বোধনের পঞ্চাশতম আবর্তনের জাগো সুন্দর

বিপ্লব কুমার শীল

বৃহস্পতিবার , ৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ at ১০:৩৪ পূর্বাহ্ণ
33

“প্রোজ্জ্বল পঞ্চাশ”… এই শব্দাবলীতে বোধন আবৃত্তি স্কুলের পঞ্চাশতম আবর্তনের নাম করা হয়েছে। আর এই প্রোজ্জ্বল পঞ্চাশ আবর্তনের প্রশিক্ষণার্থীদের অংশগ্রহণে গত ১১ জানুয়ারি নগরীর জেলা শিল্পকলা একাডেমীর, চট্টগ্রাম এর গ্যালারী হলে অনুষ্ঠিত হয়েছে বোধন আবৃত্তি স্কুলের নিয়মিত আয়োজন ‘জাগো সুন্দর’। দীর্ঘ ছয়মাসের প্রশিক্ষণ পরিক্রমায় প্রশিক্ষণার্থীরা আবৃত্তি সংশ্লিষ্ট বিষয়ের লব্ধ প্রশিক্ষণের ব্যাপ্তি কতটুকু নিজেদের মধ্যে ছড়িয়ে দিয়েছে তা জানাতেই এ আয়োজন। এবারের এ আয়োজন উৎসর্গ করা হয়েছে বরেণ্য আবৃত্তিশিল্পী ও বোধন আবৃত্তি স্কুলের সাবেক অধ্যক্ষ রণজিৎ রক্ষিতকে। ফুলেল সজ্জায় ও দীপ জ্বেলে তাঁকে মঞ্চের সঙ্গী করা হয়। আর অনুষ্ঠানের শুরুতেই তাঁর স্মরণে এক মিনিটের নীরবতা। এরপর রবিঠাকুরের ” অন্তর মম বিকশিত করো” কবিতায় সম্মিলিত কন্ঠে শিক্ষার্থীদের পরিবেশনা। এরপর একে একে প্রশিক্ষণার্থী রাসু বড়ুয়া, তাজউদ্দীন খান, প্রিয়ম দাশ, সাইদুল আনোয়ার, পুষ্পিতা বিশ্বাস, শোভা বেগম, নাহিদা আকতার নূপুর, অনুপমা দাশ, পুনম লালা তিশা, জান্নাতুল রুকাইয়া, শতাব্দী বিশ্বাস, জাহানারা বেগম, দীপিকা চৌধুরী, পূর্ণা দাশ আবৃত্তি পরিবেশন করে। মাঝে কথামালায় অংশ নেন বোধন আবৃত্তি পরিষদ চট্টগ্রাম এর সাধারণ সম্পাদক এস. এম. আব্দুল আজিজ, সাংগঠনিক সম্পাদক সুবর্ণা চৌধুরী ও স্কুল বিষয়ক প্রশিক্ষণ সম্পাদক সঞ্জয় পাল। এরপর আবারো আবৃত্তি। এবার তুর্ণা দাশগুপ্তা রবিঠাকুরের জন্মভূমি, বিজয় চৌধুরী সৈয়দ শামসুল হকের আমার পরিচয় কবিতার মাধ্যমে নিজেকে মেলে ধরেন। তবে শামসুর রাহমানের রৌদ্রে লেখা জয়, তুমি বলেছিলে, এ লাশ আমরা রাখবো কোথায় ও যুদ্ধ জয়ের কথা কবিতায় দেশজ বার্তা তুলে ধরেন- দ্রাঘিমা বড়ুয়া, মো. হেলাল, ফাহমিদা আক্তার এবং শ্যামা চক্রবর্তী। এরই মধ্যে জাগো সুন্দর, আরো সুন্দরতর হতে থাকে। দেবাশীষ বড়ুয়া দেবু, সৌরভ কান্তি নাথ ও পল্লবী দস্তিদার তাদের আবৃত্তি কন্ঠের দৃঢ়তা প্রকাশ করেন। এরপর অপৃতি করেন বিজয় চৌধুরী, ইসরাত জাহান ইশা, পুনম শীল, শংকর প্রসাদ নাথ, সুচয়ন সেনগুপ্তা, সুকান্তা দেবী, ইফফাত ফাইরুজ ইফা। অনুষ্ঠানে স্বরের স্পষ্টতা ও কবিতার ভাবরস বুঝে কবিতা নির্মাণে ধ্বনির ব্যবহারে আরো সচেতন হওয়ার তাগিদ দেন আবৃত্তিশিল্পী সোহেল আনোয়ার। এ সময় তিনি পুরো আয়োজনের বিশদ মূল্যায়নে প্রশিক্ষণার্থীদের আবৃত্তিতে জাগো সুন্দরের উপলব্ধি তুলে ধরেন। তিনি এ পরিসরকে প্রশিক্ষণার্থীদের জীবনের মাইলফলকে ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে বলে মনে করেন। এ আয়োজনের সঞ্চালনায় ছিলেন সাজ্জাদ চৌধুরী ও উর্মী দেবী। আরও আবৃত্তি করেন প্রশিক্ষণার্থী সাগর কান্তি নাথ, তুষার ভট্টাচার্য্য, রাসেল রহমান, বিউটি আকতার, জুঁই দাশ, মুহাম্মদ মিসবাহ উদ্দিন খান, শেখ মুহাম্মদ শাহাবুদ্দিন, প্রান্তিকা ভৌমিক, মুহাম্মদ মনছুর আলম, পূরবী দাশ, বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী, দিব্য বড়ুয়া ও মোহাম্মদ গোলামুন্নবী ইরফান। প্রোজ্জ্বল পঞ্চাশতম আবর্তনের প্রশিক্ষণার্থীরা জাগো সুন্দরের মাধ্যমে তাদের মননকে সৃজন প্রকাশের রূপরেখায় পৌঁছে দিতে পারবে বলেই আশা সবার।

x