রোহিঙ্গা বিপর্যয়ে ১৬ কোটি মানুষ এগিয়ে আসা উচিত

বুধবার , ২ জানুয়ারি, ২০১৯ at ৪:০৯ পূর্বাহ্ণ
41

রোহিঙ্গা মানবজাতি, এরাইতো মানুষ। মানুষ, মানুষকে ধ্বংস করছে। মায়ানমার রোহিঙ্গাকে বধ বৌদ্ধরা ভ্রুং নারী নির্যাতন, শিশু নির্যাতন থেকে শুরু করে যে হারে গণ ধর্ষণ চালিয়েছে সেনা প্রধান ও অং সাং সুচীকে আন্তর্জাতিক আদালতে ফাঁসী দেওয়া উচিত। শুধু ফাঁসী দিলে হবে না। মগ গুলোকে ধরে ধরে হাত- পা কেটে কেটে পাথর ছুঁড়ে মারা উচিত। বাংলাদেশে ১৯৭১ সালে পাকিস্তানিরা নারীদেরকে যে হারে গণধর্ষণ চালিয়ে ছিল এবং শিশু নির্যাতনতো করেনি। বরং উপর ওয়ালা থেকে গজবও এসে গিয়েছিল। ঠিক তেমনি সেদিন আর দূরে নয়, বার্মা মায়ানমারের উপর গজব অতি সন্নিকটে এই দুঃখের দিনে রোহিঙ্গাকে ১৬ কোটি মানুষ যদি ৫ টাকা করে দেয় তাহলে তারা দাড়াতে পারবে। তারা তাদের হারানো রাজ্য ফিরে পাবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জনমত তৈরি করে বিশ্বের দরবারে তাদের দুঃখের কাহিনী তুলে ধরতে হবে। যুদ্ধ কেউ চায় না, সকলেই শান্তি চায়, শান্তির মধ্যে দিয়ে রোহিঙ্গাকে ফেরত পাঠাতে হবে এবং গণতন্ত্র ফিরে আসতে হবে। গণতন্ত্র আসলে বার্মা মায়ানমারে রোহিঙ্গাদের উপর শান্তির দূত নেমে আসবে। এত অত্যাচার, এত নির্যাতন, পৃথিবীর কেউ সহ্য করবে না। বরং তাদেরকে সকলে ধিক্কার জানাবে। পরিশেষে বলি, আবারো বলি, মানবতা রোহিঙ্গাদের পাশে দাড়ান।
রাজীব হোড় (রাজু), যুধিষ্ঠির মহাজন বাড়ি, দক্ষিণ কাট্টলী, চট্টগ্রাম।

x