমন্ত্রী দিলীপ বড়ুৃয়া বলেন, এলাকার মানুষের কর্মসংস্থান, উৎপাদিত পণ্য বাজারজাত, রপ্তানি করে বৈদেশিক মুদ্রা আয় ও যোগাযোগ ব্যবস্থার কথা চিন্তা করে মীরসরাইয়ের তালবাড়িয়া এলাকায় বিসিক শিল্প নগরী তৈরি করার উদ্যোগ নেওয়া হয়। কিন্তু বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতার কারণে এটি সময়মতো বাস্তবায়ন করা যায়নি। দেরিতে হলেও এটি বাস্তবায়ন হচ্ছে দেখে আমি খুশি। এতে মীরসরাইয়ের মানুষের উপকার হবে।

মীরসরাইয়ের বিসিক প্রকল্পের প্রকল্প কর্মকর্তা কৃষ্ণ আচার্য্য বলেন, প্লট বরাদ্দ নিয়ে এখনো অফিসিয়ালি কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি বলে আমরা থেমে আছি। তবে শিল্প নগরীটি শিল্প মন্ত্রণালয় থেকে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে হস্তান্তরের ব্যাপারে আলোচনা চলছে।

x