মনিরুজ্জামান-এর কবিতা

শুক্রবার , ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ at ৪:৪৭ পূর্বাহ্ণ
46

কবিদের নাম বল
কবিদের নাম বল, কবিদের নাম
হোক না সে ডান কিবা হোক বেড়ে বাম।
যদিওবা ছিল নাকো আগে ভাগাভাগি
রবীন্দ্র-নজরুলে হলে রাগারাগি-
রবীন্দ্র দিয়ে দিত আস্ত বসন্ত
নজরুল গুরুদেব বলতো প্রাণান্ত।

রাশিয়ার ঢেউ লেগে বিপ্লবী যারা
শাসক-সামন্তদের পিঠে হলো খাড়া।
সেই সাথে গড়ে তারা রবীন্দ্র বিরোধ
তিরিশের কবিতায় নিতে গেল শোধ।

সুধীন, বিষ্ণু, আর জীবনানন্দ
ঢাকার বুদ্ধদেব সকলেরই ধন্দ
‘শেষের কবিতা’ দিয়ে রবি করে মাত
এক ঢিলে তিরিশিরা হয়ে গেল কাত।

তবু তারা নিজেদের ভাগ করে ডানে
বামে যারা এলো তারা সমাজের টানে।
দীনেশ, সুভাষ আর কিশোর এক কবি
সুকান্ত ভটচার্য আঁকে দীন ছবি।

দারিদ্র্য-সম্মানে কবি নজরুল
স্বাধীনতা-শৃঙ্খলে ফোটালো সে হূল ।
টানা পোড়নের মাঝে বাম-ডান ভুলে
ব্রিটিশ হটলো শেষে বসন খুলে।….

ভাগ হলো দ্বি-জাতিতে ভাগ হলো দেশ
সাহিত্য সংস্কৃতির নব নির্দেশ-
হিন্দু-মুসলমানে দেশ হলো ভাগ,
কবিতায়ও থাকলো না সেই অনুরাগ ।

যে ভাগ হয় নি আগে বাংলা দেশে
নজরুল খণ্ডিত হলো নব বেশে।
গোলাম মোস্তফা আল-মামুদ ফরুখ
সরকারি দল হল , ধর্মেরও সুখ।
শামসুর রাহমান, মহাদেব,গুণ
তারা হল লোকে বলে ভারতীয় তূণ।
কবিদের নাম আর বলে কীবা লাভ
আমরা এখনও আছি বেহুঁশ স্বভাব ॥
ডান-বাম রয়ে গেল পেছনের সারি
বিশ্ব সারিতে যেতে করি আহাজারি ॥
নাম বল বলে শুধু খুঁজি সেই কবি
দিক ফেলে যে আঁকে জীবনের ছবি ॥

- Advertistment -