রনিতা জামান (শখ)

সোমবার , ৭ জানুয়ারি, ২০১৯ at ২:৫২ পূর্বাহ্ণ
32

ব্যক্তিগত রুচি, পরিবেশ ইত্যাদি হিসেবে মানুষের শখ বা খেয়ালের ভিন্নতা আছে। যেমন—- কারো বাগান করা, কারো শপিং করা, কারো মাছ ধরা, কারো ডাকটিকিট সংগ্রহ করা, কারো বই পড়া ইত্যাদি। এ সকল শখের মধ্যে কেন জানি, বই পড়ার শখটা অন্যরকম এক খেয়ালি মনের কথার জানান দেয়। যেমন– মানুষ তার সীমাবদ্ধতা নিয়ে বসবাস করে।এই সীমাবদ্ধতা থেকে একমাত্র বই পারে তাকে মুক্ত করতে। কারণ,এক একটি বই এক একটি জগত। জ্ঞানী – গুণী মহাজনেরা তাদের দূরদৃষ্টি, অভিজ্ঞতা,মনের মাধুরী দিয়ে তাঁদের অন্তরঙ্গ এক একটি জগত গড়ে তোলেন।সেখানে মানুষের আত্মার অফুরতা- জীবনের সুখ- মনের স্বস্তি বিরাজ করে।মানুষ কেবল বই পড়েই সেই সুখ লাভ করতে পারে। তাই তো মন বলে একটি মানুষের জীবনে শখের প্রয়োজন আছে,কারণ মানুষ যন্ত্র নয়। কাজের ফাঁকে ফাঁকে জীবন থেকে পালিয়ে বেড়াতে পারলেই যেন জীবনের দম ফিরে আসে। জীবনে নির্মল আনন্দ আর স্বচ্ছ হৃদয়াবেগের প্রশ্রয়ের জন্য শখের প্রয়োজন।আর এই শখ যদি বই পড়া হয়, তাহলে আমি যখন পার্থিব নানান কাজে জড়িয়ে হতাশ হয়ে পড়ি, ঠিক তখনই একটি ভাল বই পড়ার মধ্য দিয়ে আমি পুনরায় আমার জীবনের প্রতি আকৃষ্ট হয়ে যাই। কারণ বইয়ে একটি মহাসমুদ্রের কল্লোল ঘুমিয়ে থাকে।সাদা কাগজ গুলোর মধ্যে কালো কালো অক্ষরে বন্দি হয়ে আছে সমস্ত জীবনের হাসি – কান্না।একান্তে ভাবনার অতলে ডুবে ভাবি, আসলেই একটি বই হতে পারে মানুষের একাকী সময়ের,মনের জগত কিংবা বেঁচে থাকার নিত্যসাথী।

x