মুক্তিযোদ্ধারা বছরে পাঁচটি উৎসব ভাতা পাবেন

শনিবার , ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ at ৪:২১ পূর্বাহ্ণ
150

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য বছরে পাঁচটি উৎসব ভাতার ব্যবস্থা হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, দু’টি ঈদ বোনাসের পাশাপাশি বাংলা নববর্ষ, মহান বিজয় ও স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে মুক্তিযোদ্ধাদের একটি করে উৎসব বোনাস দেওয়া হবে। প্রত্যেক অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধার জন্য ১৫ লাখ থেকে ১৮ লাখ টাকা ব্যয়ে বাড়ি নির্মাণ করে দেওয়া হবে। মুক্তিযোদ্ধাদের সব চিকিৎসার ব্যয়ভার ইতিমধ্যেই সরকার গ্রহণ করেছে। মন্ত্রী আরও বলেন, পাঠ্যসূচিতে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসের পাশাপাশি পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর বর্বরোচিত আক্রমণের ঘটনাবলী অন্তর্ভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এ লক্ষ্যে বিসিএস পরীক্ষায় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ে ১০০ নম্বরের প্রশ্ন রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এতে পাকিস্তান আমলের ২৪ বছরের নির্যাতনের ইতিহাস সংক্রান্ত ৫০ নম্বর এবং মুক্তিযুদ্ধের নয় মাসের ইতিহাসের ওপর ৫০ নম্বর থাকবে।

শুক্রবার (১৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নকলা পৌর শহরের ইশিবপুর এলাকায় প্রায় দুই কোটি টাকা ব্যয়ে নবনির্মিত উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেঙ ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। একটি মহল স্বাধীনতাবিরোধী বিএনপিজামায়াতকে আবারও পুনর্বাসনের ষড়যন্ত্র করছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, নির্বাচিত সরকার উৎখাত করে যারা অনির্বাচিত ব্যক্তিদের হাতে ক্ষমতা দিতে চায় তারা দেশের শত্রু। তাদের ব্যাপারে দেশবাসীকে সাবধান থাকতে হবে। এ দেশকে আধুনিক সমৃদ্ধশালী দেশ হিসেবে গড়ে তুলতে হলে পুনরায় নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আনতে হবে। এ জন্য মুক্তিযোদ্ধাসহ জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।

কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী বলেন, মুক্তিযোদ্ধা আছে, ছিল এবং থাকবে। তাই সরকারি চাকরিতে মুক্তিযোদ্ধা কোটা বহাল থাকবে। মহান স্বাধীনতাযুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধারা যে অবদান রেখেছেন তার স্বীকৃতিস্বরূপ বর্তমান মুক্তিযুদ্ধের চেতনার সরকার এ কোটা বহাল রাখবে। তাছাড়া উচ্চ আদালত থেকেও এ বিষয়ে নির্দেশনা রয়েছে। খবর বাংলানিউজের।

তিনি বলেন, ১৯৭৫ পরবর্তীতে জিয়াউর রহমান মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিকে মুছে ফেলার জন্য বিভিন্ন পাঁয়তারা করেছেন। এরই অংশ হিসেবে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর আত্মসমর্পণের স্থানে শিশুপার্ক নির্মাণ করেছেন। এক সময় মুক্তিযোদ্ধারা নিজেদের পরিচয় দিতে ভয় পেতেন। কিন্তু এখন মুক্তিযুদ্ধবান্ধব সরকার ক্ষমতায়। তাই মুক্তিযোদ্ধারা এখন নিজ পরিচয় দিতে গৌরববোধ করেন। কৃষিমন্ত্রী আরও বলেন, বর্তমানে নিম্ন আয়ের দেশ থেকে বেরিয়ে এসেছে বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট১ উৎক্ষেপণের মাধ্যমে নতুন যুগের সূচনা করা হয়েছে। এখন দেশকে আর পিছিয়ে নেওয়ার সুযোগ নেই। তাই দেশকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য (প্রধানমন্ত্রী) শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকারকে পুননির্র্‌বাচিত করার কোনো বিকল্প নেই। এ ব্যাপারে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।

x