যুক্ত হচ্ছে আরো ৭ কোটি টাকার সরঞ্জাম

চমেক হাসপাতাল

রতন বড়ুয়া

মঙ্গলবার , ৩০ এপ্রিল, ২০১৯ at ৬:৩৮ পূর্বাহ্ণ
281

আরো ৭ কোটি টাকার চিকিৎসা সরঞ্জাম যুক্ত হচ্ছে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে। এসব চিকিৎসা সরঞ্জাম ক্রয়ে ইতোমধ্যে টেন্ডার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে যাচাই-বাছাইও শেষ করেছে হাসপাতাল প্রশাসন। অধিকাংশ সরঞ্জামের কার্যাদেশও (ওয়ার্ক অর্ডার) দেয়া হয়েছে। অল্প কয়টি সরঞ্জামের কার্যাদেশ বাকি রয়েছে যা অল্প কয়দিনের মধ্যেই দেয়া হবে। সবমিলিয়ে আগামী জুনের আগেই এসব সরঞ্জাম হাসপাতালে যুক্ত হবে বলে জানিয়েছেন চমেক হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. আখতারুল ইসলাম। হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, নতুন যুক্ত হওয়ার তালিকায় ইকো কার্ডিয়াক মনিটর, ইসিজি, ভেন্টিলেটর, অ্যানেসথেসিয়া মেশিন, অটোমেটেড বায়োকেমিস্ট্রি এনালাইজার, সেন্ট্রিফিউজ মেশিন, হেমোডায়ালাইজার, এইচডিও বেড, অর্থ্রোস্কপি, বায়োনোকুলার মাইক্রোস্কোপ, সিএআরএম, হাইড্রোলিক ওটি টেবিল, ডেন্টাল চেয়ারসহ মোট ২১ পদের চিকিৎসা সরঞ্জাম রয়েছে। এসব সরঞ্জাম যুক্ত হলে চিকিৎসা সেবায় এ হাসপাতাল আরো সমৃদ্ধ হবে বলে মনে করেন হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহসেন উদ্দিন আহমদ। এছাড়াও হাসপাতালের চিকিৎসা সেবা আরো গতিশীল হবে উল্লেখ করে গরীব রোগীরা কম খরচে এর সুবিধা পাবেন বলেও জানান হাসপাতাল পরিচালক।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, একটি ইকো কার্ডিয়াক মনিটরের মূল্য প্রায় ৭৫ লাখ টাকা। আর প্যাথলজি বিভাগের জন্য একটি অটোমেটেড বায়োকেমিস্ট্রি এনালাইজার ক্রয়ে খরচ পড়বে প্রায় ২৭ লাখ টাকা। আইসিইউ’র একটি ভেন্টিলেটরের মূল্য প্রায় ১৮ লাখ টাকা। হাইড্রোলিক ওটি (অপারেশন থিয়েটার) টেবিলের মূল্য প্রায় ১৯ লাখ টাকা। তিনটি অ্যানেসথেসিয়া মেশিন যার প্রতিটির মূল্য প্রায় ১০ লাখ টাকা। আউটডোরের জন্য একটি ইসিজি মেশিন, যার মূল্য প্রায় আড়াই লাখ টাকা। এর বাইরে এইচডিও বেড, প্যাথলজির জন্য বায়োনোকুলার মাইক্রোস্কোপ ও সেন্ট্রিফিউজ মেশিন, সিসিইউ’র জন্য এইচডিও বেড, সিএআরএম এবং ১৩ লাখ টাকা দামের দুটি ডেন্টাল চেয়ার। সবমিলিয়ে ৭ কোটি টাকার ২১ পদের চিকিৎসা সরঞ্জাম নতুন করে যুক্ত হচ্ছে হাসপাতালে।
হাসপাতাল প্রশাসনের তথ্যমতে, চিকিৎসা সরঞ্জাম ক্রয়ে প্রথম দফায় (তিন মাস আগে) ৪ কোটি টাকা এবং ২য় দফায় গত বুধবার (২৪ এপ্রিল) তিন কোটি টাকা অর্থ বরাদ্দ দেয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়। প্রথম দফায় বরাদ্দ পাওয়ার পরই চিকিৎসা সরঞ্জাম ক্রয়ে টেন্ডার (দরপত্র) আহবান করে হাসপাতাল প্রশাসন। ইতোমধ্যে টেন্ডার যাচাই-বাছাই কার্যক্রমও শেষ হয়েছে। অধিকাংশ (প্রায় সাড়ে ৬ কোটি টাকার) সরঞ্জাম ক্রয়ে ইতোমধ্যে কার্যাদেশও দেয়া হয়েছে। ১২টি প্রতিষ্ঠান এ কার্যাদেশ পেয়েছে বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে।

x