মুহম্মদ নূরুল হুদার কবিতা

শুক্রবার , ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ at ৯:০০ পূর্বাহ্ণ
189

কবির অধরে

পান্না নেমে গেলো।

আর কবির চোখে ভেসে উঠলো

তার পূর্বপুরুষের খড়ো কুড়েঘর;

তার পাশে বয়ে চলেছে বাংলার সব নদী

মেঘনা, যমুনা, সুরমা, শঙ্খ, কর্ণফুলী

কবে যেন পান্না হারিয়েও এসেছে

কর্ণফুলীর ধারাজলে তার কানফুলগুলি।

কোনো কিছু চিন্তা না করেই কবি সাজলো

উদ্ধারকর্মী। চোখ বন্ধ করে ডুব দিলো

কর্ণফুলীর ধারাজলে। কবি সাঁতার কাটলো

অনন্তকাল। ডুবতে ডুবতে ভাসতে ভাসতে

কবিও হয়ে উঠলো টলমলে ফোঁটাজল।

ঘর ছেড়ে চর ছেড়ে,

সেই ভবঘুরে ফোঁটাজল

কখন যেন উড়ে এলো উড়ির চরে;

তারপর মিশে গেলো

আদিগন্ত থইথই বঙ্গোপসাগরে

আহা, কবিতার কিশোরী চুম্বন

তখনো চিকচিক করছে কবির অধরে।

x