মৃন্ময়ী ধর (বিশ্বাস, সম্মান ও ভালবাসায় সম্পর্ক মূল্যায়ন)

সোমবার , ৮ অক্টোবর, ২০১৮ at ১০:৩৬ পূর্বাহ্ণ
41

মানুষের জীবনের গতিপথে কত অচেনা মুখ চেনা হয়ে উঠে মনের গভীরে স্থান করে নেয়। আবার কত চেনা মুখই অচেনা হয়ে যায় যখন প্রয়োজন, স্বার্থ ,দ্বন্দ্ব, অহংকার এসে গ্রাস করে মানুষের মনে। ভুল বোঝাবুঝির কারণে কত মধুর সম্পর্ক, রক্তের সম্পর্ক, বন্ধুত্ব ভেঙে যায় চিরতরে। তারপরও কি পড়ে থাকে না একসময়ে গড়া সেই সম্পর্কের পলিমাটির স্তর? শুধুই কি জন্ম নেয় সেখানে ঘৃণা, বিদ্বেষ, হিংসা, সন্দেহ! নাকি প্রচণ্ড অভিমানের পাহাড় গড়ে উঠে ধীরে ধীরে মনের মধ্যে? জেগে উঠে এক বিরাণ চর! যেখানে ভালবাসার মানুষ যারা ছিল একদিন তাদের আর চরণ পড়েনা কখনই! এমন হয় অনেক সময় ,আমরা অনেকের ক্ষেত্রেই। কিন্তু একবারও কি আমরা ভেবে দেখি একটা সম্পর্ক তিল তিল করে গড়ে উঠতে যে সময় লেগেছে তা নিমিষেই কেন নষ্ট করি? কেন অনুভবের ঘাটতি হয় সামান্য কারণে। বুঝতে চেষ্টা করিনা বা বুঝিইনা অপরপক্ষ কতখানি বেদনা নিয়ে এই সম্পর্ক ছিন্ন করার দায় বয়ে বেড়াচ্ছে হৃদয়ে! কিছুক্ষণ আগেও যে মানুষটার জন্য প্রাণ ব্যাকুল থাকতো, অপার ভালবাসা বয়তো হৃদয়ে কেন তাকে মন থেকে ছুঁড়ে ফেলে দেওয়া অবলীলায়! এই ভাবনা যদি মনে আসে তখন যত বড় কারণই হোক না কেন আমরা দ্বিধাগ্রস্ত হবো যথাযথ বিবেচনা ও বিশ্লেষণ না করে যুক্তিহীন চিন্তা ও অহংকারে যে কোন সম্পর্কের ইতি টানতে। মানুষের জীবনের সবচেয়ে কঠিন কাজ হলো কারও সাথে আত্মিক সম্পর্ক গড়ে তোলা। হাজারো লোকের ভিড়ে সেই সম্পর্ক গড়ে উঠে কিছু মানুষের সাথেই। তাই সামান্য কারণে সেই সম্পর্ক ভেঙে গুড়িয়ে দেওয়া উচিত না।
ভুল বোঝা বা সন্দেহ করা মানুষের সহজাত প্রবৃত্তি। তাই তা তলিয়ে দেখার, সত্যতা যাচাই করে নেবার দায় ও মানুষের। দশজন লোক একই কথা বললেও সেখানে -মিথ্যা থাকতে পারে যে কারণে হয়তো সত্য অপ্রকাশিত আছে। সবার চিন্তা ভাবনা ও ধারণ ক্ষমতা এক না। ব্যক্তি বিশেষে ভিন্ন ভিন্ন ভাবনার প্রকাশ পায় তাই। সে কারণে নিজেই ঘটনার বিশ্লেষণ ও অনুধাবন করা শ্রেয়। যে কোন সম্পর্ক গড়ে উঠে দুটি হৃদয়ের অনুভবে। অনুভব সৃষ্টি হয় কাউকে কোন কারণে ভাল লাগলে।
সেই ভাল লাগাতে মিশে থাকে সম্মান। আর তখনই সেই অনুভব থেকে জন্ম নেয় ভালবাসা, বিশ্বাস, ভরসা। এই দীর্ঘ প্রক্রিয়ায় গড়ে ওঠা কোনো সম্পর্ক তাই নিমিষেই ভেঙে দেওয়ার আগে যথাযথ বিচার ও বিশ্লেষণ করা সবার উচিত। মানুষ পারস্পরিক সম্পর্ক ছাড়া সুস্থজীবন -যাপন করতে পারেনা। তাই সম্পর্ক তৈরী করুন, মূল্যায়ন করুন এবং বজায় রাখুন। সম্পর্ক ভাঙ্গার আগে গভীরভাবে ভেবে দেখুন কাজটা ঠিক হচ্ছে কিনা। তিক্ততা এড়িয়ে চলুন। বিশ্বাসের ভিত মজবুত করুন। পরম্পরের প্রতি বিশ্বাস, সম্মান ও ভালবাসায় সম্পর্ক মূল্যায়ন হয়ে বয়ে চলুক বহতা নদীরমত আমরণ।

x