রবীন্দ্রনাথ স্মরণে রুচিরা বড়ুয়ার সংগীতাঞ্জলি

আনন্দন প্রতিবেদক

বৃহস্পতিবার , ২২ আগস্ট, ২০১৯ at ১০:৪৬ পূর্বাহ্ণ
6

গত ৬ আগস্ট থিয়েটার ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে ‘গীতমালিকা’ সংগীত সংগঠন কর্তৃক আয়োজন করা হয় শিল্পী রুচিরা বড়ুয়ার একক রবীন্দ্র সংগীতের অনুষ্ঠান। দিনটি ছিল ২২ শ্রাবণ অর্থাৎ কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রয়াণ দিবস।
অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন উচ্চাঙ্গসংগীত শিল্পী পণ্ডিত স্বর্ণময় চক্রবর্তী। তিনি সংগীত সংগঠন গীতমালিকার নতুন অগ্রযাত্রার উদ্বোধন করেন।
শুরুতে শিল্পীর আত্নজীবনী তুলে ধরা হয় এবং শিল্পী নিজে উপস্থিত দর্শকদের আর আয়োজকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
শিল্পী দীর্ঘদিন ধরে সংগীত চর্চা করে আসছেন। অনুষ্ঠানে গানের ডালি সাজিয়েছিলেন রবীন্দ্র সংগীত এর বিভিন্ন পবের্র কিছু স্বল্প শ্রুত আর কিছু অধিক শ্রুত গান নিয়ে।……. পূজা পর্যায়ে ছিল আমার মুক্তি আলোয়…, চরণধ্বনি শুনি…., এ কী এ সুন্দর শোভা…, এই তো তোমার প্রেম…., মালা হতে খসে পড়া…., শ্রাবণের ধারার মত…., গানের ঝর্ণাতলায়…, তোমার অসীমে….। প্রেম পর্যায়ের কিছু গান যেমন তোমারেই করিয়াছি জীবনের ধ্রুবতারা…, হৃদয়ের এ কূল…, কোথা বাইরে দূরে…, অধরা মাধুরী….,। আরও ছিল প্রকৃতি-বর্ষার কিছু গান- আজি ঝর ঝর মুখর…, রিমিকি ঝিমিকি ঝরে…., বহুযুগের ওপার হতে…, আর বিচিত্র পর্যায়ে ছিল – মধুর ধ্বনি বাজে…। প্রতিটি গানে যেমন ছিল রাগ-রাগিনীর সুরের বাহার তেমনি ছিল তালেরও বৈচিত্র। শিল্পীর পরিবেশিত প্রতিটি গানই শ্রোতাদের মনে আনন্দ দিয়েছে। আর তাঁর সাথে সহযোগী শিল্পী ছিলেন তবলায় শিবু চৌধুরী, বেহালায় ছিলেন শ্যামল চন্দ্র দাশ, কীবোর্ডের শিল্পী নিখিলেশ বড়ুয়া, হারমোনিয়ামে শিল্পী প্রমিত বড়ুয়া, বাঁশিতে শ্রিল্পী প্রানেশ্বর ভট্টাচার্য, আর মন্দিরায় শিল্পী মোঃ ফারুক। প্রত্যেকেই অত্যন্ত পরিমিত ও সুন্দর পরিবেশনায় শিল্পীর গানগুলো কে নতুন মাত্রা যোগ করেছেন। আর অনুষ্ঠানটি সুন্দরভাবে সঞ্চালনা করেছেন বাচিক শিল্পী মিলি চৌধুরী।

x