বিলাইছড়িতে পাহাড়ি ছড়ায় দেখা মিলছে না মাছের

কাপ্তাই প্রতিনিধি

শনিবার , ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ at ৪:৪০ পূর্বাহ্ণ
11

রাঙ্গামাটি জেলার বিলাইছড়ি উপজেলার ফারুয়া ইউনিয়নের দুর্গম পাহাড়ি ছড়ায় মাছের সন্ধ্যানে বিভিন্ন স্থানে জাল ফেলছেন স্থানীয় জেলেরা। ছড়ার এ প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে ঘুরে ঘুরে জাল ফেলেও কাঙ্ক্ষিত মাছ পাওয়া যাচ্ছেনা। জেলেরা জানান, ফারুয়া ইউনিয়নের ডলুপাড়া ছড়ায় আগে অনেক মাছ পাওয়া যেত। জাল ফেললেই চিংড়ি, টেংরা, পুটি, বাইলা, টাকি ইত্যাদি ছোটবড় মাছ জাল উঠে আসতো। মাছের পাশাপাশি অনেক কাঁকড়াও ছড়ায় পাওয়া যেত। ছড়া থেকে মাছ ধরে সেই মাছ স্থানীয় বাজারে বিক্রি করে যে টাকা পাওয়া যেত তা দিয়ে সংসারের প্রয়োজনীয় কেনাকাটা করা হতো। আগে ছড়া থেকে মাছ ধরে নিজেরাও যেমন মাছ খেতে পারতাম তেমনি মাছ বিক্রির টাকায় সাংসারিক অন্যান্য খরচ মেটাতাম। তবে বর্তমানে ছড়ায় মাছের দেখা মিলছেনা। জাল ফেলেও মাছ পাওয়া যাচ্ছেনা। জেলেরা বলেন, এখন ছড়ায় ভরপুর পানি রয়েছে। এখনই ছড়ায় পর্যাপ্ত মাছ পাওয়ার কথা। কিন্তু আমরা হতাশ হয়ে ঘরে ফিরে আসছি। ৩নং ফারুয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বিদ্যালাল তনচংগ্যা পাহাড়ি ছড়ায় এখন মাছ কম পাওয়ার কথা স্বীকার করেন। তিনি বলেন, আগে এসব পাহাড়ি ছড়ায় প্রচুর ছোট মাছ পাওয়া যেত। কিন্তু বর্তমানে সেরকম মাছ পাওয়া যাচ্ছেনা। মাছ কম পাওয়ায় জেলেদের সমস্যা হচ্ছে বলেও তিনি জানান। ছড়ায় মাছ কমে গেছে কেন জানতে চাইলে বিলাইছড়ির সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান জয়সেন তনচংগ্যা বলেন, দিনের পর দিন নির্বিচারে ছড়া থেকে মাছ ধরার ফলে বিশেষ করে ডিমওয়ালা মাছ শিকারের ফলে মাছের বংশ বিস্তার কমে গেছে। তাছাড়া মাছ ধরার জন্য মাছের বিচরণ ক্ষেত্রে এমন কিছু জাল বসানো হয় যেসব জালের ফাঁক দিয়ে একটি মাছের পোনাও বেরিয়ে যাবার সুযোগ পায়না। এতে করে মাছ বড় হতে পারছেনা এবং মাছের বংশও বৃদ্ধি হচ্ছেনা। ছোট মাছ বড় হবার সুযোগ দিলে এবং ডিমওয়ালা মাছ ধরা থেকে বিরত থাকলে পাহাড়ি ছড়া গুলো আবার আগের মত ছোটবড় মাছে পরিপূর্ণ হয়ে উঠবে বলেও তিনি আশা প্রকাশ করেন।

x