বিলাসবহুল সেই ২২ গাড়ির নিলাম আজ

আজাদী প্রতিবেদন

মঙ্গলবার , ১৬ এপ্রিল, ২০১৯ at ৬:৩৪ পূর্বাহ্ণ
2121

কার্নেট বা পর্যটন সুবিধায় আমদানিকৃত বিলাসবহুল ২২ গাড়ির নিলাম আজ। বেলা আড়াইটায় নিলাম সংশ্লিষ্টদের সামনে দরপত্রের বাক্স খোলা হবে বলে জানান কাস্টমসের নিলাম শাখার কর্মকর্তারা।
কর্মকর্তারা জানান, এর আগেও তিনবার বিলাসবহুল গাড়ির নিলাম অনুষ্ঠিত হলেও এসব গাড়ির প্রাপ্য দাম না উঠার কারণে বিক্রি করা সম্ভব হয়নি। এছাড়া ৫ বছরের পুরনো সামগ্রী খালাসের ক্ষেত্রে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে ক্লিয়ারেন্স পারমিট (সিপি) নিতে হয়। ইতোমধ্যে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়কে সিপি দেয়ার অনুরোধ জানিয়ে গত মাসে চিঠি পাঠিয়েছে কাস্টমস। তবে আগের তিনবার ব্যক্তিগত উদ্যোগে সিপি নেয়ার বিধান রাখা হয়। এবার সিপি প্রাপ্তিতে কাস্টমস সহায়তা করবেন বলে জানা গেছে।
উল্লেখ্য, নিলামের অপেক্ষায় থাকা বিলাসবহুল ২২ গাড়ির মধ্যে রয়েছে বিএমডব্লিই, মার্সিডিজ বেঞ্জ, ল্যান্ড ক্রুইজার, জাগুয়ার, মিতসুবিশি, টয়োটা, লেঙাস এবং জিপ। এসব গাড়ি জার্মানি, জাপান, যুক্তরাষ্ট্র এবং যুক্তরাজ্যের তৈরি।
এর আগে প্রথম দফায় গত ২০১৬ সালের আগস্টে ৮৫টি, দ্বিতীয়বার ২০১৭ সালের মে মাসে ১১৩টি এবং সর্বশেষ গত বছরের ৩০ মে ১১১টি গাড়ি নিলামে তোলা হয়। কিন্তু প্রতিবারই নিলামের দামে অসামঞ্জস্য থাকায় দরদাতাদের কাছে বিক্রি করা সম্ভব হয়নি। গাড়িগুলো গত ২০১১ সাল থেকে চট্টগ্রাম বন্দরে আটকা পড়ে আছে।
চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসের কমিশনার কাজী মোস্তাফিজুর রহমান দৈনিক আজাদীকে বলেন, বিগত তিনবার গাড়ির দর না উঠার কারণে বিক্রির অনুমোদন দেয়া সম্ভব হয়নি। তবে যেহেতু এসব বিলাস বহুল গাড়ি পাঁচ বছরের পুরনো তাই নিয়ম মতে গাড়ি বন্দর থেকে খালাসের আগে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে প্রয়োজনীয় ছাড়পত্র (ক্লিয়ারেন্স পারমিট) নিতে হয়, তাই ইতোমধ্যে বাণিজ্যমন্ত্রণালয়ে সচিব বরাবার সর্বোচ্চ দরদাতাকে সিপি দেয়ার অনুরোধ জানিয়ে চিঠি দেয়া হয়েছে। নিলামে যারা গাড়ি কেনার যোগ্যতা অর্জন করবেন তাদেরকে সিপি পেতে আমরা সহায়তা করবো।
প্রসঙ্গত, এর আগে ৮ এপ্রিল থেকে গতকাল ১৫ এপ্রিল অফিস চলাকালীন সময় এবং আজ ১৬ এপ্রিল দুপুর দুইটা পর্যন্ত দরপত্র জমা দেয়ার সময় বেঁধে দেয় কাস্টমস। দরপত্র জমা দেয়া যাবে রাজস্ব কর্মকর্তা (প্রশাসন) চট্টগ্রাম কাস্টম হাউস, জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চট্টগ্রাম, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড ঢাকা, সহকারী/ডেপুটি শুল্ক আবগারি ও ভ্যাট কমিশনারেট-ঢাকা, কমলাপুর আইসিডি, শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর ঢাকা, নিরীক্ষা গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর ঢাকা, কাস্টমস এঙাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট ঢাকা (উত্তর, পূর্ব ও পশ্চিম) এবং সিলেট, খুলনা, যশোর, রাজশাহী, রংপুর, ময়মনসিংহ এবং বরিশাল। পরবর্তীতে বেলা আড়াইটার দিকে সবার উপস্থিতিতে বাঙ খোলা হবে।

x