মুনিজা বশীর (নারী হিসাবে নয়, মানুষ হিসেবে)

শনিবার , ৯ মার্চ, ২০১৯ at ১০:৩০ পূর্বাহ্ণ
67

হে নারী, তুমি আসলে কি? তোমাকে নিয়ে এত গল্প, এত কবিতা, এত ছন্দ, কেন বলো তো? তুমি তো সৌন্দর্যের প্রতীক, তুমি তো অনুপ্রেরণা, তুমি তো শক্তি, কিন্তু তুমি কেন সময়ে সময়ে নিগৃহীত, লাঞ্ছিত, কামনার বস্তুু, বৈষম্যের শিকার?
তুমি পারো না কি? সন্তান প্রসবের পর বলতে পারো একরকম পুনর্জন্ম হয় তোমার, সমস্ত পরিবারের দায়িত্ব তোমার ওপর। অথচ দেখো একটু এদিক সেদিক হলে মনে হয় বিশাল বড় অপরাধ করেছো তুমি। মেয়েবেলা থেকে, বিশেষ করে বয়োঃসন্ধিকালে কতটুকু সাবধানে থাকতে হয় তোমাকে, কিন্তু তারপরেও তুমি অনেক সময় নিজেকে রক্ষা করতে পারো না। নিকোষ কালো আঁধারে তুমি হারিয়ে যাও। তুমি ঘরে বাইরে রোবটের মত কাজ করো। নিজের জন্য এতটুকু সময় তোমার আছে কি?
নারী দিবস, নারী দিবস করে আমরা সবাই সোচ্চার হচ্ছি। কই নারী দিবসে তো কেউ তোমাকে আদর মাখা কন্ঠে বলে না’ কেমন আছো তুমি?’ তুমি সবার জন্য আছো, অথচ দেখো তোমার জন্য কেউ নেই। তোমার জন্য কেবল তুমিই আছো। তুমি তোমার ছোট এই জীবনে যত সুন্দর করে অভিনয় করবে,তুমি তত বেশি সুখী হবে, তত বেশি তুমি সফল হবে।
শুধু মাত্র ৮ই মার্চ বিশ্ব নারী দিবস হবে কেন? প্রতিদিন নয় কেন? নারী অধিকার নিয়ে কথা বলার আগে নারী তুমিই পারো নিজেদের মানসিকতা, নিজেদের দৃষ্টিভঙ্গি বদলে ফেলতে। নারী তুমি দুর্বল নও। তুমি শক্তি,তুমি একতা। তোমার পরিচয় তুমি নিজেই গড়ো. . .নারী হিসাবে নয়, মানুষ হিসেবে।এখানেই তোমার সফলতা, এখানেই তোমার সাথর্কতা।

x