ভালো লাগার অনুষ্ঠান

‘তোমার পায়ের পাতা-সবখানে পাতা’

আয়শা আদৃতা

বৃহস্পতিবার , ৯ আগস্ট, ২০১৮ at ৫:২৯ পূর্বাহ্ণ
6

প্রথমেই ধন্যবাদ দিয়ে শুরু করতে চাই। গত সপ্তাহের আলোচনায় সংবাদ শিরোনাম দেরিতে এবং অনিয়মিত প্রচারের বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করা হয়েছিল। এরপর থেকে এখন সম্প্রচার শুরু হওয়ার সাথে সাথে আলাদা স্ক্রলে দিনের সংবাদ শিরোনাম প্রচারিত হচ্ছে। জরুরি ঘোষণা প্রচারিত হচ্ছে পৃথক স্ক্রলে। বিষয়টি অনুধাবন করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ। এতে করে একজন দর্শক যে কোনো সময়ই বিটিভি চট্টগ্রাম কেন্দ্র চালু করুক না কেন, সংবাদ শিরোনামে তাঁর দৃষ্টি নিবদ্ধ হবে। সাথে আরো একটি পরামর্শ যোগ করতে চাই, এখন যেহেতু দুই লাইনে শিরোনাম এবং ঘোষণা প্রচারিত হচ্ছে, এর ফলে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে শিল্পীদের নাম নিচে থাকার কারণে দেখা যাচ্ছেনা। নতুন অনুষ্ঠান নির্মাণের ক্ষেত্রে নির্মাতাদের এ বিষয়টির প্রতিও নজর রাখতে হবে।

গত ৬ আগস্ট পালিত হল কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রয়াণবার্ষিকী। ২২শে শ্রাবণকে ঘিরে সোম এবং মঙ্গলবার বেশ কয়েকটি অনুষ্ঠান প্রচারিত হয়েছে। কিছু অনুষ্ঠান গতানুগতিক কিছু অনুষ্ঠান ব্যতিক্রম। তেমনই একটা অনুষ্ঠান ‘তোমার পায়ের পাতাসবখানে পাতা’। সোমবার সন্ধ্যায় প্রচারিত অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন সনজীব বড়ুয়া। ভাবগাম্ভীর্য কিন্তু সাবলীল উপস্থাপনায় দর্শকদের সামনে রবীন্দ্রনাথের গান, নাটক, ছোটগল্প নিয়ে দারুনভাবে আলোকপাত করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে গান গেয়ে শুনিয়েছেন দুজন, কাবেরি সেনগুপ্তা ও প্রদীপ কুমার দাশ। গানের আগে তার বিষয়বস্তু নিয়ে আলোচনাও করেছেন দুই শিল্পী। একইভাবে আবৃত্তি করেছেন দুজন, পলি ঘোষ ও সনজয় পাল। রবীন্দ্রনাথের কবিতা থেকে শ্রুতিকাব্য আবৃত্তি করে শুনিয়েছেন দুই বাচিক শিল্পী। ‘মালঞ্চের মালাকার’ শিরোনামে বেশ শ্রুতিমধুর পরিবেশন করেছেন তারা। রানীকে ভৃত্যের প্রেম নিবেদনের বিষয়টি দারুণভাবে তুলে ধরেছেন রবীন্দ্রনাথ। রবীন্দ্রনাথের গান ‘আগুনের পরশমনি ছোঁয়াও প্রাণে’ এর সাথে নেচেছেন রাজেশ ও রাজশ্রী। সংক্ষেপে রবীন্দ্রনাথের ওপর আলোচনা তুলে ধরেন কবি, সাংবাদিক অরুণ দাশগুপ্ত। তিনি অল্প সময়ের মধ্যে রবীন্দ্রনাথের লেখালেখি, জমিদারি জীবন আর শান্তি নিকেতনের বিষয়টি নিয়ে সুন্দর আলোচনা করেন। অনুষ্ঠানের সবচেয়ে উপভোগ্য বিষয় ছিল, পুরো অনুষ্ঠানজুড়ে সব শিল্পীদের একইসাথে উপস্থিতি। অনুষ্ঠানের ধারাবাহিকতায় বেশ বুদ্ধির পরিচয় দিয়েছেন পরিচালক। ব্যাকস্টেজেও এনেছেন বৈচিত্র্য। সবমিলিয়ে অনেকদিন পর একটা ভালোমানের অনুষ্ঠান উপহার পেল দর্শকরা। কিন্ত্র এ ভালোলাগাকে বেশিক্ষণ স্থায়ী হতে দেয়নি রবীন্দ্রসঙ্গীতের অনুষ্ঠান গীতিমাল্য।

সিনিয়র শিল্পীদের প্রাণহীন পরিবেশনা শুনে মনে হয়নি, গানের প্রতি কিংবা রবীন্দ্রনাথের গানের কথাগুলোর প্রতি তাঁদের কোনো দরদ ছিল। এ অনুষ্ঠানটি শুধুমাত্র রবীন্দ্রনাথের প্রয়াণবার্ষিকী উপলক্ষে প্রচারিত হয়েছে তাই নয়, এটি বিটিভি চট্টগ্রাম কেন্দ্রের নিয়মিত অনুষ্ঠান। প্রতিসপ্তাহেই এ অনুষ্ঠান প্রাণহীনভাবে প্রচারিত হয়। অনুষ্ঠান নিয়ে শিল্পী এবং নির্মাতাদের আন্তরিকতা প্রশ্নবিদ্ধ।

শোকের মাস আগস্ট উপলক্ষে কিছু দুর্লভ ভিডিও ক্লিপ প্রচার করা হচ্ছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জাতিসংঘে বাংলায় ভাষণ প্রদান, সপরিবারে বিটিভি রামপুরা স্টুডিও পরিদর্শন, ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণ, এসব নতুন প্রজন্মের জন্য বেশ উদ্দীপনামূলক। সেসব ঐতিহাসিক মুহূর্ত যাদের দেখার সৌভাগ্য হয়নি তারা আগস্ট মাসে প্রচারিত এসব ভিডিও ক্লিপগুলো দেখার সুযোগ পাবেন।

x