ভারতে ৫ বুদ্ধিজীবীকে গৃহবন্দী রাখার সময় বাড়ালো সুপ্রিম কোর্ট

বৃহস্পতিবার , ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ at ৯:১৯ পূর্বাহ্ণ
12

ভারতে ৫ বুদ্ধিজীবী ও মানবাধিকারকর্মীকে গৃহবন্দী রাখার সময় সেপ্টেম্বরের ১৭ তারিখ পর্যন্ত বাড়িয়েছে দেশটির সর্বোচ্চ আদালত। সেদিন তাদের মুক্তি চেয়ে করা একটি পিটিশনের শুনানি অনুষ্ঠিত হবে। এই গ্রেপ্তারের বিষয়টি চ্যালেঞ্জ করে পিটিশন দায়ের করেছিলেন ইতিহাসবিদ রমিলা থাপারসহ পাঁচজন। প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার ষড়যন্ত্রে যোগ এবং মাওবাদীঘনিষ্ঠতার অভিযোগে গত ২৮ আগস্ট পাঁচ সমাজকর্মীকে গ্রেপ্তার করে পুনে পুলিশ। তারা হলেনসাংবাদিক ও রাজনৈতিক কর্মী গৌতম নওলাখা, ট্রেড ইউনিয়ন নেতা সুধা ভরদ্বাজ, বামপন্থী কবি ভারাভারা রাও, মানবাধিকার বিষয়ক আইনজীবী ভার্নন গঞ্জালভেস এবং লেখক ও আইনজীবী অরুণ ফেরেরা। ভারতের রাজনৈতিক মহলে তারা প্রত্যেকেই সুপরিচিত। তাদের মধ্যে কয়েকজনকে এর আগেও গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। এ নিয়ে ভারতজুড়ে তীব্র সমালোচনার মুখে হস্তক্ষেপ করেন দেশটির সর্বোচ্চ আদালত। গ্রেপ্তারের পরের দিন ভারতের সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ দেন, এই ৫ জন বামপন্থী বুদ্ধিজীবীকে পুলিশ হেফাজতে নয় বরং বাড়িতে নজরবন্দী রাখতে হবে।

তাদের সবাইকে ‘আনলফুল অ্যাক্টিভিটিজ প্রিভেনশন অ্যাক্ট’এর (ইউএপিএ) আওতায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সন্ত্রাসবাদীদের মোকাবিলায় তৈরি এই আইনে দিনের পর দিন বিনা বিচারে আটক রাখা যেতে পারে।

x