ভুটানকে হারিয়ে সাফ মিশন শুরু বাংলাদেশের কিশোরদের

স্পোর্টস ডেস্ক

শনিবার , ২৪ আগস্ট, ২০১৯ at ১১:১৭ পূর্বাহ্ণ
18

কিশোর কিংবা বয়স ভিত্তিক ফুটবলে সাফ অঞ্চলে সেরা বাংলাদেল । অনূর্ধ্ব-১৫ সচ সব বয়স ভিত্তিক ফুটবলে বাংলাদেশের সাথে সহজে কেউ পেরে উঠেনা। যেমনটি পেরে উটেনি গতকাল ভুটানও। গেল বছর পাকিস্তানকে হারিয়ে মেহেদী-উচ্ছ্বাসদের হাত ধরে সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা দ্বিতীয়বারের মতো ঘরে তুলেছিল বাংলাদেশ। সেই শিরোপা ধরে রাখার মিশনে গতকাল ভারতের মাঠে নেমেই বড় জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশের কিশোররা। ভারতে চলতি সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম ম্যাচে শ্রীলংকানদের কাছে হারা ভুটানকে ৫-২ ব্যবধানে গোলবন্যায় ভাসিয়েছে বাংলাদেশের যুবারা। বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের তত্ত্বাবধানে ফোর্টিজ গ্রাউন্ডে বাফুফের একাডেমিতে প্রশিক্ষণ নিচ্ছে এই ফুটবলাররা। জাতীয় যুব কোচ হিসেবে রবার্ট মার্টিন রাইলসের অধীনে নিজেদের প্রস্তুত করেছে রাব্বি-পিয়াসরা। সেটার প্রতিফলন পাওয়া গেল মাঠেও।
সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম ম্যাচেই ভুটানকে উড়িয়ে দিয়ে শুরু করলো শিরোপা ধরে রাখার মিশন। টুর্নামেন্টের আগে কলকাতায় পৌঁছে গত বুধবার শহরের ক্লাব ইউনাইটেড স্পোর্টস ক্লাবের সঙ্গে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছিল লাল-সবুজ জার্সি-ধারী কিশোররা। সেই ম্যাচ জিতে বাড়তি আত্মবিশ্বাস নিয়ে গতকাল শুক্রবার নিজেদের প্রথম ম্যাচে ভুটানকে বিধ্বস্ত করেছে লাল-সবুজ যুবারা। ভারতের কল্যাণী স্টেডিয়ামে দুপুরে শুরু হয় ম্যাচটি। রেফারির বাঁশির পর থেকে যেন তেতে উঠে মিরাদ-আলামিনরা। আর সে সুযোগে খেলার ১৫ মিনিটে আল মিরাদের গোলে বাংলাদেশের গোলযাত্রা শুরু। অবশ্য ২১ মিনিটে সমতা ফেরায় ভুটান। তবে সেটা বাংলাদেশের গোলরক্ষকের ভুলে । দ্রুতই গোল হজম করলেও ব্যবধান বাড়াতেও দেরি করেনি রাকিবরা। আল আমিনের গোলে আবার লিড নেয় বাংলাদেশ। কিন্তু সে গোলও ধরে রাখতে পারেনি বাংলাদেশের কিশোররা। এবারও গোলরক্ষক সাব্বির গাজী শিশুসুলভ ভুলে সমতা ফিরিয়ে আনে ভুটান। গোলকিক দেয়ার সময় সাব্বির বলটা ডি বঙের একটু বাইরে চোজাংয়ের পায়ে দিয়ে দিলে ব্যবধান সমতা করে ভুটান।
তবে থেমে থাকেনি দেশের যুবারা। প্রথমার্ধেই শুভ সরকারের গোলে ৩-২ গোলের লিড নিয়ে বিরতিতে যায় বাংলাদেশ। দ্বিতীয়ার্ধে এসে বলতে গেলে কোন সুযোগ পায়নি ভুটান। আক্রমণভাগে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদেরই দাপট। একের পর এক আক্রমণে তটস্থ করে রাখলেও চতুর্থ গোলটি পেতে বাংলাদেশকে অপেক্ষা করতে হয় ৮০ মিনিট পর্যন্ত। খেলার ৮০ মিনিটে নিজের দ্বিতীয় এবং দলের চতুর্থ গোলটি করেন মিরাদ। ততক্ষনে জয়ের বন্দরে পৌছে যায় বাংলাদেশ। ম্যাচ যখন অতিরিক্ত সময় পেরিয়ে শেষ বাঁশির অপেক্ষায় তখন ব্যবধান ৫-২ করেন বদলি হিসেবে মাঠে নামা ইমন ইসলাম বাবু। এ জয়ের ফলে বড় আশ্বাস নিয়ে শুরু করলো বাংলাদেশ। এবারের এই টুর্নামেন্টে অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল, ভুটান ও শ্রীলংকার কিশোর ফুটবলাররা। লিগ ভিত্তিতে হবে এই টুর্নামেন্ট। ২১ আগস্ট থেকে শুরু হওয়া টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচে নেপালকে ৫-০ ব্যবধানে উড়িয়ে মিশন শুরু করেছে স্বাগতিক ভারত। অন্যদিকে ভুটানকে হারিয়েছে লংকান যুবারা। বাংলাদেশের পরের তিন ম্যাচ আগামী ২৫ আগস্ট শ্রীলংকার বিপক্ষে, ২৭ আগস্ট নেপালের বিপক্ষে এবং ২৯ আগস্ট শেষ ম্যাচে স্বাগতিক ভারতের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৫ ফুটবল দল।
এই টুর্নামেন্টের প্রধান কোচ ছিলেন বাফুফে একাডেমির ইংলিশ কোচ রবার্ট মার্টিন। কিন্তু অসুস্থ হয়ে পড়ায় তিনি দলের সঙ্গে যেতে পারেননি। প্রধান কোচের দায়িত্ব নিয়ে বৃহস্পতিবার রাতে ভারতে পৌঁছেন মোস্তফা আনোয়ার পারভেজ বাবু। এই কোচের অধীনেই গত বছর টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল বাংলাদেশ। ম্যাচ শেষে দলের কোচ বলেছেন, এখানে প্রচন্ড গরম। এই গরমে বাচ্চাদের খেলা কেন হবে বুঝতে পারছি না। ছেলেদের খুব কষ্ট হয়েছে এই গরমে খেলতে। এত গরমে খেলা স্বাভাবিক পারফরম্যান্স করা খুবই কঠিন। ওরা চেষ্টা করেছে মানিয়ে নিতে। কিন্তু কিছু খেলোয়াড় পানিশূন্যতায় ভুগেছে। আশা করি পরবর্তীতে এগুলো কাটিয়ে উঠবে। জয়টাকে মুখ্য উল্লেখ করে পারভেজ বাবু বলেন, যে কোনো দলের কাছে জয়টাই মুখ্যা। আর সে ব্যবধান যদি হয় ৫-২ সেটা খুব ভালো। প্রথম ম্যাচ, ছেলেরা চেষ্টা করেছে সাধ্যমতো সর্বোচ্চ দিয়ে খেলার। গোল না খেলে ফলটা আরো ভালো হতো। গোলকিপারের ভুলে একটা এবং আরেকটা গোল ডিফেন্সের ভুলে হয়েছে। আমরা সামনে এটা নিয়ে আরও কাজ করবো। আমাদের জয়ের ধারা অব্যাহত রাখার চেষ্টা করবো। জোড়া গোল করা আল মিরাত বলেছেন, আমাদের কোচ যেভাবে নির্দেশনা দিয়েছেন সেভাবে খেলেছি। আর কোনো গোল হজম করা যাবে না। প্রথম ম্যাচে দুই গোল করেছি। ভালো লেগেছে। আশা করি পরের ম্যাচেও গোল করতে পারবো।

x