রাউজান সাংস্কৃতিক পরিষদ

নাচে গানে মঞ্চে আলো ছড়ালো শিল্পীরা

সনেট দেব

বৃহস্পতিবার , ২৫ জুলাই, ২০১৯ at ১০:৫৩ পূর্বাহ্ণ
25

‘যদি মন কাঁদে, তুমি চলে এসো, চলে এসো এক বরষায়। এসো ঝর ঝর বৃষ্টিতে, জল ভরা দৃষ্টিতে, এসো কোমল শ্যামল ছায়। তুমি চলে এসো এক বরষায়।’ আলো আঁধারি মঞ্চের মাঝে বসে হুমায়ুন আহমেদের জনপ্রিয় গানটি গেয়ে চলেছেন শিল্পী আনিকা চৌধুরী। গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি উপেক্ষা করে মিলনায়তনে জড়ো হওয়া দর্শকরাও বিমোহিত হয়ে পড়েন গানটির সুরে। হৃদয়ের গহীণে ভেসে যান সুরের মুর্ছনায়। গত ৫ জুলাই শুক্রবার এমনি এক বর্ষামুখর দিনে উৎসব মুখর হয়ে পড়ে জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তন।
‘প্রাণে প্রাণে লাগবে দোলা, সুর-ছন্দের অনন্য মেলা’ শীর্ষক এই আয়োজনে শুদ্ধ সাংস্কৃতিক চর্চাকে এগিয়ে নিতে চট্টগ্রাম জেলা শিল্পকলা একাডেমীতে অনুষ্ঠিত হয় রাউজান সাংস্কৃতিক পরিষদের বর্ণাঢ্য সাংস্কৃতিক উৎসব। গত ৫ জুলাই শুক্রবার বিকাল ৫টায় রাউজান সাংস্কৃতিক উৎসব-২০১৯ এর মঙ্গল প্রদীপ জ্বালিয়ে অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করেন রাউজান উপজেলা চেয়ারম্যান এহসানুল হায়দর চৌধুরী বাবুল। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন রাউজান সাংস্কৃতিক পরিষদের পরিচালক সাইফুল ইসলাম চৌধুরী রানা। সংগঠনের পরিচালক সাজু পালিতের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সৈয়দ ইউসুফ আমিন। উৎসবের কথামালায় অংশগ্রহণ করেন ভারতীয় হাই কমিশনের এ্যাটাচি লোকনাথ চ্যাটার্জি, সাইফুল আলম বাবু, শ্যামল কুমার পালিত, দীপ নারায়ণ চৌধুরী। আয়োজনে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন সাইদুর রহমান টিপু, সারজু মো. নাসের, পরিচালক হাবিবুর জাকারিয়া রাসেল, রিপন চৌধুরী, া রিপন দেব, প্রবীর মহাজন, জহির উদ্দীন ও জয় ভট্টাচার্য্য প্রমুখ।
উৎসব আয়োজনে সংগীত পরিবেশনায় অংশ নেন রাউজান সাংস্কৃতিক পরিষদের শিল্পীরা। তারা প্রথমে কবি গুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘আগুনের পরশ মনি ছোঁয়াও প্রাণে, এ জীবন পূর্ণ করো’ এবং দ্রোহের কবি নজরুলের ‘দাও সৌর্য দাও ধৈয্য হে উদার নাথ, দাও দাও প্রান’ গানগুলো গেয়ে শোনান। এতে অংশগ্রহণ করেন শেলী পালিত, রিতু বড়ুয়া, সুমন চৌধুরী, আনিকা চৌধুরী, লুপর্ণা মুৎসূদ্দী, শান্তা দেব, অনামিকা চৌধুরী, সামিয়া মুনতাহা প্রমি, সৌভিক চৌধুরী তন্ময়, সীমান্ত বড়ুয়া, প্রিয়া দাশ, ইমন দেব, জয় বড়ুয়া, শামীম হোসাইন, সাগর ভট্টাচার্য্য, দূর্জয় চৌধুরী, শারমিন সুলতানা ঝুমুর, তৃষ্‌ঞা খাস্তগীর, রিয়া চৌধুরী, মৌমিতা দে, লাবণ্য দে ও রিপা দে পূজা।
আয়োজনে শান্তা দেব ‘এই জীবন ছিলো নদীর মতো গতি হারা’, প্রিয়া দাশ ‘আমার মাটির পিঞ্জিয়ার’, সামিয়া মুনতাহা ‘যদি সাগরের নীল’, দূর্জয় চৌধুরী ‘আকাশে আজ ছড়িয়ে দিলাম’, সৌভিক চৌধুরী ‘তুমি রবে নীরবে’ এ একক গানগুলো গেয়ে শুনান দর্শকদের। অনুষ্ঠানের আমন্ত্রিত আবৃত্তি শিল্পী হয়ে কবিতা পাঠ করে শোনান, প্রণব চৌধুরী, মুজাহিদুল ইসলাম ও শ্রাবণী দাশ গুপ্তা। দলীয় আবৃত্তিতে অংশ নেয় একুশ মানবিকতা ও আবৃত্তি চর্চাকেন্দ্র। অর্নিবান চৌধুরীর নির্দেশনায় ও অভিজিৎ সেনের গ্রন্থনায় বৃন্দ প্রযোজনা ‘আহ্বান’। দলীয় নৃত্যপরিবেশন করেন রাউজান সাংস্কৃতিক পরিষদের শিল্পীরা। কথক, পাহাড়ী নৃত্য সহ বেশ কিছু পরিবেশনায় দর্শকদের মন জয় করে নেন। আয়োজনে কৌতুক পরিবেশন করেন মিঠুন চক্রবর্তী।
মৌহিনী সংগীতা সিংহ ও তন্ময় ধরের উপাস্থাপনায় অনুষ্টানের ভিন্নমাত্রা নিয়ে আসে, রিতু বড়ুয়ার ‘একি সোনার আলো জীবন ভরিয়ে দিলে’ ও ‘তুমি না হয় রহিতে কাছে’; সুমন চৌধুরীর ‘ভালোবেসে সখি নিভৃতে যতনে’ এবং ইমন দের ‘দে দে পাল তুলে দে’ এ একক গান গুলো।

x