মীরসরাইয়ে সড়ক উন্নয়নের কাজে ধীরগতি

মাহবুব পলাশ, মীরসরাই

বৃহস্পতিবার , ১০ অক্টোবর, ২০১৯ at ১০:৪৬ পূর্বাহ্ণ
48

মীরসরাই টু মলিয়াইশ সড়কে দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে হাজার হাজার পথচারির নিত্য দুর্ভোগ যেন লাঘবই হচ্ছে না। অবশেষে সাবেক গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপির হস্তক্ষেপে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বিশেষ উদ্যোগে উক্ত সড়কের উন্নয়ন কাজ শুরু হলেও তাতে ধীরগতির জন্য জনদুর্ভোগ কোনভাবেই লাঘব হচ্ছে না। বরং গত দুসপ্তাহ ধরে এই রুটের উন্নয়ন কাজে রাস্তা বন্ধ করার পর হাজার হাজার মানুষকে ঘুরপথে ৫ কিলোমিটার সড়ক ঘুরে নিজের বাড়ি কিংবা গন্তব্যে যেতে হচ্ছে। শীঘ্রই এই ভোগান্তির অবসান চায় এলাকাবাসী।
এই রাস্তার ভুক্তভোগী (৯ অক্টোবর) পথচারি কর্মজীবী গোলাম কিবরিয়া বলেন, মলিয়াইশ থেকে সকাল ৯টায় রওনা হয়েছি। সিএনজিতে নাজির পাড়া আসার পর গেলাম আটকে, সিএনজি ও আর চলছে না। কেউ কেউ ৫ কিলোমিটার ঘুরপথে যাচ্ছে। ভাবলাম হয়তো সামনে ভাল। কিন্তু দেখছি পুরো রাস্তাই উল্টে আছে। এরপর হেটে হেটে প্রায় আড়াই কিলোমিটার রাস্তা পাড়ি দিলাম। এসময় মহিলা আর বৃদ্ধদের অনেকের বিকল্পহীন সড়ক বলে পায়ে হেটেই প্রয়োজনীয় কাজ সারাচ্ছে। অনেক বছর প্রয়োজনীয় ব্যাগ বস্তা কেউ মাথায় না নিলে ও এই রাস্তার জন্য মাথায় নিয়ে পারাপার হচ্ছে। রাস্তার বিভিন্ন অংশে নামে মাত্র কয়েকজন শ্রমিককে টুকিটাকি মাটি নিয়ে নাড়াচাড়া করতে দেখা গেলে ও বৃহৎ অংশ পড়েই থাকতে দেখা গেছে কয়েকদিন ধরে। অথচ অধিক শ্রমিক আর দ্রুত কংক্রিট দিয়ে ঢালাই কার্যক্রম দ্রুত করলেই রাস্তাটির কাজ শীঘ্রই সারিয়ে নেয়া সম্ভব ছিল। অপর পথচারি হোসনে আরা বলেন, প্রতিদিন স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীদের এক ঘন্টা পূর্বে বাড়ি থেকে বের হতে হচ্ছে। আবার অনেকে পথে কাদার জন্য কাপড় চোপড় নষ্ট করে ফেলছে। কবে এই দুর্গতি থেকে মুক্তি পাবো আল্লাহই জানেন। এই বিষয়ে সড়কেই উন্নয়ন কাজের তদারকির দায়িত্বরত এমজিএসপির প্রকৌশলী মোস্তাফিজুর রহমান বলেন ,রাস্তাটির কাজ শুরু করেছি আমরা দেরি হয়নি। এই রাস্তার জন্য সকলেই কষ্ট করছে তা আমরা ও দেখতে পাচ্ছি। আবার ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন থেকে শুরু করে মেয়র গিয়াস উদ্দিন পর্যন্ত সকলেই তাগাদা দিয়েছেন রাস্তাটি দ্রুত করার জন্য। আমরা ও আপ্রাণ চেষ্টা করছি। কাজের শ্রমিক সংখ্যা এতো কম ও তৎপরতা এতো কম কেন জানতে চাইলে তিনি দ্রুত এর গতি আরো বৃদ্ধি করা হবে বলে জানান। কাজের ঠিকাদার নিপা এন্টারপ্রাইজ এর দায়িত্বরত প্রোপ্রাইটর নুর হোসেন বলেন, আমরা কাজ ধরেছি মাত্র ১০ দিন। প্রাকৃতিক অনুকূল পরিবেশ পাবার ও অপেক্ষা করছি। তাও দ্রুত কাজ করার চেষ্টা করছি।
মীরসরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিন বলেন, এই রাস্তাটির জন্য আমি নিজে ব্যক্তিগতভাবে দ্রুত উন্নয়ন কাজের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়েছি। কাজের গতি বৃদ্ধি নিয়ে ও ঠিকাদার ও সংস্লিষ্ট প্রকৌশলীর সাথে আমি কথা বলবো।

x