মেয়রের সুদৃষ্টি কামনা করছি

সোমবার , ৭ অক্টোবর, ২০১৯ at ৫:৫৫ পূর্বাহ্ণ
16

অভিজাত থেকে মধ্যম মানের এলাকায় সিটি কর্পোরেশনের ডাস্টবিন উপচে ময়লা আবর্জনার স্তূপ ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকে বিরাট এলাকা জুড়ে। এসব ডাস্টবিন এবং ময়লা আবর্জনার স্তূপ হতে উৎকট দুর্গন্ধের মধ্যে দিয়ে প্রতিদিন সকাল-সন্ধ্যা চলতে হয় এলাকাবাসী দোকানদার পথচারীদের।
ময়লা-আবর্জনার দুর্গন্ধে বসবাসরত মানুষসহ সকলের জীবনযাত্রা দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে। এসব আবর্জনার স্তূপ নগরবাসী ও সাধারণ পথচারীদের রোগ ও দুর্ভোগের একমাত্র কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। ময়লা আবর্জনা পরিষ্কারের পর ব্লিচিং পাউডার ছিটানোর নিয়ম থাকলেও তা মানা হচ্ছে না। গোটা রাস্তায় ময়লা- আবর্জনাগুলো পড়ে থাকতে দেখা যায়। আশ-পাশ দিয়ে স্কুল-কলেজের ছাত্র/ছাত্রী শিক্ষকসহ নানা শ্রেণির পেশার যারা রাস্তা অতিক্রম করে তাদেরকে দুই আঙুলে নাক ছেপে কিংবা নাকে রুমাল গুঁজে চলতে হচ্ছে। কদর্য বা বিশ্রী একটা পরিবেশ। একদিকে ময়লার উৎকট দুর্গন্ধ, অন্যদিকে মলমূত্রের দুর্গন্ধ দুইয়ে মিলে যে কি হচ্ছে তা সহজে অনুমেয়। আবার অনেক স্থানে দেখা যায়, ময়লা-আবর্জনা ফেলতে ফেলতে ময়লার পাহাড়ে পরিণত হয়েছে। ফলে দুর্গন্ধ আরো মারাত্মক আকার ধারণ করে বাতাসের মাধ্যমে চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে আশেপাশের পরিবেশ দূষণ আরো ভয়াবহ হয়ে ওঠে। নগরবাসী এ থেকে পরিত্রাণ চাই।

– নজরুল ইসলাম অপু, প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি: বহদ্দারহাট, বহুমুখী
ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতি (বহদ্দার বাড়ি), বহদ্দারহাট, চট্টগ্রাম।

x