ভূমিধস ও পরিবেশ রক্ষার জন্য উপকারী বিনা খড়

কেশব কুমার বড়ুয়া, হাটহাজারী

সোমবার , ২ এপ্রিল, ২০১৮ at ৩:৩২ পূর্বাহ্ণ
84

খড় একটি নগণ্য জিনিস। এজন্য খড়কে অনেকে ফেলনা হিসাবে মনে করেন। কিন্তু খড়ের মাধ্যমে অনেক বিপর্যয় রোধ করা যায়। বিপর্যয় রোধ, ভূমিধস ও পরিবেশ রক্ষার জন্য নগণ্য এক জাতীয় খড় বিনা। বিনা খড় এক সময় গ্রামাঞ্চলের বিভিন্ন পথঘাট ও জমিতে ব্যাপক পরিমাণে জন্মাত। এ খড়ের কোন চাষাবাদের প্রয়োজন হত না। বৃষ্টির সময় স্রোতের টানে কোন স্থানে আলগা হওয়া বিনা রাস্তাঘাটে বা জমিতে আটকে গেলে সেখান থেকেই বিনা গাছ জন্মে যেত। ইদানিং আগের মত তেমন বিনা খড়ের গাছ দেখা যায় না। গ্রামাঞ্চলের নিম্ন এলাকার জমিতে বিনা খড় জমির সীমানা আইল ও হিসাবে কাজ করে। বিনা খড় মাটির ক্ষয়রোধ করে। খাল, ছরা, নদী,পুকুর,দীঘির পাড়ের ভাঙ্গন প্রতিরোধক হিসাবে কাজ করে। তাছাড়া গবাদী পশুর খাদ্যের জন্য বিনা খড় ব্যবহার করা হয়। বিনা খড় শুকিয়ে চুলার জ্বালানী হিসাবে ব্যবহার করা যায়। ঘরের ছাউনীতেও বিনা খড় লাগানো যায়। পবিবেশ বান্ধব বিনা খড় বাতাসকে দূষণ মুক্ত করে। প্রাণী জগতের শ্বাস প্রশ্বাসের জন্য অক্সিজেনও সরবরাহ করে থাকে। সম্প্রতি বিদেশী কিছু সংস্থা পাহাড় ধস প্রতিরোধে এবং মাটির ক্ষয়রোধ করার জন্য বিনা খড় লাগানোর পরীক্ষা মূলক উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। এনালগ সময়ে যখন মানুষ আর্থিকভাবে অসচ্ছল ছিল না তখন শীতকালে মানুষের বিছানোর জন্য এখনকার মত লেপ তোষকের ব্যবহার বলতে গেলে একেবারে ছিল না। সে সময় মানুষ শীত নিবারণের জন্য পাটির নিচে বিনা খড় বিছাত। যাতে শরীরে গরম অনুভব করা যায়। তবে এখন মানুষ আর্থিকভাবে অনেক সচ্ছল হয়েছে। তাই পাটির নিচে বিনা খড় বিছানোর প্রয়োজন হয় না। উন্নত মানের ফোম অথবা তুলা দিয়ে তোষক তৈরি করে বিছানা পেতে ঘুমায়। আগেকার দিনে বর্ষা কালে জ্বালানী সংকট নিরসনের জন্য বিনা খড় সংরক্ষণ করে রাখা হত। বর্তমান সময়ের নতুন প্রজন্ম হয়তো বিনা খড় কেউ চিনবে না। পরিবেশ রক্ষা ও মাটির ক্ষয় রোধের জন্য বিনা খড়ের গুরুত্ব অপরিসীম।

x