শওকত সুজনের ছড়াগ্রন্থ : ইতল বিতল চিতল

বিপুল বড়ুয়া

শুক্রবার , ২২ জুন, ২০১৮ at ৮:০৫ পূর্বাহ্ণ
22

ছড়া শিশু মন মানসকে দারুণভাবে আন্দোলিত করে। আনন্দ দেয় সব বয়সীদের। ছড়াগ্রন্থের অন্যতম মজাদার অনুষঙ্গ ছড়ার ছবি অলংকরণ। মজাদার ছবিছড়ার গ্রন্থ তাই সহজেই পাঠককে আকর্ষণ করেবিশেষত ছোটোরা তেমনি ছড়া ছবির বই পেলেই পড়তে হুমড়ি খেয়ে পড়ে।

ছড়াকার শওকত আলী সুজনের তেমনি একটি মজাদার ছড়াগ্রন্থ ‘ইতল বিতল চিতল’। শওকত আলী সুজন একজন নিবিষ্ট ছড়াশিল্পী। দীর্ঘদিন ধরে নিরবচ্ছিন্নভাবে লিখে চলেছেন শওকত আলী সুজন। দেশের বিভিন্ন পত্রপত্রিকা, সাময়িকী, লিটলম্যাগে তার লেখা প্রকাশ হয়ে আসছে। প্রকাশঅহমিকার ধারে কাছেও না থেকে মজার মজার ছড়া লিখে বেশ সুখ্যাতি অর্জন করেছেন প্রচারবিমুখ লেখক শওকত আলী সুজন। ইতোমধ্যে তার ‘নিঝুম রাতে চাঁদের সাথে’ ও ‘বৃষ্টি ভেজা দুপুরে’ দুটি চমৎকার ছড়াগ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে এবং বই দুটি যথেষ্ট পাঠকপ্রিয়তাও পেয়েছে।

ইতল বিতল চিতল’ ছড়াকার শওকত আলী সুজনের সম্প্রতি প্রকাশিত তেমনি একটি সুখপাঠ্য ছড়ার গ্রন্থ। এই ছড়াগ্রন্থে নানা আঙ্গিকস্বাদের বিশটি ছড়া রয়েছে। ছড়াগুলোর কয়েকটি শিরোনাম শখ করে আর লক করে, পা আশিতে ফুঁ বাঁশিতে, জে কে খান শেখ এ খান, টেম্পুর দিনকাল, লিকলিকে লোকটা, জ্বি জ্বি হিঃ হিঃ, ঘোড়ার ডিম, ইতল বিতল চিতল ইত্যাদি।

কুশলী ছড়াকার শওকত আলী সুজন ছোট্ট অবয়বে তার ছড়াগুলোকে প্রকাশ করেছেন। যা একজন ভালো লেখকের সৃষ্টিকর্মের সাক্ষ্য দেয়। প্রায় প্রতিটি ছড়াই তিনি যত্ন করে কম কথাতেই বৃত্তবন্দি করেছেন। ছোট ছোট বিষয় বক্তব্য, মজাদার ক্যানভাস, চেনা জানা কাছের মানুষ, হাস্যকৌতুক, এমনি নানা বিচিত্রবৈচিত্র্যময় প্রসঙ্গ নিয়ে মজাদার ছড়া লিখেছেন তার এ ছড়াগ্রন্থে। তার দু’একটি ছড়া পাঠে দেখা মেলে ছড়ার নির্মিতিতে তার মুনশীয়ানার ছাপ। যেমন-‘লোকটা নাকি গদ্য লিখে/পদ্য লিখে শখ করে/খানাপিনা খেয়ে থাকে/ডের উইন্ডো লক করে।’ (শখ করে আর লক করে), ‘চলায় নকল বলায় নকল/নকল যে সব খানেতে/টাকায় নকল আঁকায় নকল/নকল যে আর গানেতে…’/(নকল)। ‘খানিক দেখি লঞ্চে তাকে/খানিক দেখি বাসে/খোকাখুকি দেখলে তাকে খিলখিলিয়ে হাসে…’/(ভাই), ‘এদেশবাসীর হাসি কম/শীতকালেও কাশি কম/ঘরের খাবার বাসী কম/ক্ষতির ভয়ে চাষী কম…’/(কম), শওকত আলী সুজনের এই ছড়াগ্রন্থের প্রায় প্রতিটি ছড়ায় এ ধরনের চমক দেওয়া অন্ত্যমিলের দেখা মেলে। সহজ সরল ভাষায় ছোটখাটো বিষয় নিয়ে বেশ মজাদার চিত্র অংকন করেছেন লেখক। যাতে ছড়াগুলো হয়ে ওঠেছে দারুণ উপভোগ্য। পাঠেও বেশ মজা পাওয়া যায়। তাঁর ছড়ার আর একটি বিশেষ দিক বলা যায় তিনি ভারী কোনো বিষয়বস্তু নিয়ে ছড়ালেখায় ব্যাপৃত হননি। আশপাশের মজাদার চালচিত্রকে নিয়ে তিনি ছড়ালেখায় সব সময় সচেষ্ট থেকেছেন। পাঠককে নির্মল আনন্দ দেওয়ার জন্য প্রয়াস দেখিয়েছেন এবং বলা যায় এ বিষয়টা মাথায় রেখে দীর্ঘদিন ছড়া লিখে চলেছেনছড়াকার শওকত আলী সুজন এবং তাঁর সাম্প্রতিক ছড়াগ্রন্থ ‘ইতল বিতল চিতল’ ছড়াগ্রন্থে তার যথার্থতা রয়েছে। তার খুব সাক্ষ্য রয়েছে এ ছড়াগ্রন্থে।

এই ছড়াগ্রন্থের একটি আকর্ষণীয় দিক গ্রন্থের প্রচ্ছদ এবং অলংকরণ। ছড়াগ্রন্থের চমৎকার প্রচ্ছদ করেছেন যশস্বী শিল্পী উত্তম সেন। অলংকরণ করেছেন ছড়াগুলোর নবীন শিল্পী মিরাজুল আলম। বিশেষত শিশুকিশোরদের হাস্যকৌতুকের ছোঁয়াদেওয়ার মতো জম্পেশ ছবি এঁকেছেন শিল্পী পাতায় পাতায়যা বেশ চোখে পড়ে, উপভোগ্যও।

শৈলী প্রকাশনের চমৎকার প্রকাশনা এ ছড়াগ্রন্থ। বাঁধাই মুদ্রণ সুদৃশ্য। চব্বিশ পৃষ্ঠার এ ছড়াগ্রন্থের মূল্য একশত পঞ্চাশ টাকা। ছড়াকার শওকত আলী সুজনের হাসিখুশি চেনাজানা ঘরানার বিষয় বৈচিত্র্যের ঝলমলে এ ছড়াগ্রন্থ ‘ইতল বিতল চিতল’ শিশুকিশোরদেরসমঝদার ছড়া পাঠকদের মন ভরিয়ে দেবেআনন্দ দেবে। শওকত আলী সুজন আরো চমক দেওয়া ছড়া লিখে ছড়ার অঙ্গন মাতাবেন আশাকরি।

x