যুক্তরাজ্যে মাস্টার্স করতে শেভেনিং স্কলারশিপ

প্রবীর বড়ুয়া

শনিবার , ১০ আগস্ট, ২০১৯ at ৯:০৪ পূর্বাহ্ণ
376

উচ্চশিক্ষার জন্য অনেকেই যুক্তরাজ্যে যেতে চান। কিন্তু পড়াশোনা, থাকা-খাওয়া সহ আনুষঙ্গিক খরচ বহন করা অনেকের পক্ষেই সম্ভব হয় না। তবে যোগ্যতা থাকলে যদি বৃত্তি পাওয়া যায় তাহলে উচ্চশিক্ষার জন্য যুক্তরাজ্যে যাওয়া কঠিন বিষয় নয়।
যুক্তরাজ্যে পড়ার জন্য জনপ্রিয় একটি বৃত্তি হলো ‘শেভেনিং স্কলারশিপ’। এতে অর্থায়ন করে ফরেন অ্যান্ড কমনওয়েলথ অফিস (এফসিও) এবং বিভিন্ন সহযোগী সংগঠন। বিভিন্ন দেশের শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে মেধাবী ও নেতৃত্বের যোগ্যতাসম্পন্নরা এ বৃত্তির আওতায় যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সুযোগ পেয়ে থাকেন। ব্রিটেনের যেকোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে যেকোনো বিষয়ে এক বছরের মাস্টার্স ডিগ্রি নিতে আগ্রহী শিক্ষার্থীরা আবেদন করতে পারেন এ বৃত্তির জন্য। ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে মাস্টার্স কোর্সে ভর্তি হওয়ার জন্য বাংলাদেশী শিক্ষার্থীরা আগামী ৬ আগস্ট থেকে এ বৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারবেন। শেভেনিং স্কলারশিপের আওতায় যা যা পাবেন সেগুলো হলো টিউশন ফি, মাসিক ভাতা, নিজ দেশ থেকে যুক্তরাজ্যে যাওয়া-আসার যাতায়াত ভাতা, ভিসা আবেদনের খরচ।
আবেদনের যোগ্যতা ও সময় : অনার্সে ন্যূনতম ৬০ শতাংশ নম্বর থাকবে হবে আবেদনকারীর। থাকতে হবে মাস্টার্স কোর্সে আবেদন করার জন্য প্রয়োজনীয় সকল যোগ্যতা। আবেদন করার জন্য ২ বছর কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। এছাড়া শিক্ষাজীবনের কোনো পর্যায়ে তৃতীয় বিভাগ গ্রহণযোগ্য হবে না। শেভেনিং স্কলারশিপে আবেদন করার আগে সংশ্লিষ্ট কোর্সে আবেদন করতে হবে। তারপর স্কলারশিপ অনলাইন আবেদনটি সম্পন্ন করতে হবে। বৃত্তিটির জন্য আবেদন গ্রহণ শুরু হয়েছে ৫ আগস্ট এবং আবেদনের শেষ তারিখ ৫ নভেম্বর ২০১৯।
প্রয়োজনীয় কাগজপত্র : বৃত্তিটি পাওয়ার জন্য যেসব কাগজপত্র প্রয়োজন হবে সেগুলো হলো লেটার ফরম্যাটে ইংরেজিতে লিখিত দুইটি রেফারেন্স, বৈধ পাসপোর্ট/ জাতীয় পরিচয়পত্র, ইউনিভার্সিটি ট্রান্সক্রিপ্ট (আন্ডারগ্র্যাজুয়েট, পোস্টগ্র্যাজুয়েট), আপনি যেসব বিষয়ে মাস্টার্স করতে চান এমন তিনটি বিষয়ের নাম। এগুলো অনলাইন আবেদন করার সময় পিডিএফ ফরম্যাটে আপলোড করতে হবে। আর ফাইলের সাইজ ৫ মেগাবাইটের বেশি হওয়া যাবে না। শেভেনিং স্কলারশিপ পাওয়ার জন্য আপনার লিঙ্গ, বয়স, ধর্ম, বৈবাহিক অবস্থা, গোত্র, শ্রেণী কোনো ব্যাপার নয়। বৃত্তিটি পাওয়ার জন্য যা গুরুত্বপূর্ণ তা হলো একটি ভালো আবেদনপত্র যেটিতে যুক্তরাজ্যে মাস্টার্স কোর্স করার ক্ষেত্রে আপনার যোগ্যতা এবং আপনার ক্ষেত্র ও দেশের জন্য আপনার দৃষ্টিভঙ্গি সম্পর্কে পরিষ্কার একটি ধারণা দিতে হবে।
তাছাড়া প্রত্যেক আবেদনকারীর অবশ্যই শেভেনিং-এর ইংরেজি ভাষার প্রয়োজনীয় দক্ষতা থাকতে হবে। এ ইংরেজি দক্ষতাগুলোর মধ্যে আছে পিয়ারসন টেস্ট অভ ইংলিশ (পিটিই) একাডেমিক, একাডেমিক আইইএলটিএস, টোয়েফল আইবিটি, সি১ এডভান্সড, ট্রিনিটি আইএসইটু(বি২)। তবে শেভেনিং স্কলারশিপের আওতায় এ পরীক্ষাগুলোতে অংশগ্রহণের জন্য আবেদনকারীকে কোনো খরচ দেয়া হবে না। আগামী ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের বৃত্তির জন্য আবেদন করতে উপরোল্লিখিত যেকোনো পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করা থাকতে হবে অবশ্যই ২০১৮ সালের ১ অক্টোবরের পর। জানা থাকা প্রয়োজন যে পিটিই একাডেমিক-এর ফলাফল পাওয়া যায় ৫ কর্মদিবসে, আইইএলটিএস ১৩ দিনে এবং টোয়েফল ১০ দিনে। শেভেনিং স্কলারশিপ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন www.chevening.org

x