মেয়েদের ফেসবুক আইডি হ্যাক করে প্রতারণা

যুবক গ্রেপ্তার

আজাদী প্রতিবেদন

বৃহস্পতিবার , ১৩ জুন, ২০১৯ at ৪:৩১ পূর্বাহ্ণ
586

মেয়েদের বিভিন্ন ফেসবুক গ্রুপ ও ফেসবুক আইডি হ্যাক করে প্রতারণা করে আসছিলেন তিনি দীর্ঘদিন ধরে। নিজেকে পরিচয় দেন ‘চিটাগং সাইবার সিকিউরিটি এন্ড সাপোর্ট (সিসিএসএস) এর ফাউন্ডার ডিরেক্টর হিসেবে। কথায় বলে ‘চোরের দশ দিন, গেরস্তের এক দিন’। তাই অন্যান্য অপরাধীর মতো তার হাতেও আইনের হাতকড়া পড়লো। নকল ডেথ সার্টিফিকেট, বার্থ সার্টিফিকেট, পাসপোর্ট, এনআইডিসহ বিভিন্ন দলিল দিয়ে ফেসবুক আইডি হ্যাক করার অপরাধে সালমান মো. ওয়াহিদ নামে ওই যুবককে গত ১১ জুন গ্রেপ্তার করে সিএমপির কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট। ইউনিটের প্রধান উপ পুলিশ কমিশনার মো: শহীদুল্লাহ আজাদীকে জানান, এ চক্রের একজন ধরা পড়েছে। আরো কয়েকজনকে গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত আছে।
উপ পুলিশ কমিশনার মো. শহীদুল্লাহ বলেন, সালমান মো. ওয়াহিদ ফেসবুক হ্যাকার গ্রুপ দ্যা ডার্টি এ্যানোনিমাস আর্মির অন্যান্য সদস্যদের সহযোগিতায় জনৈক ইসতিয়াক হাসানের স্ত্রীর ফেসবুক আইডি এবং অপর একটি আইডি হ্যাক করে প্রিটেন্ডিং রিকুয়েস্ট দিয়ে ডিজেবল করে। এ ঘটনায় গত ২৬ মে তিনি পাঁচলাইশ থানায় একটি মামলা করেন। কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের পরিদর্শক আফতাব আহমেদ বিষয়টি তদন্ত করতে গিয়ে এর সত্যতা পান। সালমান কয়েকটি ফেক আইডি খুলে বাদীর স্ত্রীর নামে কুৎসা রটাতে থাকেন। গত ১১ মে বাদীর স্ত্রীর ফেসবুক আইডির বিপরীতে নকল ডেথ সার্টিফিকেট বানিয়ে ফেসবুককে রিপোর্ট করে যে বাদীর স্ত্রী জীবিত নেই। ফেসবুক কর্তৃপক্ষ ওই রিপোর্টের ভিত্তিতে বাদীর স্ত্রীর ফেসবুক এঙেস নিয়ে ফেলে। তারপর থেকে বাদীর স্ত্রীর ফেসবুক আইডির পাশে মৃত ব্যক্তির ফেসবুক আইডির মতো ‘রিমেম্বারিং’ চলে আসে।
তিনি বলেন, সালমানের মোবাইল পর্যালোচনা করে দেখা যায় যে, ফটোশপের মাধ্যমে বিভিন্ন নামে বেনামে বেশ কয়েকটি নকল ডেথ সার্টিফিকেট, বার্থ সার্টিফিকেট, পাসপোর্ট, এনআইডি, স্কুল-কলেজের আইডিসহ বিভিন্ন দলিল তৈরির প্রমাণ পাওয়া গেছে।

x