রাবার শিল্পের টেকসই উন্নয়নে গুরুত্ব

রাবার বোর্ডের সভা

বুধবার , ১২ জুন, ২০১৯ at ৬:২৯ পূর্বাহ্ণ
37

বাংলাদেশ রাবার বোর্ড সম্মেলন কক্ষে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ও বোর্ডের চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত দায়িত্ব) এ এম মনসুর উল আলমের সভাপতিত্বে বাংলাদেশ রাবার বোর্ডের বোর্ড সভা গত ১০ জুন অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় বোর্ডের সদস্য- বাংলাদেশের ৮ বিভাগের বিভাগীয় কমিশনার অফিসের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব), পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়, ভূমি মন্ত্রণালয় এবং অর্থ মন্ত্রণালয়ের উপসচিবগণ বন অধিদপ্তর চট্টগ্রাম অঞ্চলের বন সংরক্ষক, বনশিল্প উন্নয়ন কর্পোরেশনের পরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন), বন গবেষণা ইন্সটিটিউটের পরিচালক, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড, রাঙামাটি পার্বত্য জেলার সদস্য (বাস্তবায়ন), বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা, রাবার বাগান মালিক সমিতি, রাবার শিল্প সমিতি এবং চা সংসদের সভাপতি ও প্রতিনিধিবৃন্দ এবং রাবার বিশেষজ্ঞ উপস্থিত ছিলেন।
সভার শুরুতে বোর্ড সভার সভাপতি ও বোর্ডের চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত দায়িত্ব) এ এম মনসুর উল আলম বলেন, বাংলাদেশ রাবার বোর্ডের কার্যক্রম ২০১৩ সালে অস্থায়ীভাবে শুরু হলেও বাংলাদেশ রাবার বোর্ডের নিজস্ব জনবল না থাকায় বোর্ডের পূর্ণাঙ্গ ও স্থায়ী কার্যক্রম শুরু হয় দীর্ঘ ছয় বছর পর গত মার্চে সচিব পদে পদায়নের মাধ্যমে। স্থায়ী কার্যক্রম শুরুর পর এটিই প্রথম বোর্ড সভা হওয়ায় সভার শুরুতে বোর্ডের সদস্যকে বাংলাদেশ রাবার বোর্ডের পক্ষ হতে শুভেচ্ছা জানানো হয়। রাবার বোর্ডের সকল সদস্য রাবার বোর্ডের স্থায়ী কার্যক্রম শুরু হওয়ায় এবং পদ সৃজন ও অন্যান্য প্রশাসনিক কার্যক্রম সম্পাদনসহ বোর্ডের সকল কার্যক্রমে নতুনভাবে গতির সঞ্চার হওয়ায় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়সহ সরকারের সংশ্লিষ্ট সকল মন্ত্রণালয় ও কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান। সভাপতির অনুমতিক্রমে বাংলাদেশ রাবার বোর্ডের সচিব ড. নাজনীন কাউসার চৌধুরী সভার আলোচ্যসূচি অনুযায়ী সভা পরিচালনা করেন। সভায় রাবার চাষের বর্তমান অবস্থা, রাবার চাষের সম্প্রসারণ, উৎপাদিত রাবার বিপণন, রাবার চাষের সাথে সম্পৃক্ত সংশ্লিষ্ট মালিক/ শ্রমিকদের প্রশিক্ষণ, উন্নত জাতের বাড ও ক্লোন সংগ্রহ/ বিদেশ হতে আমদানি/ উদ্ভাবন ইত্যাদি বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। সভায় বাংলাদেশ রাবার বোর্ডের সচিব ড. নাজনীন কাউসার চৌধুরী একটি পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে থাইল্যান্ডের ঐধঃ ণধর-এ অংংড়পরধঃরড়হ ড়ভ ঘধঃঁৎধষ জঁননবৎ চৎড়ফঁপরহম ঈড়ঁহঃৎরবং (অঘজচঈ) আয়োজিত গত ২৮-৩০ মে অনুষ্ঠিত ঞড়ধিৎফং ঝঁঢ়ঢ়ষু-ঈযধরহ ঊভভরপরবহপু্থ শীর্ষক সভা ও ওয়ার্কশপের বিভিন্ন বিষয়ের ওপর আলোকপাত করেন। অঘজচঈ’র সদস্য দেশসমূহ যারা রাবার চাষ ব্যবস্থাপনা, রাবার প্রক্রিয়াজাতকরণ, বিপণন এবং রপ্তানিতে অনেক এগিয়ে রয়েছেন- তাদের উন্নত প্রযুক্তি ও ব্যবস্থাপনা অনুসরণে বাংলাদেশের রাবার চাষ ও রাবার শিল্পের সম্প্রসারণ এবং পরিবেশবান্ধব রাবার শিল্পের টেকসই উন্নয়নের লক্ষে ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা প্রণয়নের জন্য সুপারিশ করেন।
উল্লেখ্য, তিনি অঘজচঈ’র সভা ও ওয়ার্কশপে বাংলাদেশ সরকারের প্রতিনিধিত্ব করেন। সভায় বিস্তারিত আলোচনা শেষে বাংলাদেশের রাবার চাষ ও রাবার শিল্পের সম্প্রসারণ এবং পরিবেশবান্ধব রাবার শিল্পের টেকসই উন্নয়নের লক্ষে ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা প্রণয়নের বিষয়ে একমত পোষণ করে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

x