মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয় চান্দগাঁওবাসীর সাফল্যের দুয়ার খুলে দিবে

ভিসির সাক্ষাৎকালে সিডিএ চেয়ারম্যান

বৃহস্পতিবার , ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮ at ১০:৩৮ পূর্বাহ্ণ
569

নগরীর চান্দগাঁওয়ের কালুরঘাট ভারী শিল্প এলাকায় নির্মিতব্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশের উপাচার্য রিয়ার অ্যাডমিরাল এম খালেদ ইকবালসহ একটি প্রতিনিধিদল গত সোমবার চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান আবদুচ ছালামের সাথে সৌজন্য সাক্ষাত করেন। সিডিএ ভবন কনফারেন্স হলে সৌজন্য সাক্ষাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক বিষয় তিনি তুলে ধরেন।
উপাচার্য বলেন, সিডিএ চেয়ারম্যানের আন্তরিক সহযোগিতার কারণে আজ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম ইউনির্ভাসিটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। ওনার আন্তরিকতায় আজ সুন্দর একটি ক্যাম্পাস আমরা উপহার দিতে পেরেছি। বিশ্ববিদ্যালয়টি পুরো এলাকার চিত্র পাল্টে দিয়েছে। তিনি বলেন, চান্দগাঁও ওয়ার্ড কালুরঘাট ভারী শিল্প এলাকার হামিদচরে ১০৬ একর জায়গার ওপর নির্মিত হতে যাচ্ছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম ইউনিভার্সিটি। ৯৬৯ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত বিশ্ববিদ্যালয়টি ২০২১ সালে প্রথম ধাপের কাজ শেষ হবে। এ বিশ্ববিদ্যালয়ে নদী, উপকূলীয় ও মহাসাগরীয় আইন এবং প্রকৌশলের উপর ৭টি অনুষদের অধীনে ৩৮টি বিভাগ খোলার পরিকল্পনা রয়েছে। তবে ২০১৩ সালে ঢাকার মিরপুর পল্লবীতে বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্থায়ী ক্যাম্পাস স্থাপনের মধ্য দিয়ে এর আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হয়েছে। সিডিএ চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম বলেন, মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয় চান্দগাঁওবাসীর সাফল্যের দুয়ার খুলে দিবে। এই সাফল্যের হাত ধরে এই এলাকায় শিক্ষা, সংস্কৃতি, ব্যবসা-বাণিজ্যসহ নানামুখী সম্ভাবনার নতুন দুয়ার উন্মুক্ত হবে।
এসময় মেরিটাইম ইউনিভার্সিটির পক্ষে উপস্থিত ছিলেন ক্যাপ্টেন এম. এ লতিফ, কমোডর জালাল উদ্দিন, লেফটেন্যান্ট কর্নেল ইলিয়াস হোসেন, মো. নাছির উদ্দিন, মাহমুদুল হোসাইন খান, কমান্ডার এম আরিফুল রহান, জিল্লুর রহমান, জু ইয়াং, জুজিগ্যাং, সিডিএ থেকে উপস্থিত ছিলেন প্রধান প্রকৌশলী জসীম উদ্দিন চৌধুরী, সচিব তাহেরা ফেরদৌস, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী হাসান বিন শামস প্রমুখ। প্রেসবিজ্ঞপ্তি

x