ব্রাজিলের জয়ে আবারও নেইমারের গোল

স্পোর্টস ডেস্ক

সোমবার , ১১ জুন, ২০১৮ at ১০:১৫ পূর্বাহ্ণ
52

বিশ্বকাপের আগে শেষ ম্যাচে উড়ন্ত জয় পেল ব্রাজিল, যাতে গোল করেছেন নেইমার। রবিবার ভিয়েনায় অস্ট্রিয়াকে ৩০ গোলে হারাল পাঁচবারের বিশ্ব সেরারা। আগামী ১৭ জুন সুইজারল্যান্ডের মুখোমুখি হওয়ার আগে ক্রোয়েশিয়া ও অস্ট্রিয়ার বিপক্ষে জয় আরও আত্মবিশ্বাসী করে তুলেছে বিশ্বকাপের অন্যতম ফেভারিটদের। অস্ট্রিয়া এবারের বিশ্বকাপে সুযোগ না পেলেও ব্রাজিলের জন্য কঠিন পরীক্ষা ছিল। কারণ গত ৭ ম্যাচে টানা জিতেছে ইউরোপের দেশটি, যার মধ্যে গতবারের চ্যাম্পিয়ন জার্মানিকে হারিয়েছে ২১ গোলে। এই কঠিন পরীক্ষায় শুরু থেকে মাঠে ছিলেন নেইমার। তার সঙ্গে উইলিয়ান ও গাব্রিয়েল হেসুসকে নিয়ে গড়া আক্রমণভাগ প্রথম মিনিট থেকে তটস্থ করে রাখে স্বাগতিকদের। ফেব্রুয়ারিতে চোটে পড়ার পর প্রথমবার একাদশে সুযোগ পান নেইমার। কিন্তু মাত্র ৩ মিনিটে অস্ট্রিয়ার অধিনায়কের কঠিন চ্যালেঞ্জে মাঠে পড়ে গেলে ব্রাজিলিয়ান ভক্তদের মধ্যে শঙ্কা তৈরি হয়। অবশ্য ঠিক উঠে দাঁড়ান তিনি এবং বিরতির পর গোল করে সবাইকে স্বস্তি দেন।

শক্তিশালী ব্রাজিল গোল করার প্রথম সুযোগ তৈরি করে ৮ মিনিটে। কাসেমিরোর ২৫ গজ দূর থেকে নেওয়া শট জালের পাশ দিয়ে চলে যায়। নেইমার প্রথম সুযোগ পান ১৮ মিনিটে। অস্ট্রিয়া বল বিপদমুক্ত করতে ব্যর্থ হলে ২৫ গজ দূর থেকে জোরালো শট নেন পিএসজি স্ট্রাইকার। কিন্তু স্বাগতিক গোলরক্ষক লিন্ডনারের কাছে বল চলে যায় অনায়াসে। তিন মিনিট পর ব্রাজিলের ডিফেন্ডার থিয়াগো সিলভা প্রতিহত করেন অস্ট্রিয়ার একটি প্রচেষ্টা। তারপর মুহুর্মুহু আক্রমণ চালায় অতিথি দল। লিন্ডনার ২৫ মিনিটে ব্যর্থ করেন ফিলিপ্পে কৌতিনিয়োকে। ৩৪ মিনিটে থিয়াগোর হেড চলে যায় গোলবারের পাশ দিয়ে। পরের মিনিটেই পাউলিনিয়োর শট পা দিয়ে কোনোভাবে মাঠের বাইরে পাঠান। ওই কর্নার থেকে ব্রাজিল গোলমুখ খোলার সুযোগ পায়।

৩৬ মিনিটে কর্নার কিক থেকে বল পেয়ে মার্সেলো বক্সের বাইরে থেকে ক্রস দেন হেসুসকে। ম্যানসিটি তারকা কোনাকুনি শটে ১০ করেন। বিরতির ৪ মিনিট আগে লিন্ডনার ব্যবধান দ্বিগুণ করতে দেননি কৌতিনিয়োকে। বার্সেলোনার এই তারকা ৬২ মিনিটে আবারও বাধা পান অস্ট্রিয়ান গোলরক্ষকের কাছে। অবশ্য ৬৯ মিনিটে ফিরমিনোর সঙ্গে ওয়ানটু পাসে কৌতিনিয়ো পেয়ে যান আকাঙিক্ষত গোল।

তার আগে ৬৩ মিনিটে উইলিয়ানের অ্যাসিস্টে টানা দ্বিতীয় ম্যাচ গোল করেন নেইমার। ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে বদলি নেমে আগের ম্যাচে লক্ষ্যভেদ করেছিলেন বিশ্বের সবচেয়ে দামি এই ফুটবলার। ৮৪ মিনিটে দগলাস কস্তার বদলি হয়ে মাঠ ছাড়েন নেইমার। গোলের ব্যবধান আরও বড় হতে পারতো। তবে ৮১ মিনিটে ফিরমিনো ও ৯০ মিনিটে কস্তাকে ব্যর্থ করে দিয়ে অস্ট্রিয়ার হারের ব্যবধান আর বাড়াতে দেননি লিন্ডনার।

x