বিভিন্ন স্থানে মহালয়া উদযাপন

বুধবার , ১০ অক্টোবর, ২০১৮ at ১০:৪৯ পূর্বাহ্ণ
16

চন্দ্রনাথ ধাম

সীতাকুণ্ড প্রতিনিধি জানান, চন্ডিপাঠের মধ্য দিয়ে সীতাকুণ্ড চন্দ্রনাথ ধামে মহালয়া গত ৮ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হয়। সীতাকুণ্ড পৌর পূজা উদযাপন পরিষদ আয়োজিত পূণ্যতীর্থ ব্যাসকুণ্ডে সকাল থেকে বিভিন্ন কর্মসূচির আয়োজন করে। চন্ডিপাঠ, পুজা, অঞ্জলি প্রদান, আলোচনা সভা ও প্রসাদ বিতরণ করা হয়।
সংগঠনের সভাপতি গৌতম অধিকারীর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক সেতু দাশের পরিচালনায় মহালয়া অনুষ্ঠানে সূচনা বক্তব্য দেন অনুষ্ঠানের সমন্বয়কারী নিতাই দে রিপন। প্রধান অতিথি ছিলেন, সীতাকুণ্ড পৌর মেয়র মো. বদিউল আলম। বক্তব্য দেন রাজনীতিবিদ মোস্তফা কামাল চৌধুরী, পৌরসভার প্যানেল মেয়র হারাধন চৌধুরী বাবু, কাউন্সিলর দিদারুল আলম এপেলো, পৌর ইঞ্জিনিয়ার নুরুন নবী, সংগঠনের সহ সভাপতি অমর শীল প্রমুখ। দিনব্যাপী চন্ডি পাঠ করেন চন্দনাইশ শান্তি নিকেতন গীতাশ্রমের অধ্যক্ষ স্বামী শংকরানন্দ ব্রম্মচারী মহারাজ। এছাড়া হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন পূণ্যতীর্থ ব্যাসকুণ্ডে সকাল থেকে পিতৃপক্ষে বিদেহী কামনার্থে তর্পন ও শ্রাদ্ধানুষ্ঠান সম্পন্ন করে।

ভুজপুর পূজা উদযাপন পরিষদ

মহালয়া উপলক্ষে গত ৮ অক্টোবর ভুজপুরস্থ কাজিরহাট হরি, কালী ও দুর্গাপূজা মন্দির প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হয়েছে। ভুজপুর পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা বাবুল কান্তি দের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উদ্বোধক ছিলেন ফটিকছড়ি উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট উত্তম কুমার মহাজন।
প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রামের এসএনডি মজুমদার ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান দিলীপ মজুমদার। প্রধান ধর্মীয় বক্তা ছিলেন অধ্যাপক স্বদেশ চক্রবর্তী। বিশেষ অতিথি ছিলেন ভুজপুর থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার ইনচার্জ হেলাল উদ্দীন ফারুকী, ভুজপুর থানা পূজা উদযাপন পরিষদের উপদেষ্টা বাবুল বিশ্বাস, প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি লক্ষী বিন্দু ধর, বাগীশিক ফটিকছড়ি উপজেলার সভাপতি ডাঃ সুব্রত চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক রুপক দে, মাস্টার সুনীল পাল, রঞ্জিত পাল ও তাপস চন্দ্র, লায়ন ডাঃ বরুণ কুমার আচার্য বলাই, রঞ্জিত শীল।
এতে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদান রাখায় এলাকার বিশিষ্ট ব্যক্তিদের সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেন অতিথিবৃন্দ। ভুজপুর পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিহির কুমার দের সঞ্চালনায় শুরুতে আমন্ত্রিত অতিথিদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেন পূজা উদযাপন পরিষদের কর্মকর্তারা। পরে হিন্দু সমপ্রদায়ের বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে বিশেষ স্মারক গ্রন্থ ‘আধ্যাশক্তি’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেন অতিথিবৃন্দ।

ফটিকছড়ি উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদ

গত ৮ অক্টোবর ফটিকছড়ি উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের উদ্যোগে ফটিকছড়ি কেন্দ্রীয় মন্দির সেবখোলায় মহালয়া দিনব্যাপী কর্মসূচির মাধ্যমে ফটিকছড়ি পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি রতন কান্তি চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। মহালয়া উপলক্ষে দিনব্যাপী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আলোচনা সভা, দেবীর আগমন উপলক্ষে চন্ডিপাঠসহ মাঙ্গলিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্জ্বলন, ধর্মীয় আলোচনা ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ফটিকছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দীপক কুমার রায়। প্রধান বক্তা ছিলেন রমনা কালী মন্দিরের উপদেষ্টা মিলন শর্মা। প্রধান ধর্মীয় বক্তা ছিলেন উজ্জ্বলানন্দ ব্রহ্মচারী। বিশেষ অতিথি ছিলেন সত্যব্রত ব্রহ্মচারী, হাটহাজারী হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি গৌবিন্দ প্রসাদ মহাজন, ফটিকছড়ি হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি ডাঃ বিজয় কৃষ্ণ বৈষ্ণব, সাবেক পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি রঞ্জিত চৌধুরী, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. ফেরদৌস হোসেন, উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা তরিকুল ইসলাম, উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী প্রণবেশ মহাজন, সংবর্ধিত অতিথি ছিলেন ফটিকছড়ি থানার ওসি মো. বাবুল আকতার, ফটিকছড়ি পৌরসভার কমিশনার গোলাপ মওলা গোলাপ, কমিশনার ফিরোজা বেগম, সাবেক পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি মৃদুল কান্তি দেবনাথ, চট্টগ্রাম চা-বাগান ভ্যালি সভাপতি নিরঞ্জন নাথ মন্টু, ফটিকছড়ি জন্মাষ্টমী পরিষদের সাধারণ সম্পাদক দয়াল রায়। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন সাধারণ সম্পাদক ডাঃ প্রতাপ রায় ও মাস্টার প্রদীপ কান্তি দে।
এতে উপস্থিত ছিলেন তাপস চক্রবর্তী, লায়ন ডাঃ বরুণ কুমার আচার্য বলাই, শিমুল ধর, সুজিত চক্রবর্তী, সুমন বণিক, মিলন কান্তি নাথ, অঞ্জন দে, প্রদীপ দে, পণ্ডিত লিংকন চক্রবর্তী, কুসুম দে, কাজল পাল, সাগর দে, সুরঞ্জন দে, দয়াল কান্তি রায়, রজত পাল, আদিত্য সৈকত, বিষু ভৌমিক, কল্লোল দে, তাপস চক্রবর্তী, দোলন নাথ, রজত পাল, অর্চণা আচার্য, প্রেমাঙ্কুর চৌধুরী, প্রশান্ত দে, পলাশ দে, সজল পাল, সবুজ দাশ, ধনঞ্জয় দেবনাথ, পণ্ডিত তরুণ কুমার আচার্য কৃষ্ণ, বন্ধন আচার্য, ঝন্টু শীল, মানিক বড়ুয়া, ডাঃ সুশীল আচার্য, মাস্টার সোনা আচার্য প্রমুখ। অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিচালনা করেন হাইদচকিয়া পণ্ডিত নিরোদলীলা গীতা বিদ্যাপীঠের ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ।

কৈবল্যধাম আশ্রমে বস্ত্র বিতরণ
গত ৮ অক্টোবর কৈবল্যধাম আশ্রমে আসন্ন শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে আশ্রমের পুরোহিত সেবক-সেবিকাদের মাঝে বস্ত্র্ত্রবিতরণ করেন সমাজসেবিকা মীরা সেন। বস্ত্র বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন সুজিত দাশ, বিপ্লব সেন, বাবুল চৌধুরী, হিল্লোল সেন, দোলন দেব, সুমন চৌধুরী, প্রিয়তোষ ঘোষ রতন, রিপন রায় প্রমুখ।

উত্তর কাট্টলীতে পূজা উদযাপন পরিষদ

নগরীর আকবরশাহ ও পাহাড়তলী থানার ১৫টি পূজামণ্ডপে সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে শারদীয়া দুর্গোৎসব পালনের লক্ষ্যে মতবিনিময় সভা গত শুক্রবার উত্তর কাট্টলী ওয়ার্ড কাউন্সিলর অফিসে অনুষ্ঠিত হয়। ঈশান মহাজন রোডস্থ রক্ষাকালী বাড়ি পরিচালনা কমিটির সভাপতি বীরেন্দ্র লাল দের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি ছিলেন প্যানেল মেয়র নেছার উদ্দিন আহমেদ মঞ্জু। শিপু বিশ্বাসের সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন-মো. লোকমান আলী, মো. ইকবাল চৌধুরী, ইঞ্জিনিয়ার তরুণ তপন দত্ত, যামিনী দে, স্বপন দত্ত, সমীর কান্তি দত্ত, অজয় মিত্র শংকু, উত্তম কুমার দাশ, সুভাষ দাশ, রবি শংকর দে, উত্তম আচার্য, মিঠুন সরকার, সফিউল আলম চৌধুরী, আলী আজগর চৌধুরী, সেলিম উল্ল্যাহ চৌধুরী, মো. আলাউদ্দিন, সায়েদুর রহমান পুতুল, গিয়াস উদ্দিন, আনন্দ আচার্য, শাহনেওয়াজ, শিবলু সেন, লায়ন গিয়াস উদ্দিন।

হাজারী লেইন মহালয়া উদযাপন পরিষদ

হাজারী লেইন মহালয়া উদযাপন পরিষদের উদ্যোগে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর জহরলাল হাজারীর সভাপতিত্বে গতকাল সোমবার সকালে নগরীর হাজারী লেইনস্থ শিব মন্দির প্রাঙ্গণে ফ্রি চিকিৎসা ক্যাম্পের আয়োজন করা হয়। এতে রক্তদান করেন ৪৫ জন, রক্তের গ্রুপ পরীক্ষা করেন ৫০০ জন, ডায়াবেটিক পরীক্ষা করেন ৩০০ জন ও ৫০০ জন দুস্থদের মাঝে বস্ত্রদান করা হয়। ডা. শুভ দাশের পরিচালনায় উক্ত ক্যাম্পে ১৯ জন বিশেষজ্ঞ ডাক্তার উপস্থিত ছিলেন। রক্তদান ও ডায়াবেটিক পরিমাপের সহযোগী ছিলেন লায়ন্স ক্লাব অব চিটাগাং ইউনিট। রক্ত গ্রুপ নির্ণয়ে ছিলেন সনাতন মৈত্রী সংঘ বাংলাদেশ। বক্তব্য রাখেন সুমন প্রসাদ শর্মা, অশোক গুপ্ত, ননী গোপাল আচার্য্য, গৌতম সিং হাজারী, ডা. শ্রী রাম আচার্র্য্য, স্বপন কুমার দে, বলরাম চক্রবর্ত্তী, নিপু শর্মা, প্রতাপ চৌধুরী, প্রিয়ম দে, জয় চৌধুরী, রাজীব সরকার, গৌতম নন্দী প্রমুখ।

পতেঙ্গা শ্যামা সংঘ
আসন্ন শারদীয়া দুর্গোৎসবকে বরণে নগরীর উত্তর পতেঙ্গাস্থ ৪০নং ওয়ার্ডের কাটগরস্থ হিন্দুপাড়া পতেঙ্গা শ্যামা সংঘের উদ্যোগে নানা কর্মসূচির মাধ্যমে শুভ মহালয়া উদযাপিত হয়েছে। কালি মন্দির প্রাঙ্গণে ৮ অক্টোবর সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় অনুষ্ঠিত কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন দুর্গোৎসব কমিটির সভাপতি লিটন চৌধুরী। সাধারণ সম্পাদক সুমন দেবের সঞ্চালনায় এতে উদ্বোধক ছিলেন শিব কালি মন্দির পরিচালনা সভাপতি সাধন নন্দী, সাধারণ সম্পাদক মিন্টু চৌধুরী। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন নির্মূল ভৌমিক, অসিত চৌধুরী, তাপস চৌধুরী, কাজল চৌধুরী এবং নয়ন দত্তসহ পূজা কমিটির সদস্যবৃন্দ।

মহালয়া উদযাপনে কর্মসূচিতে চন্ডীপাঠ, বস্ত্রদান, বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ পরীক্ষা, ডায়াবেটিকস পরীক্ষা, ধর্মীয় সংগীতানুষ্ঠান। কর্মসূচি শেষে রাতে ধর্মীয় সংগীতানুষ্ঠান পরিবেশিত হয়। এর আগে গত ৩ অক্টোবর বিকেলে লিটন চৌধুরীকে সভাপতি, সুমন দেবকে সাধারণ সম্পাদক এবং নয়ন দত্তকে অর্থ সম্পাদক করে ১০১ সদস্য বিশিষ্ট পূজা উদযাপন কমিটি ঘোষণা করা হয়। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

পূজা উদযাপন পরিষদ ডবলমুরিং থানা
ডবলমুরিং থানার পূজা উদযাপন পরিষদ চট্টগ্রাম মহানগর শাখার নব-নির্বাচিত সভাপতি হিসাবে ডা. দীপক চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক বাবু মিন্টু দাশ সর্বসম্মতি ক্রমে দুই বছরের জন্য নির্বাচিত হয়েছেন। পরিচালনা পরিষদের সভাপতি তমাল শর্ম্মা চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় উদ্বোধক ছিলেন মুক্তিযুদ্ধা অরবিন্দু পাল (অরুন) মহানগর পূজা পরিষদের প্রাক্তন সভাপতি, প্রধান অতিথি ছিলেন এড. চন্দন তালুকদার, চট্টগ্রাম মাহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি, প্রধান বক্তা ছিলেন প্রকাশ দাশ অসিত, মহানগর পূজা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক, বিশেষ অতিথি ছিলেন লায়ন আশীষ ভট্টাচার্য্য, অর্পণ কান্তি ব্যানার্জী, রানা বিশ্বাস, রত্নাকর দাশ (টুনু) সাবেক সধারণ সম্পাদক, সুজিত দাশ, অনুষ্ঠানে থানা কমিটিদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাবু সুজন পাল, শাওন চৌধুরী, ডা. অনুপম চক্রবর্তী, বাবু ঝন্টু লীল, মানস শেখর। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

x