মেংকে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে হস্তান্তর করা হতে পারে

রবিবার , ৩ মার্চ, ২০১৯ at ১০:১৭ পূর্বাহ্ণ
88

চীনা টেলিকম জায়ান্ট হুয়াওয়ের প্রধান অর্থনৈতিক কর্মকর্তা মেং ওয়ানঝুকে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে হস্তান্তরে প্রক্রিয়া শুরু করেছে কানাডা। দেশটির বিচার মন্ত্রণালয় শুক্রবার এক বিবৃতিতে ডিসেম্বরে ভ্যাঙ্কুবার বিমানবন্দর থেকে আটক মেংকে বহিসমর্পণ করা হবে কিনা, সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানতে আদালতের দ্বারস্থ হওয়ার কথা জানিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের ইরান নিষেধাজ্ঞা লংঘনের সঙ্গে যুক্ত প্রতারণার দায়ে মার্কিন আদালতে মেংয়ের বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি অভিযোগ আছে। কানাডার আদালতে চীনা এ শীর্ষ নির্বাহীর হস্তান্তরের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হতে কয়েক মাস এমনকী বছরও লেগে যেতে পারে। খবর বিডিনিউজের।
মামলার শুনানিতে মেংকে হস্তান্তরের যৌক্তিকতা বিচারকের মনঃপুত হলে তিনি বহিঃসমর্পণ প্রক্রিয়ায় অনুমোদন দিতে পারেন। আদালত অনুমতি দিলে হুয়াওয়ের প্রধান অর্থনৈতিক কর্মকর্তার (সিএফও) হস্তান্তর বিষয়ক সিদ্ধান্তের ভার চলে যাবে বিচার মন্ত্রীর কাছে। তিনি চাইলে মেংয়ের বহিঃসমর্পণ আটকেও দিতে পারেন। কানাডার বিচার মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, “বহিঃসমর্পণের শুনানিতে কারও বিচার হয় না, তিনি দোষী কি নিষ্পাপ তাও ঠিক হয় না। অন্য কোনো দেশে বিচারের মুখোমুখি হওয়া ব্যক্তিকে হস্তান্তরের আগে কানাডার আদালতে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত হতে হয়।” জানুয়ারিতে যুক্তরাষ্ট্র আনুষ্ঠানিকভাবে মেংকে হস্তান্তরে কানাডার কাছে অনুরোধ জানায়; এ বিষয়ে আইনি প্রক্রিয়া শুরুর সিদ্ধান্ত জানাতে বিচার মন্ত্রণালয়ের হাতে শুক্রবার পর্যন্ত সময় ছিল।
টেলিকম জায়ান্ট হুয়াওয়ের বিরুদ্ধে মার্কিন কর্তৃপক্ষ দুই ডজনের মতো অভিযোগ এনেছে; হুয়াওয়ে এবং মেং শুরু থেকেই এই অভিযোগগুলো অস্বীকার করে আসছেন।
জামিনে থাকা মেংকে বুধবার ব্রিটিশ কলাম্বিয়ার আদালতে হাজিরা দিতে হবে। একইসময়ে তার বহিঃসমর্পণ বিষয়ক শুনানিও শুরু হওয়ার কথা। চীনা এ শীর্ষ নির্বাহীর বহিঃসমর্পণ নিয়ে বেইজিং ও অটোয়ার মধ্যে কূটনৈতিক টানাপোড়েন চলছে। মেংকে গ্রেপ্তারের পর চীন কানাডার সাবেক কূটনীতিক মাইকেল করভিগ ও ব্যবসায়ী স্পেভরকে আটক করে। হুয়াওয়ে সিএফওর ‘পাল্টায়’ এ দুইজনকে আটক করা হয়েছে বলেও ধারণা অনেকের।

x