মেয়াদোত্তীর্ণ শিশু খাদ্য বিক্রিসহ নানা অপরাধ

১০ প্রতিষ্ঠানকে লক্ষাধিক টাকা জরিমানা

আজাদী প্রতিবেদন

শুক্রবার , ১০ আগস্ট, ২০১৮ at ৯:২৩ পূর্বাহ্ণ
29

১০ প্রতিষ্ঠানকে ১ লাখ ৩৩ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের বাজার তদারকিমূলক অভিযানে।

গতকাল বৃহস্পতিবার নগরের ইপিজেড, বন্দর, ডবলমুরিং, পাঁচলাইশ ও চান্দগাঁও থানায় এ অভিযান চালানো হয়। অধিদফতরের চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক নাসরিন আক্তার ইপিজেড থানার বে শপিং কমপ্লেঙের ফ্যান্টাসি বার্গারকে অননুমোদিত সস ব্যবহার ও বাসি খাবার বিক্রি করার অপরাধে ১০ হাজার টাকা, ম্যাক্স ফুডকে ১০ হাজার টাকা, বে ফুড কর্নারকে ৫ হাজার টাকা, মেয়াদোত্তীর্ণ শিশু খাদ্য বিক্রির জন্য সংরক্ষণ করায় ৫ হাজার টাকা, ভূঁইয়া ফুডকে ৫ হাজার টাকা এবং হানিম্যাঙ ফুডকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন। এ সময় ২৫ লিটার অননুমোদিত সস ধ্বংস করা হয়।

সহকারী পরিচালক বিকাশ চন্দ্র বন্দর ও চান্দগাঁও থানা এলাকায় অভিযান চালান। গরু মোটাতাজা করার অননুমোদিত স্টেরয়েড, অবৈধ যৌন উত্তেজক ওষুধ ও মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ বিক্রির জন্য সংরক্ষণ করায় মাইলের মাথা এলাকার মেসার্স গফুর ফার্মেসিকে ৬০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

এ সময় ১০ হাজার পিস অননুমোদিত ওষুধ ধ্বংস করা হয়। রান্নাঘরের নোংরা অপরিচছন্নতার জন্য চান্দগাঁও এলাকার আজমির হোটেলকে ৮ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। অধিদফতরের জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান পাঁচলাইশ ও বহাদ্দারহাট এলাকায় তদারকিমূলক কার্যক্রম পরিচালনা করেন। এ সময় জেএম ব্রাদার্সে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে মসলা গুঁড়ো করায় ৫ হাজার টাকা, মসলা বিক্রিতে কম ওজনের বাটখারা ব্যবহার করায় ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। নোংরা পরিবেশে তৈরি করা ২০ কেজি মসলা ফেলে দেওয়া হয়। শাহ আলম মিলঘর নামের আরেকটি মসলার দোকানকে ওজনে কারচুপি করায় ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এ সময় ১২টি কম ওজনের বাটখারা আটক করা হয়েছে।

পোড়াতেল ব্যবহার, নিউজপ্রিন্টের ওপর খাবার বিক্রির জন্য সংরক্ষণ, নোংরা পরিবেশে খাদ্যদ্রব্য উৎপাদন করায় নিউ ম্যানিলা হোটেলকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা এবং ১০ লিটার পোড়া তেল ধ্বংস করা হয়।

x